কেন ৭ মাসে বন্ধ হল সাহেবের চিঠি? চ্যানেলের সিদ্ধান্তে মুখ খুললেন দেবচন্দ্রিমা

Advertisement

বছরকয়েক ধরেই বাংলা সিরিয়ালের ভাগ্য বেশ খারাপ চলছে। খুব শর্ট নোটিসে বন্ধ হচ্ছে একাধিক। চলছেও খুব কম, মাত্র ৭-৮ মাস হতে না হতেই সরিয়ে জায়গা নিচ্ছে নতুন ধারাবাহিক। যা হয়েছে স্টার জলসার সাহেবের চিঠি-র ক্ষেত্রেও। ২০২২ সালের জুন মাসে শুরু হওয়ার পর মাত্র ২১০ এপিসোড দিয়ে ৭ মাসে বন্ধ হয়ে গিয়েছে ধারাবাহিক। সম্প্রতি এই নিয়ে মুখ খুললেন সিরিয়ালের নায়িকা। 

সিরিয়ালে মুখ্য চরিত্রে ছিলেন দেবচন্দ্রিমা সিংহ রায় ও প্রতীক সেন। দুজনেরই শেষ ধারাবাহিক ছিল সুপার হিট। প্রতীক কাজ করেছিলেন এর আগে মোহর-এ। আর দেবচন্দ্রিমা কাজ করেছিলেন সাহেবের চিঠি-তে। আরও পড়ুন: ‘ডিভোর্সটা কতদূর এগোল?’, সব বিতর্কিত প্রশ্নের জবাব দিলেন খোদ নচিকেতা

কেন এভাবে এত জলদি বন্ধ হচ্ছে ধারাবাহিক? শুধুই কি টিআরপি কমে যাওয়া এর কারণ? ছোট পরদার ‘চিঠি’ এই নিয়ে বললেন, ‘এই সিদ্ধান্তের সবটাই চ্যানেল কর্তৃপক্ষের হাতে। আমার কোনও মন্তব্য করার অর্থই হয় না। তাঁরা মনে করেছেন এটাই হয়তো সিরিয়াল বন্ধ করে দেওয়ার সঠিক সময়। তাই এমনটা করেছেন। আমার মন্তব্য করে কোনও লাভ নেই।’

আজকাল কী করছেন দেবচন্দ্রিমা? নতুন কোনও ধারাবাহিকের প্রস্তুতি চলছে নাকি? অভিনেত্রী জবাবে জানিয়েছেন, ‘এখন শুধু বিশ্রাম আর বিশ্রাম। চেষ্টা করছি পুরো সময়টা পরিবারকে দেওয়ার।’ সঙ্গে এরপর সিরিয়াল না সিরিজে কাজ করতে চান সেই প্রসঙ্গে জানান, কোন দিকে মন দেবেন তা এখনও ঠিক করে উঠতে পারেননি। আরও পড়ুন: ‘বেশি টাকা আয়’ নিয়ে কঙ্গনার কটাক্ষ বলিউডকে, শাহরুখের ‘পাঠান’-ই লক্ষ্য নয় তো?

দিনকয়েক আগেই গোয়া থেকে ঘুরে এসেছেন দেবচন্দ্রিমা। নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে উড়ে গিয়েছিলেন সমুদ্রপাড়ে। দেবচন্দ্রিমার বিকিনি লুক দেখে সোশ্যাল মিডিয়ায় দেখে চোখ কপালে উঠেছিল নেট-নাগরিকদের। কখনও লাল তো কখনও নিয়ন গ্রিন, বিচ ওয়্যারে যাকে বলে আগুন লাগিয়েছিলেন দেবচন্দ্রিমা। 

বলে রাখা ভালো আরিয়ান মাদক মামলা’-খ্যাত সেই কোর্ডেলিয়া ক্রুজে চেপে মুম্বই থেকে গোয়া গিয়েছিলেন অভিনেত্রী। চোখ ধাঁধানো ছবিও দিয়েছিলেন সোশ্যালে। সঙ্গে ‘ট্রাভেল’কে তাঁর জীবনের খুশির চাবিকাঠি হিসেবে উল্লেখ করতেও ভোলেননি। 

 

এই খবর আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।