Abhijit Vinayak Banerje: তদন্ত চলছে, কিছু বলার নেই, নিয়োগ দুর্নীতিতে বিচারপতির প্রশ্ন প্রসঙ্গে নোবেলজয়ী

Advertisement

রাজ্যের নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে বাংলার দুই নোবেলজয়ীর কী পর্যবেক্ষণ, দু’জনের নাম করেই জানতে চেয়েছিলেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। এ নিয়ে নোবলজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেনের কোনও বক্তব্য জানা যায়নি। তবে বাংলার আর এক নোবেলজয়ী অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর অবস্থান জানিয়েছেন। 

তাঁর কথায়, ‘যেহেতু সিবিআই এই ঘটনার তদন্ত করছে তাই এ নিয়ে কিছু বলার নেই’। তাছাড়া নোবেলজয়ী মনে করেন এই নিয়ে বলার কোনও দায়ও তাঁর নেই। এবিপি আনন্দে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে তিনি জানিয়েছেন, ‘ব্যক্তিগত ভাবে এ নিয়ে কোনও চর্চা করি না। তাই কিছু বলারও কোনও দায়িত্ব নেই। কথা বলাটা দায়িত্বহীন কাজ হবে।’

প্রসঙ্গত,বুধবার এজালাসে আইনজীবী তথা সিপিএমের রাজ্যসভার সাংসদ বিকাশরঞ্জনের সঙ্গে কথা বলছিলেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়। সেই সময় তিনি জানতে চান, নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে নোবেলজয়ীরা কী বলছেন। তিনি বলেন, ‘প্রতীচী ট্রাস্ট গড়ে কাজ করছেন অমর্ত্য সেন। বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়ও শিক্ষা নিয়ে কাজ করছেন। স্বীকৃত মহান মানুষদের এই দুর্নীতি (নিয়োগ দুর্নীতি) পর্যবেক্ষণ কী সেটা আমার জানতে ইচ্ছা করে। তাঁরা তো নানা বিষয় নিয়ে মতপ্রকাশ করেন, এই দুর্নীতি নিয়ে কিছু বলেন কি না তা জানতে চাই।’ সরাসরি না বললেও ‘বিভিন্ন বিষয়’ নিয়ে মত বলতে তিনি সদ্য অমর্ত্য সেনের করা মন্তব্য প্রসঙ্গেই বিচারপতির এই মন্তব্য। কিছুদিন আগেই নোবেলজয়ী বলেন, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার যোগ্যতা নেই তা তো নয়’। 

সেই দিন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের এই মন্তব্যের প্রেক্ষিতে আইনজীবী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য বলেন,‘আমার মনে হয়, অমর্ত্য সেনের বক্তব্যের পুরোটা পড়লে বোঝা যাবে। যেভাবে দেখানো হচ্ছে, তিনি সেইভাবে বলেননি। আমি পুরো লেখাটা পড়েছি। ’

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।