শুভেন্দু অধিকারী আইএসএফ বিধায়ক নওশাদ সিদ্দিকির প্রশংসা করতে গিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তীব্র নিশানা করেছেন, Targeting Mamata Banerjee Opposition leader Suvendu Adhikari agains praises ISF MLA Nawsad Siddique

Advertisement

Advertisement

এসএসসি কেন অবৈধভাবে নিয়োগ হওয়াদের সরাচ্ছে না

ডায়মন্ডহারবারে সাংবাদিকরা বিরোধী দলনেতাকে প্রশ্ন করেন, এসএসসি কেন অবৈধভাবে নিয়োগ হওয়াদের সরাচ্ছে না। শুভেন্দু অধিকারী বলেন, রাজনৈতিক কারণেই তা করছে না এসএসসি। লতায়-পাতায় এসএসসিকে নিয়ন্ত্রণ করেন পিসি-ভাইপো। যাঁরা অবৈধভাবে চাকরি পেয়েছেন, তাঁদের কেউ টাকা দিয়ে, না হলে তাঁরা মন্ত্রীদের আত্মীয়। সেই কারণেই সরানো হচ্ছে না বলে মন্তব্য করেন বিরোধী দলনেতা।

 ডায়মন্ডহারবারে পাশে থাকবেন

ডায়মন্ডহারবারে পাশে থাকবেন

২০১৮-র পঞ্চায়েত এবং ২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচনের পরে ডায়মন্ডহারবারে সব থেকে বেশি অত্যাচার হয়েছিল বলে এদিন অভিযোগ করেন বিরোধী দলনেতা। এবার পরিস্থিতি বিচার পরে পঞ্চায়েতে মনোনয়ন জমা দেওয়ার সময় পুরো বিষয়টির ওপরে নজর রাখা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। সাধারণ মানুষ বিশেষ করে বিজেপি কর্মীদের স্বার্থেই তা করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

 নওশাদের প্রশংসায় শুভেন্দু

নওশাদের প্রশংসায় শুভেন্দু

এদিন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী আইএসএফ বিধায়ক নওশাদ সিদ্দিকির প্রশংসা করেন। তিনি বলেন, মুসলিমদের কাছে পবিত্র হল ফুরফুরা। সেই বাড়ির এক সন্তান হলেন নওশাদ। বিরোধী দলনেতা বলেন, রাজনৈতিক দিক থেকে ভিন্ন মেরুর হলেও, চোর না ডাকাত যে তাঁকে এইভাবে পুলিশ হেফাজতে রাখতে হবে। সম্মাননীয় পরিবারের নির্বাচিত জন প্রতিনিধিকে যেভাবে আটকে রাখা হয়েছে, তা চোর-ডাকাতের ক্ষেত্রে হয় না, বলেছেন তিনি। শুভেন্দু অধিকারী প্রশ্ন করেছেন আরারুল ইসলাম বাইরে কেন?

মুসলিমরা ভোট দিয়ে ক্ষমতায় এনেছেন, তাঁদের ওপরেই অত্যাচার

মুসলিমরা ভোট দিয়ে ক্ষমতায় এনেছেন, তাঁদের ওপরেই অত্যাচার

এদিন বিরোধী দলনেতা বলেন, রাজ্যের মুসলিমরা ২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচনে দল বেধে ভোট দিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ক্ষমতায় এনেছেন। তিনি বলেন, মুসলিমদের ভোটে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আজ মুখ্যমন্ত্রী। অন্যদিকে সংখ্যাগরিষ্ঠ হিন্দুরা বিজেপিকে ভোট দিয়েছে বলে দাবি করেন তিনি। এব্যাপারে তিনি নিজের নন্দীগ্রা বিধানসভার কথা উল্লেখ করে বলেন, পুরোপুরি হিন্দু ভোটে তাঁর জয় হয়েছে। তাঁর এলাকায় ৬৫ হাজার মুসলিম ভোটের মধ্যে ৬৪ হাজার পেয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কয়েকশো পেয়েছিলেন মীনাক্ষী মুখোপাধ্যায়। আর তিনি হয়ত একশো-দুশো পেয়েছিলেন। মুসলিমদের ভোট নিয়ে তাঁদের ওপরেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অত্যাচার করছেন বলে অভিযোগ করেন বিরোধী দলনেতা। এঁদেরকেই এনআরসি আর বিজেপির জুজু দেখানো হচ্ছে, বলেন তিনি।

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।