Conspiracy Theory behind DCW Chief Drag Case: স্বাতী নিগ্রহকাণ্ডে বিস্ফোরক BJP সাংসদ, ‘থামানো যাবে না’, বললেন DCW প্রধান

Advertisement

দিল্লি মহিলা কমিশনের প্রধান স্বাতী মালিওয়াল হেনস্থা কাণ্ডে বিস্ফোরক অভিযোগ বিজেপি সাংসদ মনোজ তিওয়ারির। বুধবার গভীর রাতে স্বাতী মালিওয়ালকে গাড়িতে টেনে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। এই আবহে মনোজ তিওয়ারির অভিযোগ, ধৃত হরিশ চন্দ্র আপ বিধায়ক প্রকাশ জারওয়ালের ঘনিষ্ঠ। মনোজ তিওয়ারি এই ঘটনা প্রসঙ্গে বলেন, ‘আমরা সবাই জানি ডিসিডব্লিউ প্রধান স্বাতী মালিওয়ালের সঙ্গে কী হয়েছে। আমরা ঘটনার তদন্ত করে যে তথ্য পেয়েছি, তার সঙ্গে দিল্লি মহিলা কমিশনের প্রধানের দাবি মিলছে না। স্বাতীর দাবি, তাঁকে ১০-১৫ মিটার দূরত্ব পর্যন্ত টেনে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। কিন্তু সেটা হয়নি। গাড়ির উল্টো দিকে যাওয়ার কী দরকার ছিল স্বাতী মালিওয়ালের? ভিডিয়োতে স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে, তিনি গাড়ির ভিতরে হাত গলিয়েছিলেন। কোনও বেসরকারি সংবাদ চ্যানেলের সাহায্য নিয়ে ঘটনাটি আপাদমস্তক সাজানো হয়েছে। এ ধরনের নাটক করার কী দরকার?’

এদিকে স্বাতীর নিগ্রহের ঘটনার ভিডিয়ো ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়েছে। ভিডিয়োয় দেখা গিয়েছে, গাড়ির জানলার কাচে আটকে গিয়েছে স্বাতীর হাত। সেভাবেই তাকে ১০-১৫ মিটার টেনে হিঁচড়ে নিয়ে যায় গাড়িটি। পুলিশের কাছে স্বাতীর অভিযোগ, বৃহস্পতিবার রাতে ব্যস্ত সময়ে তিনি অল ইন্ডিয়া অফ মেডিক্যাল সায়েন্সেস-এর বাইরে দাঁড়িয়ে ছিলেন। সেই সময় এই ঘটনা ঘটে। একটি গাড়ি তাঁকে কয়েক মিটার টেনে নিয়ে যায়। স্বাতীর দেওয়া বিবৃতি অনুযায়ী, ঘটনার সময় অভিযুক্ত হরিশ চন্দ্র মদ্যপ অবস্থায় ছিল। তাঁকে দেখে অভিযুক্ত অশালীন আচরণ করতে থাকে। এমনকী স্বতীকে গাড়িতে বসানোর জন্য জোর খাটায়। স্বাতী এর বিরোধিতা করলে হরিশ সেখান থেকে চলে যায়। তবে ফের সে সেখানে এসে পৌঁছায়। ফের অশালীন আচরণ করে হরিশ। তখন গাড়িতে বসে থাকা হরিশের কাছে গিয়ে প্রতিবাদ জানান স্বাতী। সেই সময় চালক জানলার কাচটি তুলে দেন এবং স্বাতীর হাত তাতে আটকে যায়৷ ওই অবস্থায় গাড়ি চালিয়ে স্বাতী মালিওয়ালকে ১০-১৫ মিটার দূরত্ব পর্যন্ত টেনে নিয়ে যায় অভিযুক্ত।

দিল্লি মহিলা কমিশনের প্রধান জানান, দিল্লিতে মহিলাদের নিরাপত্তার বিষয়টি খতিয়ে দেখতেই তিনি তাঁর টিমের সঙ্গে এইস-এর গেট নং ২-এর বাইরে ছিলেন। তখনই ঘটনাটি ঘটে। সেই ভয়ঙ্কর ঘটনার বিবরণ দিতে গিয়ে দিল্লি মহিলা কমিশনের প্রধান টুইটারে বলেন, ‘গভীর রাতে দিল্লিতে মহিলাদের সুরক্ষা কতটা, তা খতিয়ে দেখছিলাম। সেইসময় এক মদ্যপ গাড়িচালক আমার সঙ্গে অশালীন আচরণ করে। আমি যখন ওকে ফেলি, তখন কাঁচ তুলে আমার বন্ধ করে আমায় টেনে নিয়ে যায়। ভগবান আমায় প্রাণ বাঁচিয়ে দিয়েছেন। দিল্লিতে যদি মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন সুরক্ষিত না থাকেন, তাহলে বাকি অবস্থা বুঝে নিন।’ তবে স্বাতীর সঙ্গে ঘটে যাওয়া এই ঘটনার সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিজেপি সাংসদ। এই আবহে মনোজ তিওয়ারিকে পালটা জবাব দিয়েছেন স্বাতী। এক টুইট বার্তায় স্বাতী লেখেন, ‘যারা আমার সম্পর্কে নোংরা মিথ্যা কথা বলে আমাকে ভয় দেখাচ্ছেন, তাদের বলি – এই ছোট জীবনে মাথায় কাফন বেঁধে অনেক বড় বড় কাজ করেছি। আমার ওপর অনেক হামলা হয়েছে, কিন্তু আমি থামিনি। প্রতিটা নৃশংসতার সাথেই আমার ভেতরের আগুন আরও প্রবল হয়ে উঠেছে। কেউ আমার কণ্ঠকে দমিয়ে রাখতে পারবে না। যতদিন বেঁচে আছি লড়াই চালিয়ে যাব!’

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।