Deganga Incident: গৃহবধূকে বিষ খাইয়ে খুন করল প্রতিবেশী যুবক, দেগঙ্গায় কেন এমন ঘটনা ঘটল?

Advertisement

এক গৃহবধূকে প্রায়ই কুপ্রস্তাব দিত প্রতিবেশী যুবক। তাতে বেশ বিরক্তবোধ করতেন ওই গৃহবধূ। কিন্তু সেই প্রস্তাব বারবার প্রত্যাখ্যান করে দেন ওই গৃহবধূ। আর তাতেই ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে যুবক। দিনের পর দিন প্রত্যাখ্যাত হয়ে রাগেই ওই গৃহবধূকে কীটনাশক খাইয়ে খুন করল যুবক বলে অভিযোগ। খুনের আগে ওই প্রতিবেশী যুবক গৃহবধূকে অত্যাচারও করেছিল বলে অভিযোগ। এই ঘটনার পর গৃহবধূকে আরজি কর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করেন।

ঠিক কী ঘটেছে দেগঙ্গায়?‌ স্থানীয় সূ্ত্রে খবর, ওই যুবকের গৃহবধূর বাড়িতে যাতায়াত ছিল। এই যাতায়াতের সুবাদেই বেশ কয়েকবার ওই গৃহবধূকে কুপ্রস্তাব দেয় ওই যুবক। আর সেটা সরাসরি প্রত্য়াখ্য়ান করেন তিনি। গত ২৩ জানুয়ারি ওই গৃহবধূর পেটে ব্য়থা করছিল। তখন তা জানতে পেরে গৃহবধূর পেটে হঠাৎ হাত বুলিয়ে দেয় ওই যুবক। তখনই ফুঁসে ওঠেন ওই গৃহবধূ। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পেটে ব্য়থার ওষুধের নাম করে ওই গৃহবধূকে কীটনাশক দেন ওই যুবক। আর তা খেয়েই অসুস্থ হয়ে পড়েন গৃহবধূ।

তারপর ঠিক কী ঘটল?‌ ওই গৃহবধূ অসুস্থ হয়ে পড়তেই চিৎকার শুরু করেন। আর ঘটনার কথা প্রতিবেশীদের বলতে থাকেন। তখন অসুস্থ ওই গৃহবধূকে প্রতিবেশীরা প্রথমে বারাসত জেলা হাসপাতালে ভর্তি করেন। কিন্তু শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাঁকে আরজি কর হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। কিন্তু শত চেষ্টা করেও বাঁচানো যায়নি ওই গৃহবধূকে। এই ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে।

পুলিশ কী তথ্য পেয়েছে?‌ পুলিশ সূত্রে খবর, এই ঘটনার পরই প্রতিবেশী যুবকের বিরুদ্ধে দেগঙ্গা থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ওই গৃহবধূর স্বামী। তবে এই ঘটনার পর এলাকা ছেড়ে পালিয়েছে অভিযুক্ত যুবক। তার খোঁজে তল্লাশি শুরু হয়েছে। ওই গৃহবধূর দেহ ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে। যুবকের বাড়িতে গিয়ে তল্লাশি করা হয়েছে। পাড়ার লোকজনকে তক্কেতক্কে থাকতে বলা হয়েছে। ওই যুবক পরিচিত হওয়ায় প্রায়ই গৃহবধূর বাড়িতে যেত। সেখান থেকেই এই কুপ্রস্তাবের সূত্রপাত।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।