Mithun chakraborty on PM Awas Yojana: ‘বাড়ি না পেয়ে গরিব মুসলিম ভাইবোনরা কাঁদছে’, আবাসে দুর্নীতি নিয়ে কটাক্ষ মিঠুনের

Advertisement

পঞ্চায়েত ভোটের আগে জেলায় জেলায় ঘুরে কর্মসূচি পালন করছেন বিজেপি নেতারা। দলের তারকা নেতা মিঠুন চক্রবর্তীও বিভিন্ন জেলায় ঘুরে জনসংযোগ বাড়াচ্ছেন। আর সেই কর্মসূচি থেকে সংখ্যালঘুদের হাতিয়ার করে রাজ্যের শাসকদলকে একহাত নিলেন মিঠুন চক্রবর্তী। মূলত প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় দুর্নীতি নিয়ে তৃণমূলকে কটাক্ষ করেন বিজেপির তারকা নেতা।

বুধবার নদিয়ার তেহট্টে জনসভায় যোগ দিয়ে মিঠুন চক্রবর্তী প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার দুর্নীতির কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘সমস্ত গ্রামের গরিব মুসলিম ভাই বোনেরা কাঁদছে। তারা বলছে আমাদের বাড়ি কোথায় গেল!’ প্রসঙ্গত, সম্প্রতি রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় আবাস যোজনায় দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। সেই প্রেক্ষিতে সংখ্যালঘুদের মন পেতে মিঠুন চক্রবর্তী এমন মন্তব্য করেছেন বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল। এরপরে মিঠুন চক্রবর্তী প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় প্রত্যেকের কাঁচা বাড়ি পাকা করা হবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

মিঠুন চক্রবর্তী আরও বলেন, ‘আমি যা বলেছি তা করে দেখিয়েছি। এবারও করে দেখাব। যাদের কাঁচা বাড়ি রয়েছে তাদের পাকা বাড়ি হয়ে যাবে।’ এর জন্য মানুষকে লোকসভা নির্বাচন পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে না বলেই সাফ জানিয়ে দিয়েছেন মিঠুন চক্রবর্তী। তিনি বলেছেন, পঞ্চায়েত ভোটে জিতলেই বিজেপি এইসব করে দেখাবে। মিঠুন চক্রবর্তী ছাড়াও এ দিন তেহট্টের জনসভায় উপস্থিত ছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার। তিনিও আবাস যোজনা সহ সাম্প্রতিক একাধিক দুর্নীতি নিয়ে রাজ্য সরকারকে কটাক্ষ করেন।

প্রসঙ্গত, পঞ্চায়েত ভোটের লক্ষ্যে বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব রাজ্য নেতৃত্বকে গ্রামে গ্রামে গিয়ে জনসংযোগ বাড়ানোর নির্দেশ দিয়েছে। বিশেষ করে সীমান্তবর্তী এলাকাগুলিতে সংখ্যালঘুদের যেহেতু আধিক্য বেশি তাই সেই সমস্ত এলাকায় সংখ্যালঘুদের অভিযোগ শুনতে হবে বলে নির্দেশ দিয়েছেন শীর্ষ নেতৃত্ব। তারপরেই গ্রামে গ্রামে পৌঁছচ্ছে বিজেপি নেতারা। সম্প্রতি একটি সভায় সংখ্যালঘুদের ভুল বোঝানো হচ্ছে বলেও সুকান্ত মজুমদার শাসকদলের বিরুদ্ধে কটাক্ষ করেছিলেন। সেদিনও সুকান্ত মজুমদারের সঙ্গে ছিলেন মিঠুন চক্রবর্তী।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।