১৫ বছরেও পানীয় জলের সমস্যার সমাধান হয়নি, ফের বিক্ষোভের মুখে শতাব্দী

Advertisement

দিদির দূত কর্মসূচিতে বেরিয়ে প্রায় রোজই বিক্ষোভের মুখে পড়তে হচ্ছে বীরভূমের সাংসদ শতাব্দী রায়কে। রবিবারও তার ব্যতিক্রম হল না। এদিন মহম্মদবাজারের ফুল্লাইপুরে গ্রামবাসীদের বিক্ষোভের মুখে পড়েন তিন বারের সাংসদ। পানীয় জলের দাবিতে তাঁর গাড়ি আটকে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন স্থানীয়রা। সাংসদের যদিও দাবি সব বিজেপির চক্রান্ত।

রবিবার সকালে ফের দিদির দূত কর্মসূচিতে বেরোন শতাব্দী। বিশাল কনভয় নিয়ে গ্রামে গ্রামে ঘুরতে থাকেন তিনি। কনভয় ফুল্লাইপুরে পৌঁছতেই ঘিরে ধরেন গ্রামবাসীরা। তাঁদের অভিযোগ, ১৫ বছরেও গ্রামে পানীয় জলের সমস্যার সমাধান হয়নি। গ্রামে পানীয় জলের কোনও টিউব ওয়েল নেই। পঞ্চায়েত সদস্যকে জানালে তিনি জানিয়ে দিয়েছেন কল হবে না। ফলে পানীয় জলের জন্য পুকুরের ওপর ভরসা করতে হয় গ্রামবাসীদের। শীতের শেষে সেই পুকুরও শুকিয়ে এসেছে। ফলে না আছে পানীয় জল, না আছে স্নানের জল।

এছাড়া আবাসের বাড়ি বণ্টনেও ব্যাপক অনিময় হয়েছেন বলে অভিযোগ করেন গ্রামবাসীরা। এলাকার শিবমন্দির নির্মাণের কাজ অসম্পূর্ণ রয়েছে বলে দাবি করেন তারা। গ্রামবাসীরা যখন সাংসদকে এসব অভিযোগ করছেন তখন বাধা দেন তৃণমূল কর্মীদের একাংশ। যা নিয়ে উত্তেজনা ছড়ায়।

পরিস্থিতি শান্ত হওয়ার পর গাড়ি থেকে নেমে গ্রামবাসীদের সঙ্গে কথা বলেন সাংসদ। পানীয় জলের সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দেন। সঙ্গে মন্দির তৈরির প্রতিশ্রুতি দেন তিনি। এর পর সাংবাদিকদের তিনি বলেন, দেখছেন না বিজেপির পতাকা উড়ছে? বিজেপির শিখিয়ে দেওয়া বুলি আউড়াচ্ছিলেন অনেকে। আমরা মানুষের অভিযোগ শুনে তার সমাধানের চেষ্টা করব।

 

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।