পাঠান-এ ‘ফিদা’ শহর, বয়কট গ্যাং-কে পাল্টা দিলেন শাহরুখের ‘জবরা ফানরা’!

Advertisement

জি ২৪ ঘণ্টা ডিজিটাল ব্যুরো: কলকাতা থেকে মুম্বই, জয়পুর থেকে ভোপাল পাঠান-এ মেতে শাহরুখ প্রেমীরা। প্রায় পাঁচ বছরের অপেক্ষা পুষিয়ে দিয়েছেন কিং খান। এমনটাই দাবি প্রথম দিনের শো দেখে বেরিয়ে আসা দর্শকদের। কোনও কোনও মহল থেকে মনে করা হচ্ছে প্রথম দিনেই ৫০ কোটি টাকা তুলে ফেলতে পারে পাঠান। কেউ বলেছেন হামে তো লুট লিয়া, কেউ আবার আশ্চর্য হচ্ছেন। কোথায় বিতর্ক!ভারত মাতার উপরেই তৈরি হয়েছে পাঠান। পয়সা উসুল। তবে সালমান ভক্ত কেউ কেউ বলছেন, নজর কেড়েছে ভাইজানও।

আরও পড়ুন-চোটে জর্জরিত বাংলা, ঈশান-প্রীতমের আগুনে বোলিংয়ের পরেও টপ অর্ডারদের ব্যাটিং ব্যর্থতা   

চার বছরের পর শাহরুখকে যারা দেখছেন তাদের অনেকেই বক্তব্য, কিং খানের এমন অ্যাকশন আগে কখনও দেখা যায়নি। আর ছবিটা পুরোপুরি সাসপেন্স মোড়া। ছবির শেষ দশ মিনিট তো নড়ার উপায় নেই।  শাহরুখ-জন আব্রাহামের কম্বিনেশন খুবই পাওয়াফুল বলছেন অনেকে। তবে এমনটাও কেউ কেউ বলছেন, গড়পড়তা ছবির কিছুটা উপরে রাখা যেতে পারে পাঠানকে। তবে এতদিন পর শাহরুখকে দেখে খুবই ভালো লাগছে। অ্যাকশন, ভিএফএক্স ও গান সবখানেই অনেকটাই এগিয়ে পাঠান। ঝানু স্পাই হওয়ার মতো ফিজিক রয়েছে শাহরুখের। কিন্তু ওঁর চোখ! সেটাই আসল অস্ত্র। সিট বেঁধে নেওয়া যে কথা শাহরুখ বলেছিলেন সেটাই টের পাওয়া গেল। 

এদিকে, শাহরুখের পাঠান চালালে থিয়েটার ভাংচুরের হুমকি গিয়েছিল কয়েকটি হিন্দুত্ববাদী সংগঠন। কথা রাখতে সেটাই তারা করল ইন্দোরে। সেখানকার স্বপ্না-সঙ্গীতা সিনেমা হলে পাঠান দেখানোর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখায় হিন্দু জাগরণ মঞ্চ। তারা হলে ঢুকে দর্শকদের বেরিয়ে যেতে বলে। ইন্দোরের অ্যাসিস্ট্য়ান্ট পুলিস কমিশনার দীনেশ আগরওয়াল সংবাদমাধ্য়মে বলেন, বজরং দল ও হিন্দু জাগরণ মঞ্চের সমর্থকরা পাঠান দেখানের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখায়। তাই সকালে কয়েকটি শো বাতিল করতে দিতে হয়।

দক্ষিণী ছবির দাপট যেভাবে হিন্দি ছবিকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছে কিংবা বলা যেতে পারে তাকে পাল্টা চ্য়ালেঞ্জ করে দিলেন শাহরুখ। পাঠানের প্রথম দিকের ট্রেন্ড অন্তত বলছে, হিন্দ ছবি দেখতে হলমুখি হতে চলেছেন দর্শকরা। তবে পাশাপাশি এমন প্রশ্নও উঠে যাচ্ছে যে বলিউডকে কি বাঁচাতে পারবেন বাদশা! পাঠান-এর দর্শকদের দেখে কেউ কেউ একে অন্যভাবেও ব্য়াখ্যা করছেন। বলা হচ্ছে পাঠানের গান রিলিজ করা পর থেকে একে নিয়ে রাজনীতি হয়েছে তার প্রতিবাদেই ভিড় বেড়েছে পাঠান-এ।

কলকাতার দর্শকদের মুখে শাহরুখের বিশাল উপস্থিতি, ছবির ভিএফএক্স ও অ্যাকশন সিকোয়েন্স। শহরের কোনও কোনও হলে গানের সময়ে পর্দার সামনে দাঁড়িয়ে নাচতেও দেখা গিয়েছে ভক্তদের। শহরে শাহরুখ ভক্তরা কেউ এসেছিলেন ঘোড়ার গাড়িতে, কেউ এসেছিলেন নিজের গাড়িকে শাহরুখের ছবিতে মুড়ে। শহরে জুড়ে উন্মাদনা। দর্শদের চাপে রাতের দিকে শো-র সংখ্য়া বাড়ানো হচ্ছে। 

কলকাতা একাধিক হলে ছবি দেখে বেরিয়ে এসে শাহরুখ ভক্তরা জানালেন, শাহরুখকে বয়কটের হুমকি দেওয়া হয়েছিল তাই এই উন্মাদনা। কিন্তু একটা কথা মনে রাখতে হবে শাহরুখকে বয়কট করা যায় না। শাহরুখ, শাহরুখই। বলিউডে ওর জায়গা কেউ নিতে পারবে না। পাঠানের নিউ লুকেও ফিদা অনেকে।

জানা যাচ্ছে বিকেলের দিকেই পাঠানের ব্যবসা হয়েছে আনুমানিক ৫০-৫৫ কোটি। তবে রাত বাকী আছে। ভোর সাড়ে ছটা থেকে সাড়ে বারোটা পর্যন্ত চলবে শো। তাই প্রথম দিনের আয় কোথায় গিয়ে দাঁড়ায় সেটাই দেখার।

(Zee 24 Ghanta App দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App) 

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।