Aftab Ansari: সেলের বাইরে পা রাখার শক্তি নেই আফতাব আনসারির, ঠিক কী ঘটেছে প্রেসিডেন্সি জেলে?

Advertisement

‘আফতাব আনসারি’ নামটা মনে আছে?‌ কেমন দেখতে তাকে?‌ এই প্রশ্নগুলি আজ উঠছে কারণ এখন এটা প্রাসঙ্গিক বলে। একুশ বছর আগে কলকাতার আমেরিকান সেন্টারে সন্ত্রাসবাদী হামলার মূল ষড়যন্ত্রী আফতাব আনসারি। কলকাতার বুকে সেই হামলা পুলিশ কর্তাদের শিরদাঁড়া দিয়ে শীতল স্রোত বইয়ে দিয়েছিল। সেই আফতাব আনসারি এখন কারাগারে চরম মধুমেহ রোগে আক্রান্ত। এমনকী তার শরীর সামনের দিকে ঝুঁকে গিয়েছে। ধর্মের কল যেন বাতাসে এভাবেই নাড়া দিয়েছে। নিজে হেঁটে সেলের বাইরে আসতে পারে না একদা এই জঙ্গি বলে সূত্রের খবর।

ঠিক কী অবস্থায় জেলে আফতাব?‌ টানা একুশ বছর প্রেসিডেন্সি জেলে বন্দি থেকে এখন অবস্থা খুব খারাপ। সেলের বাইরে পা রাখার ক্ষমতা নেই আফতাবের। সুগারের থাবায় কিডনি এবং হৃৎপিন্ডের ক্ষমতা কমে এসেছে। আর যোগ হয়েছে মানসিক অবসাদ। সুপ্রিম কোর্ট তার আমৃত্যু কারাদণ্ডের রায় দিয়েছে। এখন মৃত্যুর জন্য দিন গুনছে আফতাব বলে কলকাতা পুলিশের একটি সূত্রে খবর মিলেছে।

ঠিক কী ঘটেছিল একুশ বছর আগে?‌ ২০০২ সালের ২২ জানুয়ারি আমেরিকান সেন্টারে হামলার ঘটনা ঘটেছিল। মোটরবাইকে করে এসে জঙ্গিরা একে–৪৭ দিয়ে হামলা চালায় এবং ঝাঁঝরা করে দেয় কলকাতা পুলিশের পাঁচ কনস্টেবলকে। ওই বছরের ১০ ফেব্রুয়ারি দুবাই থেকে নয়াদিল্লি আনা হয় ডন আফতাব আনসারিকে। তারপর কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দাদের হাতে তুলে দেওয়া হয়। বিচারে দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় প্রথমে ফাঁসির সাজা হয়। পরে সেটা রদ হয়ে সুপ্রিম কোর্ট আমৃত্যু কারাদণ্ড দেয়।

তারপর ঠিক কী ঘটল?‌ তারপর থেকে প্রেসিডেন্সি জেলের এক নম্বর সেলে বন্দি আফতাব। এখন আফতাবের মামলার দেখভাল করছে কলকাতা পুলিশের এসটিএফ। প্রতি সপ্তাহে একবার জেল পরিদর্শনে যান গোয়েন্দারা। তখনই তাঁদের চোখের সামনে আফতাবের অসুস্থ ছবিটা ধরা পড়েছে। তবে বরাবরই সুগার আছে তার। তাই ২০১৫ সালে তার বাম চোখের ছানি কাটাও যাচ্ছিল না। পরে চোখের অপারেশন হয়। বেশ কিছুদিন আগে বুকে ব্যথা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিল আফতাব। এখন তার হাল খুব খারাপ।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।