Amazing to bat with Virat Kohli and Rohit Sharma, says Shubman Gill

Advertisement

জি ২৪ ঘন্টা ডিজিটাল ব্যুরো: শ্রীলঙ্কার (Sri Lanka) পর এবার নিউজিল্যান্ড (New Zealand)। দুই বিপক্ষের বোলিংয়ের দারুণ মহড়া নিয়েছেন শুভমন গিল (Shubman Gill)। গত দুই সিরিজে রানের ফুলঝুরি ছোটানো টিম ইন্ডিয়ার (Team India) ওপেনার, তাঁর ইনিংস গড়ার ক্ষেত্রে বিরাট কোহলি (Virat Kohli) ও রোহিত শর্মার (Rohit Sharma) সঙ্গে বেঁধেছেন জুটি। ভারতীয় ক্রিকেটের দুই মহাতারকার সঙ্গে ব্যাট করার অভিজ্ঞতা কেমন ছিল? বাইশ গজে ‘কিং কোহলি’ (King Kohli) ও ‘হিট ম্যান’-এর (Hit Man) সঙ্গে সময় কাটিয়ে কতটুকু শিখতে পারলেন পঞ্জাব তনয়? সেটাই দলের হেড কোচ রাহুল দ্রাবিড়কে (Rahul Dravid) জানালেন শুভমন। দু’জনের আলাপচারিতার সেই ভিডিয়ো টুইটারে পোস্ট করেছে বিসিসিআই (BCCI)। সোশ্যাল মিডিয়ার যুগে সেই ভিডিয়ো এই মুহূর্তে ভাইরাল। 

সেই আলাপচারিতার মাঝে দ্রাবিড় তাঁকে জিজ্ঞেস করেন, দুই ম্যাচ উইনারের সঙ্গে ব্যাটিং করার অভিজ্ঞতা কেমন ছিল? শুভমন বলেন, “ওঁদের সঙ্গে ব্যাট করার অভিজ্ঞতা দারুণ। রোহিত ভাই ও বিরাট ভাই-কে দেখে বড় হয়েছি। ওঁদের প্রতি প্রচণ্ড সম্মান রয়েছে। বিশেষ করে অস্ট্রেলিয়া সফরে দুজন কেমন ব্যাট করেছে সেটা দেখে দারুণ অনুভূতি হত। ওই কঠিন পিচে কীভাবে রোহিত ভাই ও বিরাট ভাই লাগাতার রান করত, সেটা আমার কাছে ছিল শেখার বিষয়।” 

রোহিত ও বিরাটের সঙ্গে ইনিংস গড়ার অভিজ্ঞতা নিয়ে আলোচনা করার সময়, চলে এসেছিল তৃতীয় ম্যাচের প্রসঙ্গ। গত ম্যাচে টিম ইন্ডিয়ার অধিনায়কের সঙ্গে প্রথম উইকেটে ২১২ রান যোগ করেন শুভমন। তাও আবার মাত্র ২৬.১ ওভারে দুই ওপেনার ঝড়ের গতিতে রান তুলে দেন। রোহিত ৮৫ বলে করেন ১০১ রান। তাঁর ইনিংসে ছিল ৯টি চার ও ৬টি ছক্কা। অন্যদিকে শুভমন তাঁর একদিনের ক্রিকেট কেরিয়ারের চতুর্থ শতরান করলেন। থামলেন ৭৮ বলে ১১২ রানে। মারলেন ১৩টি চার ও ৫টি ছক্কা। 

আরও পড়ুন: Rahul Dravid: নিজের নামের ড্রেসিংরুমে ঢুকতে কেমন লাগল? লজ্জায় লাল হলেন দ্রাবিড়!

আরও পড়ুন: Jasprit Bumrah and Rohit Sharma: কবে মাঠে ফিরবেন বুমরা? বড় মন্তব্য করে দিলেন চাপে থাকা রোহিত

এহেন রোহিতের সঙ্গে ব্যাটিং করার অভিজ্ঞতা নিয়ে শুভমনের প্রতিক্রিয়া, “ব্যাট করার সময় রোহিত ভাই ও বিরাট ভাই কীভাবে নিজেদের বুদ্ধিকে কাজে লাগান সেটাও শিখেছি। যেমন গত ম্যাচে ড্যারিল মিচেলের বল খেলতে রোহিত ভাইয়ের সমস্যা হচ্ছিল। সেই সময় ৭০ কিংবা ৮০ রানে ব্যাট করছিলেন রোহিত ভাই। তাঁর মনে হচ্ছিল মিচেলের ভিতরে আসা ডেলিভারিতে আউট হয়ে যেতে পারেন। তাই আমাকে নির্দেশ দেন, আমি যেন মিচেলকে অ্যাটাক করি। এটাই একজন বড় ক্রিকেটারের বিশেষত্ব। যেগুলো প্রতিনিয়ত দু’জনের কাছ থেকে শিখছি।” 

দেশের জার্সি গায়ে চাপিয়ে টেস্ট ও ৫০ ওভারের ফরম্যাটে পঞ্জাব তনয় ইতিমধ্যেই নিজেকে মেলে ধরেছেন। পরিসংখ্যান সেই দিকেই ইঙ্গিত দিচ্ছে। ১৩ টেস্টে তাঁর রান ৭৩৬। গড় ৩২.০০। স্ট্রাইক রেট ৫৭.৮৭। সঙ্গে রয়েছে ১টি শতরান ও ৪টি অর্ধ শতরান। একদিনের ক্রিকেটেও তরুণ ওপেনার টিম ম্যানেজমেন্টের ভরসার মর্যাদা দিয়েছেন। একদিনের ক্রিকেটেও তাঁর পারফরম্যান্স চোখে পড়ার মতো। ২১টি ম্যাচে তাঁর রান ১২৫৪। সর্বোচ্চ ২০৮। গড় ৭৩.৭৬। স্ট্রাইক রেট ১০৯.৮০। সঙ্গে রয়েছে ৪টি শতরান ও ৫টি অর্ধ শতরান। 

নতুন বছরেও সফল তিনি। শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ৩টি একদিনের ম্যাচে করেছিলেন ২০৭ রান। সর্বোচ্চ ১১৬। গড় ৬৯.০০। স্ট্রাইক রেট ১১২.৪৮। সঙ্গে ছিল ১টি শতরান ও ১টি অর্ধ শতরান। সেই ধারাবাহিকতা কিউইদের বিরুদ্ধেও বজায় রেখেছিলেন। এই একদিনের সিরিজের ৩ ম্যাচে শুভমনের ব্যাট থেকে এসেছে ৩৬০ রান। সর্বোচ্চ ২০৮ রান। গড় ১৮০.০০। স্ট্রাইক রেট ১২৮.৫৭। সঙ্গে রয়েছে দুটি শতরান।  

(Zee 24 Ghanta App দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App)   

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।