অভিশপ্ত বিমানেই শেষ সেলফি রাশিয়ান মহিলার, লিখলেন…তারপরই নেপালে ভেঙে পড়ল ATR72

Advertisement

মস্কোর ট্রাভেল ব্লগার এলেনা বানদুরো। বয়স ৩৩ বছর। রাশিয়ার ওই মহিলা যাত্রী রবিবার ওই অভিশপ্ত প্লেনটিতে ছিলেন। পোখরাতে নামার ঠিক আগেই তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ছবি আপলোড করেন। প্লেন থেকেই সেলফি তুলেছিলেন তিনি। সেখানে তিনি লিখেছিলেন নেপাল যাচ্ছি। আর তারপরেই ভয়ঙ্কর দুর্ঘটনা। নদী খাতে আছড়ে পড়ে ATR72 বিমানটি। ভয়াবহ দুর্ঘটনায় প্রাণ গিয়েছে ওই মহিলা যাত্রীরও।

তিনি শেষবারের মতো সেলফি তুলেছিলেন ওই প্লেন থেকে। সেখানে ইংরেজিতে লিখেছিলেন go to nepal…। হয়তো ভেবেছিলেন নেপাল ঘোরার অভিজ্ঞতা তিনি অন্যদের সঙ্গে ভাগ করে নেবেন। আনন্দে ভরে উঠেছিল তাঁর মন। নতুন জায়গা, নতুন করে পোখরা পাওয়ার জন্য অধীর আগ্রহে প্লেনে বসেছিলেন তিনি। কিন্তু নেপালের মাটি স্পর্শ করার আগেই ভয়াবহ দুর্ঘটনায় প্রাণ গেল অনেকের।

জীবনের শেষ সেলফি। সেটাও তুললেন অভিশপ্ত বিমান থেকে। যে বেড়ানোর টানে তিনি ছুটে বেড়াতেন বিশ্বের এই প্রান্ত থেকে ওই প্রান্তে সেই বেড়াতে গিয়েই বিমান দুর্ঘটনায় প্রাণ গেল তাঁর। নদী খাতে পড়ে একেবারে ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয় গোটা বিমানটি।

বেড়াতে ভালোবাসতেন ওই রাশিয়ান মহিলা। একেবারে পায়ের তলায় সর্ষে। সেই বেড়ানোর টানেই তিনি পোখরাতে আসছিলেন। কিন্তু সব শেষ হয়ে গেল। সোশ্যাল মিডিয়ায় আজ ছেয়ে গিয়েছে তাঁর পরিবারকে সমবেদনা জানিয়ে নানা শোকবার্তায়। তিনি ট্রাভেল ব্লগার হিসাবে কাজ করতেন। মিডিয়া ম্যানেজার হিসাবে তিনি কর্মরত ছিলেন। কাজের টানে ও বেড়ানোর প্রতি ভালোবাসায় তিনি বিভিন্ন জায়গায় ঘুরতেন। সেই সূত্রেই তিনি পোখরাতে আসছিলেন। কিন্তু পথেই সব শেষ।

আরও তিনজন রাশিয়ান ছিলেন ওই বিমানে। মৃত্যু হয়েছে তাঁদেরও। ভিক্টোরিয়া আলতুনিনা, ইউরি লুগিন, ও ভিক্টর লাগিনের মৃত্যু হয়েছে এই দুর্ঘটনায়।

এদিকে নেপালে থাকা রাশিয়ান রাষ্ট্রদূত চারজনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। তিনি জানিয়েছেন, দুর্ভাগ্যবশত চারজন রাশিয়ান নাগরিকের মৃত্যু হয়েছে। নেপাল সরকারের সঙ্গে আমরা যোগাযোগ রেখে চলেছি। মৃত রাশিয়ানদের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ রাখা হচ্ছে।

সব মিলিয়ে মৃত্যু হয়েছে ১৫জন বিদেশির। তার মধ্যে পাঁচজন ভারতীয়, চারজন রাশিয়ান, দুজন সাউথ কোরিয়ান, অপর দুজন আর্জেন্তিনা ও ফ্রান্সের।

বিমানযাত্রীদের মধ্যে অনেকেই বেড়াতে যাচ্ছিলেন পোখরাতে। নেপালের অন্য়তম দ্রষ্টব্য স্থান হল এই পোখরা। বেড়ানোর স্বপ্ন ছিল তাঁদের চোখে। কিন্তু সব শেষ হয়ে গেল। দাউ দাউ করে আগুন জ্বলে যায় বিমানে। এদিকে প্লেন থেকেই এক ভারতীয় ফেসবুক লাইভ করছিলেন। সেখানে দাউ দাউ করে বিমান জ্বলার ছবি ধরা পড়েছে ।

সংবাদ সংস্থা এএনআই সূত্রে খবর, পোখারা থেকে কাঠমান্ডু যাচ্ছিল ইয়েতি এয়ারলাইন্সের বিমানটি। কাস্কি জেলার কাছে সেটি ভেঙে পড়ে। টেক অফের ২০ মিনিটের মধ্যেই ভেঙে পড়ে বিমানটি।

 

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।