Kuntal Ghosh Nabbed by ED: দীর্ঘ ২৩ ঘণ্টা তল্লাশির পর ইডির জালে কুন্তল, চিনার পার্কের ফ্ল্যাট থেকে মিলল কী?

Advertisement

শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি কাণ্ডে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের হাতে আটক তৃণমূল যুব নেতা কুন্তল ঘোষ। গতকালই তাঁর বাড়িতে তল্লাশি অভিযান শুরু করেছিলেন ইডি কর্তারা। আর আজ তাঁকে হেফাজতে নেওয়ার তোড়জোড় শুরু করেন তদন্তকারীরা। গতকাল সকাল সকাল হুগলির যুবনেতা কুন্তল ঘোষের ফ্ল্যাটে হানা দিয়েছিলেন ইডি কর্তারা। শুক্রবার সকাল থেকে ইডি আধিকারিকরা দু’টি দলে ভাগ হয়ে কুন্তলের দু’টি ফ্ল্যাটে তল্লাশি চালায় বলে জানা গিয়েছে। প্রায় ২৩ ঘন্টা তল্লাশি চালানোর পর আটক করা হয়েছে কুন্তলকে। তাঁর দুই ফ্ল্যাট থেকে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ নথি উদ্ধার হয়েছে বলে দাবি করেছে ইডি। জানা গিয়েছে, তদন্তে অসহযোগিতার অভিযোগে যুব তৃণমূল নেতাকে আটক করেছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট।

জানা গিয়েছে, নিউটাউনের চিনার পার্ক এলাকায় বিলাসবহুল আবাসনে জোড়া ফ্ল্যাট রয়েছে তৃণমূল যুবনেতার নামে। সেই ফ্ল্যাটগুলিতেই চলে জোর তল্লাশি। এর আগে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের অপসারিত সভাপতি মানিক ভট্টাচার্যের ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত তাপস মণ্ডল অভিযোগ করেছিলেন, শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন কুন্তল। ৩২৫ জন শিক্ষক পদপ্রার্থীর কাছ থেকে ৩ কোটি ২৫ লক্ষ টাকা নিয়েছেন কুন্তল। দুর্নীতির সঙ্গে যুক্ত মোট ১৯ কোটি টাকা ঢুকেছে কুন্তলের পকেটে। কোন এজেন্টদের মাধ্য়মে কুন্তল টাকা নিতেন, সেই তথ্যও সামনে এনেছেন তাপস মণ্ডল। এই নিয়ে জেরা করতে এর আগে সিবিআই তলব করেছিল কুন্তলকে। বুধবার বিকেল ৩টের পর নিজাম প্যালেসে হাজিরা দিয়েছিলেন কুন্তল। সেদিন বেশ কিছু নথি দিয়ে তিনি চলে যান। ফের বৃহস্পতিবার তাঁকে ডাকে সিবিআই। আর আজ গতকাল তাঁর ফ্ল্যাটে হানা দিয়েছিল ইডি।

এদিকে শুক্রবার কুন্তলের পাশাপাশি ১২ ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে তল্লাশি চালানো হয়েছিল তৃণমূল নেতা শান্তনু বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়িতে। ইডি সূত্রে খবর, সেখান থেকেও বেশ কিছু নথি সংগ্রহ করা হয়েছে। জানা যাচ্ছে, আগামী সপ্তাহে শান্তনুকে কলকাতায় সিবিআইয়ের দফতর সিজিও কমপ্লেক্সে ডাকা হতে পারে। প্রসঙ্গত, হুগলি জেলা পরিষদের স্বাস্থ্য কর্মাধ্যক্ষ এবং জেলা তৃণমূলের প্রাক্তন যুব সভাপতি হলেন এই শান্তনু। শান্তনুর বাড়ি বলাগড়ের বারুইপাড়া গ্রামে। এদিকে শান্তনু জানান, তিনি কুন্তলকে চেনেন। তাঁরা দু’জনে ‘একসঙ্গে দল করেন’। অবশ্য শান্তনুর বক্তব্য, ‘কুন্তলকে চিনি মানে এই নয় যে, কিছু ঘটে থাকলে তার দায় আমার। আমি কোনও দোষ করিনি। কোনও দুর্নীতির সঙ্গে যুক্ত নই।’

 

 

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।