WC-এ ভারত ফেভারিট, তবে অনেক মাঠে খেলা রোহিতদের প্রতিবন্ধকতা, যুক্তি দিলেন অশ্বিন

Advertisement

মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বে টিম ইন্ডিয়া ২০১১ সালে ঘরের মাঠে ওয়ানডে বিশ্বকাপ ট্রফি জিতেছিল। ১৯৮৩-র পর প্রথম বার। ভারতই প্রথম দল, যারা ঘরের মাঠে বিশ্বজয়ের ট্রেন্ড সেট করে। টিম ইন্ডিয়ার পর ২০৫ সালে অস্ট্রেলিয়া এবং ২০১৯ সালে ইংল্যান্ডও ঘরের মাঠে বিশ্বকাপ জেতে। অভিজ্ঞ ভারতীয় স্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন অবশ্য এতে আলাদা করে কোনও রকেট সায়েন্স দেখেন না। তবে রোহিত শর্মার নেতৃত্বাধীন দলকে ২০২৩ সালের বিশ্বকাপ জয়ের বিষয়ে ফেভারিট মনে করছেন অশ্বিন।

আরও পড়ুন: পরপর দুই ম্যাচে ছক্কা হাঁকিয়ে ৫৬ বলেই সেঞ্চুরি, BBL-এ চলছে স্মিথ তাণ্ডব

ভারতীয় স্পিনার অশ্বিন ২০২৩ বিশ্বকাপ সম্পর্কে ভবিষ্যদ্বাণী করেছেন এবং আশা প্রকাশ করেছেন যে, ভারতীয় দল এ বার বিশ্বকাপ জিততে পারে। অশ্বিন তাঁর ইউটিউব চ্যানেলে বিশ্বকাপ নিয়ে মতামত দিয়েছেন। তাঁর দাবি, ‘২০১৯ বিশ্বকাপের পর থেকে ভারত ঘরের মাঠে দুর্দান্ত খেলছে। ভারত সফরে আসা সব দলের বিরুদ্ধেই জিতেছে টিম ইন্ডিয়া। সেটা ওয়েস্ট ইন্ডিজ, অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা এবং শ্রীলঙ্কার মতো দলই হোক না কেন, এখন নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধেও ভারত ভালো খেলছে। ২০১৯ বিশ্বকাপের পর ভারতের হোম রেকর্ড হল ১৪-৪, যা ৭০-৮০ শতাংশ ফলাফল। এই ১৮টি ওডিআইয়ের মধ্যে ১৪টি ম্যাচ বিভিন্ন ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত হয়েছে।’

টিম ইন্ডিয়া তাদের ওয়ানডে বিশ্বকাপের প্রস্তুতি ঠিকই রেখেছে। গত মাসে বাংলাদেশকে হারানোর পর, তারা ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কাকে হোয়াইটওয়াশ করেছে এবং এখন ২০১৯ বিশ্বকাপের রানার্সআপ নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তিন ম্যাচের প্রতিযোগিতায় ২-০ সিরিজ পকেটে পুড়ে ফেলেছে। শনিবার তারা কিউয়িদের একেবারে ল্যাজেগোবরে করে ১৭৯ বল বাকি থাকতে ৮ উইকেটে জিতেছে।

আরও পড়ুন: ভিডিয়ো- যুজির ভবিষ্যত নিয়ে বড় মন্তব্য করলেন রোহিত, হতবাক তারকা স্পিনার

ভারতীয় স্পিনার আরও বলেছেন, ‘এ বার বিশ্বকাপ ভারতে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে, টিম ইন্ডিয়া তাতে অনেক সুবিধা পেতে চলেছে। ২০১৯-এর শুরু থেকে ভারত ঘরের মাঠে দুর্দান্ত ক্রিকেট খেলেছে, যে কারণে আশা করা হচ্ছে যে, ভারতীয় দলের আবারও বিশ্বকাপ জয়ের সুবর্ণ সুযোগ থাকবে। ২০১১ সাল থেকে অনুষ্ঠিত সব বিশ্বকাপেই আয়োজর দেশ দল বিজয়ী হয়েছে। আপনি দেখুন, ২০১৫ সালে অস্ট্রেলিয়া এবং ২০১৯ সালে ইংল্যান্ড জিতেছে। এতে কোনও রকেট সায়েন্স নেই। ঘরের মাঠের সুবিধা পাবেন। আপনি আপনার শর্তগুলি আরও ভালো ভাবে বোঝেন এবং জানেন। যাইহোক, আপনি যখনই ভারতের অন্য ভেন্যুতে খেলবেন, উইকেট প্রতিবারই আলাদা হবে।’

অশ্বিন ঘরের মাঠে ভারতের চারটি সমস্যার কথাও বলেছেন। তিনি বলেছেন, ‘আমি যে চারটি হারের কথা বলেছি, সেগুলি চেন্নাই, মুম্বই, পুণে এবং লখনউতে হয়েছিল। এবং সবই সন্ধ্যায় হয়েছিল। মূলত, ভারত প্রথমে ব্যাট করে একটি স্কোর পোস্ট করেছে যা তারা ধরে রাখতে পারেনি।’

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।