এখনও ফুরিয়ে যাননি, ILT20-তে ধ্বংসাত্মক ইনিংস খেলে বোঝালেন পোলার্ড, একের পর এক ক্যাচ ফেলে ম্যাচ হারল MI: ভিডিয়ো

Advertisement

আইপিএল নিলামের আগে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স পোলার্ডকে ধরে রাখেনি। আসলে ফ্র্যাঞ্চাইজি তাঁকে ক্রিকেটার হিসেবে রিটেন করবে না জেনে পোলার্ড নিজেই আইপিএল কেরিয়ারে ইতি টানেন। বদলে কোচিং স্টাফ হিসেবে থেকে যান মুম্বই শিবিরে।

যদিও ক্যারিবিয়ান তারকা স্পষ্ট ইঙ্গিত দেন যে, আরও কিছুদিন আইপিএল খেলার ইচ্ছা ছিল তাঁর। এখনও মাঠে নামার জন্য ছটফট করেন তিনি। পোলার্ডের রানের ক্ষিদে যে এখনও মরে যায়নি, এমআই ফ্র্যাঞ্চাইজি সেটা টের পেল আমিরশাহির নতুন টি-২০ লিগে। আইএল টি-২০’তে দুবাই ক্যাপিটালসের বিরুদ্ধে ব্যাট হাতে যে রকম তাণ্ডব চালালেন পোলার্ড, তাতে আইপিএলে তাঁকে মাঠে নামানো যাবে না ভেবে আফসোস করতে পারে মুম্বই শিবির।

ক্যাপিটালসের বিরুদ্ধে অধিনায়কোচিত দৃঢ়তায় ৮৬ রানের ঝকঝকে ইনিংস খেলেন কায়রন। তিনি মাত্র ২৭ বলে ব্যক্তিগত হাফ-সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন। শেষমেষ ৩৮ বলের ধ্বংসাত্মক ইনিংসে পোলার্ড ৮টি চার ও ৬টি ছক্কা মারেন।

যদিও এমন দুর্দান্ত ইনিংস খেলেও এমআই এমিরেটসকে ম্যাচ জেতাতে পারেননি কায়রন। ক্যাপিটালসের ৩ উইকেটে ২২২ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে মুম্বই ৫ উইকেটে ২০৬ রানে আটকে যায়। হাই-স্কোরিং ম্যাচে ১৬ রানে হারতে এমআই-কে।

আরও পড়ুন:- INDw vs SLw U19 WC: শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে বিরাট জয়ে লিগ টেবিলের এক নম্বরে ভারত

এমআই-এর হারের জন্য অবশ্য তাদের খারাপ ফিল্ডিংকে দায়ি করা যায়। কেননা ম্যাচে একাধিক সহজ ক্যাচ ছাড়েন এমিরেটসের ফিল্ডাররা। অন্তত তিনটি ক্ষেত্রে জলভাত ক্যাচ ধরতে ব্যর্থ হন ইমরান তাহির, ট্রেন্ট বোল্টরা। ফিল্ডারদের দিক থেকে এমআই-এর বোলাররা যথাযোগ্য সহায়তা পেলে দুবাইকে তুলনায় কম রানে আটকাতে পারত এমিরেটস। যদিও ম্যাচে একটি সহজ ক্যাচ ছাড়েন ক্যাপিটালসের দাসুন শানাকাও।

দুবাই ক্যাপিটালসের হয়ে দাপুটে ইনিংস খেলেন রোভম্যান পাওয়েল ও জো রুট। নিশ্চিত শতরান মাঠে ফেলে আসেন ক্যাপ্টেন পাওয়েল। তিনি ৪টি চার ও ১০টি ছক্কার সাহায্যে ৪১ বলে ৯৭ রান করে আউট হন। পাওয়েল মাত্র ২২ বলে ব্যক্তিগত হাফ-সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন।

আরও পড়ুন:- BBL: ৪১৪ রানের T20 ম্য়াচে ভুলে যান চার-ছক্কা, ২টি অবিশ্বাস্য ক্যাচ দেখলে ফিকে মনে হবে ব্য়াটিং তাণ্ডব- ভিডিয়ো

৩৪ বলে হাফ-সেঞ্চুরি করা জো রুট শেষমেশ ৮টি চার ও ৩টি ছক্কার সাহায্যে ৫৪ বলে ৮২ রান করে মাঠ ছাড়েন। রবিন উথাপ্পা ২৩ বলে ২৬ রান করে আউট হন।

পোলার্ডের হাফ-সেঞ্চুরি ছাড়া মুম্বইয়ের হয়ে ফ্লেচার ৩৪ বলে ৩৫ ও নাজিবউল্লাহ জাদরান ৯ বলে ৩০ রানের যোগদান রাখেন। খাতা খুলতে পারেননি নিকোলাস পুরান।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।