কুন্তলের টাকা গিয়েছে অভিষেক-ঘনিষ্ঠের কাছে জানিয়েছেন তাপস মণ্ডল, দাবি গণশক্তির

Advertisement

শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতিতে তাপস মণ্ডলের মুখে উঠে এসেছে তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের এক অত্যন্ত ঘনিষ্ঠের নাম। সিপিআইএমের মুখপাত্র গণশক্তিতে এমনই দাবি করা হয়েছে। প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, তাপস মণ্ডল জানিয়েছেন, কুন্তলের কাছে টাকা ফেরত চাইলে সে জানাত ‘কাকুকে টাকা দিতে হচ্ছে।’ তাপসবাবুর দাবি, এই ‘কাকু’ হলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘনিষ্ঠ সুজয়কৃষ্ণ ভদ্র। ৮ বছর আগে নারদকাণ্ডে যার নাম উঠে এসেছিল।

গণশক্তির প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, ‘লিপস অ্যান্ড বাউন্ডস’ নামে একটি সংস্থার ডিরেক্টর ছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তখন ওই সংস্থার বোর্ড অফ ডিরেক্টরসের সদস্য ছিলেন এই সুজয়কৃষ্ণ ভদ্র। তখন বোর্ডের সদস্য ছিলেন লতা ও অমিত বন্দ্যোপাধ্যায়ও।

গণশক্তির প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, ২০১৪ সালে লোকসভা নির্বাচনের আগে প্রকাশিত নারদ ফুটেজে সুজয়কৃষ্ণ ভদ্র নামে এই ব্যক্তিকে দেখা গিয়েছিল। এক যুবক অভিষেকের ঘনিষ্ঠ বলে ম্যাথু স্যামুয়েলের কাছ থেকে টাকা নেওয়ার সময় পাশেই ছিলেন সুজয়কৃষ্ণ। সঙ্গে ছিলেন শর্মা নামে আরও এক যুবক। তাঁকে বলতে শোনা যায়, ‘আপনি একদম ঠিক জায়গায় এসেছেন। ওনার সঙ্গে নেতা – মন্ত্রীদের যোগাযোগ রয়েছে। উনি সাক্ষাতের ব্যবস্থা করে দিতে পারবেন’।

গণশক্তির দাবি, তাপস মণ্ডল জানিয়েছেন, তাঁর কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের থেকে মাথাপিছু কয়েক লক্ষ করে টাকা নিয়েছিল গ্রেফতার হওয়া যুব তৃণমূলের রাজ্য সম্পাদক কুন্তল ঘোষ। সেই টাকা ফেরত চাইলে সে বলত, ‘কাকু’কে টাকা দিতে হচ্ছে। এই ‘কাকু’ই সুজয়কৃষ্ণ ভদ্র বলে দাবি তাপসবাবুর। কলকাতার বাসিন্দা সুজয়বাবুকে একাধিকবার অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের দফতরে দেখা গিয়েছে বলেও সূত্র মারফৎ জানা গিয়েছে।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।