Rampurhat Medical College and Hospital: সরকারি হাসপাতালে মায়ের সামনেই চুরি শিশু, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অভিযোগ

Advertisement

সরকারি হাসপাতালে মায়ের সামনে থেকেই চুরি হয়ে গেল সদ্যোজাত। এমনই অভিযোগ উঠেছে বীরভূমের রামপুরহাট মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের বিরুদ্ধে। ঘটনায় হাসপাতালে সুপার, চিকিৎসক, নার্স সহ একাধিক ব্যক্তির বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ জানিয়েছে সদ্যোজাতের পরিবার। এই ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। যদিও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এবিষয়ে কোনও মন্তব্য করেনি। তবে এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, রামপুরহাট মেডিক্যাল কলেজ থেকে শিশু চুরির ঘটনা ঘটেছে গত ২১ ডিসেম্বর। ৩ দিনের শিশুকে প্রসূতি বিভাগ থেকে চুরি করা হয়েছে বলে অভিযোগ। এই ঘটনার পরেই থানায় অভিযোগ জানিয়েছিলেন সদ্যোজাতের বাবা রাজিবুল শেখ। ঘটনার পরে পুলিশ এবং হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ চুরি যাওয়া শিশু উদ্ধারের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। কিন্তু একমাস কেটে যাওয়ার পরেও শিশুর কোনও খোঁজ পাওয়া যায়নি বলে অভিযোগ সদ্যোজাতের পরিবারের। এরপর ওই হাসপাতালের আধিকারিক কর্মীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন সদ্যোজাতের বাবা।

শিশুর মায়ের বক্তব্য, সিজার করে তাঁকে বাচ্চা হয়েছিল। এরপর তাঁকে হাসপাতালের বারান্দায় রাখা হয়েছিল। তার আগে তিনি যে বেডে ছিলেন সেই বেডে অন্য এক মহিলাকে রাখা হয়। সেই রাতেই অপরিচিত এক মহিলা এসে তাঁর বাচ্চা কোলে নিয়ে কিছু না জানিয়েই চলে যায়। তারপর ওই মহিলা আর ফিরে আসেনি। তাঁর অভিযোগ, ওই মহিলাকে তিনি চিনতেন না। বেশ কয়েকদিন হাসপাতালে থাকার পর ওই মহিলাকে তিনি দেখেননি। এখন তাঁরা চাইছেন তাঁদের শিশুকে ফিরিয়ে দেওয়া হোক। যদিও পুলিশ ঘটনার তদন্ত চালাচ্ছে বলে জানিয়েছে। এই ঘটনায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের পাশাপাশি কর্মীদের যোগসাজস রয়েছে বলেই অভিযোগ করেছে সদ্যোজাতের পরিবার। তবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সেই অভিযোগ মানতে নারাজ। হাসপাতালে থাকা সিসিটিভি থেকে কোনও তথ্য পাওয়া গেল না তা নিয়েও তাঁরা প্রশ্ন তুলেছেন।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।