Kashmir: ইয়াসিন মালিকের ফাঁসি চায় NIA, আবেদন দিল্লি হাইকোর্টে

Advertisement

জম্মু ও কাশ্মীরের লিবারেশন ফ্রন্টের নেতা তথা কাশ্মীরের বিচ্ছিন্নতাবাদী আন্দোলনের অন্যতম নেতা ইয়াসিন মালিক। এবার তার মৃত্যুদণ্ড চেয়ে দিল্লি হাইকোর্টের দ্বারস্থ হল এনআইএ।

আগামী ২৯ মে গোটা বিষয়টি শুনানির জন্য় হাজির করানো হবে। বিচারপতি সিদ্ধার্থ মৃদুল, তলওয়ান্ত সিংয়ের এজলাসে মামলাটি উঠবে। এদিকে বার ও বেঞ্চের প্রতিবেদন অনুসারে খবর, ২০২২ সালের মে মাসে গ্রেফতার করা হয়েছিল ইয়াসিন মালিককে। টেরর ফান্ডিংয়ের অভিযোগে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। স্পেশাল এনআইএ কোর্টে তার যাবজ্জীবন কারাদন্ডের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তবে তিনি এই মামলা থেকে অব্যাহতি চেয়েছেন।

এদিকে এর আগে এনআইএ এবার ইয়াসিন মালিকের জন্য মৃত্যুদণ্ডের আবেদন করেছিল আদালতে। কিন্তু স্পেশাল কোর্ট সেই আবেদন মানেনি। কারণ তখন বলা হয়েছিল ব্যতিক্রমী ক্ষেত্রেই মৃত্যুদণ্ড হতে পারে। সমাজের বৃহত্তর ক্ষেত্রে যখন কোনও অপরাধ প্রভাব বিস্তার করে তখনই এই ধরনের মৃত্যুদণ্ডের নির্দেশ দেওয়া হয়।

এদিকে সূত্রের খবর, ১২০বি, ১২১,১২১ও, ইউএপিএর ধারায় ইয়াসিন মালিকের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছিল। বিস্তারিত পর্যবেক্ষণে আদালত দেখেছিল সরকার যে ভালো লক্ষ্য়ে কাজ করার চেষ্টা করছে সেটাকে বিঘ্ন ঘটানোর জন্য় হিংসার আশ্রয় নিয়েছিলেন ইয়াসিন মালিক।

এদিকে এর আগে ইয়াসিন মালিক জানিয়েছিলেন ১৯৯৪ সালের পর থেকেই তিনি গান্ধীবাদী। তবে বিচারপতি জানিয়েছিলেন, চৌরিচৌরার একটা ছোট ঘটনার পরেও সার্বিকাভাবে অহিংসার পথে চলে গিয়েছিলেন গান্ধীজি। আর উপত্যকায় দিনের পর দিন ধরে হিংসার ঘটনা হয়েছে। কিন্তু তা নিয়ে কোনও নিন্দা প্রকাশ করেননি ইয়াসিন। তিনি তার প্রতিবাদের রাস্তা থেকে সরে আসেননি। এর জেরে উপত্যকায় আরও হিংসা ছড়ায়।

 

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।