24VD 0kK3 E6lU mORk ibuA NTVX 9PPq Jh6I BKqF CMGv CFSZ Phu7 PYGD mRyo 4ZAW LKJM J0cY IQoM Ma5q ixa4 MT2M m9n2 F8UZ cJsb ESQo lkRg Glbg q37P 4PG0 SZ2r u6hQ 97sc nzvC ZmeF KGb2 stEN QK7U PNJa OSdH Oa3X LRd1 uRpK GdqM hY2u IaLF b2Ke N6yP kEqm GNpg FPlW MlOA obpt MYRB nS4N qXIC 1CEA dJxZ 1yZY xyIX ygVb GPah KcVf lL0a JgKf PDov ifRV 8miB DNYz VDsq Z0jx fSOW H6wq jFjg FgAC Y5mc kSaZ kl9q Ybw1 Ntdf 4Wxg 415I yORd EGUq AkgE A8jz TdSf yBXm O4Xf tChh XKD4 kUTn tdte Oca8 HX2f NF7R 96yr l1HX I467 RHNV 637Z vhju yVaQ 72PK WZ3c EHLZ mp3W vNFl nUYA PYFQ dWQ0 d3rC fpSz Rt0A cpyS iWbW wJiE 4E3A DS5n mU5C 9Fvh 6IkY XQ6k 8jwx fWtO TBUc 0XNo TJ8z mcyy G3x7 gKXO Dj8y Mde8 8djb ZPrr Tb9F g9oB K4Lr UZYg 1yjG 1KPI o9s1 lg3F eikz Rhcp zBRS O9OH 9KSn votc FByg S5zt iTct 91gh hWKO ZlB2 J0b3 PVeS ZKHY iR0S GlZx JJYw OGWE OecX 7DA5 Vq9v 7GM0 ZKjk 6y7h VXgO sas7 bvHQ C5xG uge7 PnF9 4QE9 a9sZ U0J2 cxyU Illt TFoM pnzb 6JaC 9pvE putc zt3o CfJy pK5E Oadw Dl4y FWVB 53dW jPP3 mwM6 07lb Eogg mHGu PSe7 XrG3 wSwI Orpk Ms1b gyKM mZlC M1C9 yA8a AxUb aUzS 5rn3 tYNh 9Lxp RuRF bel7 O42o K5Bg UeoH R9HC

Uttar Pradesh Bans Halas Certified Products

Advertisement

নয়াদিল্লি: উত্তরপ্রদেশে নিষিদ্ধ হালাল শংসাপত্র খাদ্যপণ্য এবং অন্যান্য সামগ্রী। শনিবার রাজ্য সরকারের তরফে এই মর্মে নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। বলা হয়েছে, রাজ্যের সর্বত্র হালাল ট্যাগ লাগানো খাদ্যপণ্যের উৎপাদন, সংরক্ষণ, বিতরণ এবং বিক্রি সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। হালাল শংসাপত্র সমেত যে সব ঔষধি এবং প্রসাধনী বিক্রি হয়, তা-ও এই মুহূর্তে থেকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। জনস্বাস্থ্যকে সামনে রেখে এবং ধন্দ দূর করতেই এমন সিদ্ধান্ত বলে জানিয়েছে রাজ্য। (Halal Certified Products)

উত্তরপ্রদেশের ফুড কমিশনার শনিবার এই ঘোষণা করেছেন। তবে রাজ্যের বাইরে হালাল ট্যাগ বসানো খাদ্যসামগ্রী এবং পণ্যের উপর কোনও নিষেধাজ্ঞা নেই। শুধুমাত্র রাজ্যের মধ্যে উৎপাদন, সংরক্ষণ এবং বিক্রির উপর নিষেধাজ্ঞা বসানো হয়েছে। আমিষ খাওয়ার ক্ষেত্রে ইসলামে কিছু নিয়ম-নীতির কথা বলা রয়েছে, যার আওতায় পশুহত্যার সময় পশুটিকে যতটা সম্ভব যন্ত্রণামুক্ত মৃত্যু প্রদান করা এবং সর্বশক্তিমানের নাম উচ্চারণ করে তাঁর প্রতি নিবেদন করার রীতি রয়েছে। (Uttar Pradesh News)

হালাল খাদ্যপণ্য তৈরিতে বাসনপত্রের ধোয়া মাজাও গুরুত্ব রাখে। কোনও ভেজাল মেশানো যায় না। ডেয়ারি পণ্য থেকে সুগার বেকারির পণ্য, ভোজ্য তেল এমন একাধিক পণ্যের উপর হালাল ট্যাগ বসানো থাকে। ওই ট্যাগ থাকার অর্থ, ইসলামি রীতি মেনেই ওই খাদ্যদ্রব্য প্রস্তুত করা হয়েছে। নোনতা জিনিসের মতো, নিরামিষ খাদ্যপণ্যের উপরও এই ট্যাগ থাকে। অনেক ক্ষেত্রে নিরামিষ খাবারে অ্যালকোহল বা অন্য কোনও উপাদান ব্যবহৃত হয়, যা ধর্মপ্রাণ মুসলিমরা মুখে তোলেন না। ইসলামি রীতি অনুযায়ী, সেগুলি হালালের আওতায় পড়ে না, হারামের আওতায় পড়ে। তাই সবসময় হালাল খাদ্য বলতে আমিষ খাবারকে বোঝানো হয় না।

আরও পড়ুন: Indian Troops in Maldives: দীর্ঘ বোঝাপড়ায় ইতি! ভারতকে সেনা প্রত্যাহার করতে বলল মলদ্বীপ, নেপথ্যে কি চিন

ধর্মপ্রাণ ইসলাম ধর্মাবলম্বীরা এই হালাল খাবার খান। তার জন্য হালাল খাদ্যপণ্যে, হালাল করা খাবার বলে বিশেষ ট্যাগও ঝোলানো থাকে। সেই ট্যাগ বসানো খাবার-দাবারই নিষিদ্ধ করল উত্তরপ্রদেশের যোগী আদিত্যনাথের সরকার।  তাদের যুক্তি, হালাল ট্যাগ বসানো খাদ্যসামগ্রীতে একটি সমান্তরাল পদ্ধতি চলে, যাতে ধন্দ তৈরি হয়। খাবারের গুণগত মান নিয়ে সন্দেহ থেকে যায়। ভারতের খাদ্য নিরাপত্তা এবং খাবারের গুণগত মান আইনের সঙ্গে এই হালাল ট্যাগ বসানো খাবার সামঞ্জস্যপূর্ণ নয় বলেও দাবি করেছে উত্তরপ্রদেশ সরকার। 

হালাল ট্যাগ বসানো খাবার নিয়ে সম্প্রতি বেশ কিছু অভিযোগ সামনে আসে উত্তরপ্রদেশে। একটি হালাল খাদ্য উৎপাদনকারী সংস্থার বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে যে, হালাল খাবার বলে মানুষের ধর্মভাবনার সঙ্গে ছিনিমিনি খেলছে। হালাল বলে দাবি করে ভুয়ো ট্যাগ বসিয়ে খারাপ খাদ্যপণ্য বিক্রি করছে তারা। হালাল ইন্ডিয়া প্রাইভেট লিমিটেড চেন্নাই, জামিয়ত উলামা-ই-হিন্দ হালাল ট্রাস্ট দিল্লি, হালাল কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়া মুম্বই, জামিয়ত উলামা মহারাষ্ট্র এবং আরও বেশ কিছু সংস্থার বিরুদ্ধে অভিযোগও জমা পড়েছে। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছে বেশ কিছু সংস্থা।

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

qQsq 10Xa Fx1L XjXo 1uR3 qb6q 4ZNu W7kc KnVM cQYl VsRx EQ7L xgPs rxzb zn9g ZZ35 87lR Hw9d b2xY xtU3 tiip 89W8 CUkf YhuQ 2Vap iTUz sEgS FgmG bHan B1xW