IND vs NZ: ভারতের নাভিশ্বাস তুলেও জেতাতে পারেননি, তবে ধোনির রেকর্ড ভেঙে দিয়েছেন ব্রেসওয়েল

Advertisement

ভারতের দেওয়া ৩৫০ রান তাড়া করতে নেমে নিউজিল্যান্ডের ব্যাটিং অর্ডারে কাঁপুনি ধরিয়ে দেন ভারতীয় বোলাররা। একটা সময়ে মনে হচ্ছিল, শুভমন গিলের করা ২০৮ রানও করতে পারবে না নিউজিল্যান্ড। ১৩১ রানে ৬ উইকেট হারিয়ে ধুঁকছিল কিউয়ি ব্যাটিং। কিন্তু সেখান থেকে দলকে টেনে তোলেন মাইকেল ব্রেসওয়েল এবং মিচেল স্যান্টনার। তাদের ১৬২ রানের পার্টনারশিপে বদলে যায় ম্যাচের রং। স্যান্টনার আউট হলেও লড়াই চালিয়ে যান ব্রেসওয়েল। সাত নম্বরে ব্যাট করতে নেমে তিনি ৭৮ বলে ১৪০ রানের ধুন্ধুমার ইনিংস খেলেন। কিন্তু ব্রেসওয়েল শেষ রক্ষা করতে না পারেননি। দলকে জেতাতে না পারলেও, ৩১ বছরের কিউয়ি তারকা ভেঙে দিয়েছেন মহেন্দ্র সিং ধোনির এক অনন্য নজির।

আরও পড়ুন: ব্রেসওয়েল যেভাবে ব্যাটিং করছিল, ভয় পেয়ে গিয়েছিলাম- আতঙ্ক কাটছে না রোহিতের

নিউজিল্যান্ডের মাইকেল ব্রেসওয়েল সাত নম্বর ব্যাট করতে নেমে ভারতের মাটিতে সর্বোচ্চ ওডিআই স্কোরের রেকর্ড গড়েছেন। হায়দরাবাদে ভারতের বিরুদ্ধে প্রথম ওয়ানডেতে ১২টি চার এবং ১০টি ছক্কার হাত ধরে তাঁর করা ১৪০ রান এখন ভারতের মাটিতে সাতে ব্যাট করতে নামা ব্যাটারের করা সর্বোচ্চ স্কোর। এর আগে এই রেকর্ডের মালিক ছিলেন ধোনি। তিনি ২০০৭ সালে ১০ জুন আফ্রিকা একাদশের বিপক্ষে এশিয়া একাদশের হয়ে অপরাজিত ১৩৯ রান (৯৭) রান করেছিলেন। সেই রেকর্ড বুধবার ভেঙে দেন ব্রেসওয়েল।

টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ভারতের করা ৩৪৯ রানের মধ্যে শুভমন গিল একাই করেন ২০৮ রান। ভারতের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ স্কোর রোহিত শর্মার। তিনি করেন ৩৪। ৩১ করেন সূর্যকুমার যাদব। ২৮ করেন হার্দিক পাণ্ডিয়া। এ ছাড়াও ওয়াশিংটন সুন্দর দুই অঙ্কের ঘরে পৌঁছান। তিনি করেন ১২। বাকিদের অবস্থা তথৈবচ। শুধুমাত্র শুভমনের হাত ধরেই পাহাড় রানের পাহাড় গড়ে।

আরও পড়ুন: ৪৭তম ওভারের আগে দ্বিশতরানের কথা ভাবিনি- অকপট শুভমন গিল

রান করতে নেমে শুরুতেই ডেভন কনওয়েকে (১০) হারিয়ে চাপে পড়ে যায় নিউজিল্যান্ড। কনওয়েকে ফেরান মহম্মদ সিরাজ। ফিন অ্যালেন ৪০ রানের ইনিংস খেলেন বটে, তবে তিনি আউট হতেই পরপর উইকেট হারাতে থাকে কিউয়ি ব্রিগেড। মিডল অর্ডারের কেউই তেমন রান পাননি। হেনরি নিকোলস (১৮), ডারিল মিচেল (৯), টম লাথাম (২৪), গ্লেন ফিলিপ্স (১১) সকলেই অল্প রানে সাজঘরে ফেরেন। এমন পরিস্থিতিতে কিউয়ি দলের জয় যখন কার্যত অসম্ভব মনে হচ্ছিল, তখনই ব্রেসওয়ল পাল্টা লড়াই শুরু করেন। মিচেল স্যান্টনারকে সঙ্গে নিয়ে ১৬২ রানের পার্টনারশিপ গড়েন ব্রেসওয়েল।

স্যান্টনার ৪৫ বলে ৫৭ রানে আউট হয়ে সাজঘরে ফিরলেও, ব্রেসওয়েল কিন্তু লড়াই থামাননি। একা হাতেই নিউজিল্যান্ডকে জয়ের দিকে এগিয়ে নিয়ে যান তিনি। তবে শেষমেশ ম্যাচের শেষ ওভারের দ্বিতীয় বলে ১৪০ রানে শার্দুল ঠাকুর তাঁকে সাজঘরে ফেরান। ১২ রানে ভারত ম্যাচটি জিতলেও, ব্রেসওয়েলের এই লড়াই ভুলতে পারবেন না রোহিত শর্মারা।

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।