Delhi Murder: জঙ্গিদের জেরা করে মিলল ৩ টুকরো করা মৃতদেহ, ২৬ জানুয়ারির আগে কী ঘটল দিল্লিতে?

Advertisement

কয়েকদিন আগে দিল্লিসহ গোটা দেশ তোলপাড় হয়েছিল শ্রদ্ধা ওয়াকর হত্যাকাণ্ড নিয়ে। সেই রোমহর্ষক খুনের ঘটনার রেশ এখনও কাটেনি। এরই মধ্যে দিল্লির আরও এক কর্তহিম করা ঘটনা সামলে এল। সঙ্গে মনে অনেক প্রশ্ন জাগিয়ে দিল। গতকালই পুলিশ তল্লাশি চালিয়ে একটি বাড়ি থেকে বেশ কিছু হাতবোমা উদ্ধার করেছিল। ঘটনায় জঙ্গি যোগ থাকা সন্দেহে দুই ব্যক্তিকে গ্রেফতারও করা হয়েছিল। সেই তল্লাশি অভিযান চলাকালীন সেখানে মানুষের রক্ত দেখতে পান তদন্তকারীরা। এরপরই সন্দেহ জাগে তদন্তকারীদের মনে। ধৃত দুই জঙ্গিকে জেরা করা হয়। এরপরই একটি মৃতদেহের তিনটি টুকরো উদ্ধার করে দিল্লি পুলিশ।(আরও পড়ুন: দু’দিক দিয়ে জোড়া তুসারধস কাশ্মীরি গ্রামে, ক্যামেরাবন্দি ‘ভয়ানক সুন্দর’ দৃশ্য)

এক বিবৃতিতে দিল্লি পুলিশের তরফে বলা হয়েছে, ‘দুই সন্দেহভাজন নওশাদ এবং জগজিৎ সিং (ইউএপিএ-এর অধীনে গ্রেফতার) পুলিশি জেরায় খুনের কথা জানায়। তাদের বয়ানের ভিত্তিতে দিল্লি পুলিশের বিশেষ সেল একটি মৃতদেহ উদ্ধার করেছে। মৃতদেহটি ভালসওয়া ড্রেন (উত্তর দিল্লিতে) থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। সেই দেহটি তিন টুকরো করা হয়েছিল। নিহতের পরিচয় জানা গিয়েছে।’ জেরায় নাকি নওশাদ এবং জগজিৎ সিং খুনের কথা স্বীকার করে। তারা জানায়, উত্তর দিল্লির ভালসওয়া এলাকায় এক ফাঁকা প্লটে সেই ব্যক্তিকে খুন করা হয়।

এদিকে গ্রেফতারির সময় নওশাদ এবং জগজিৎ সিংয়ের কাছে থেকে উদ্ধার হয়েছে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র। পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, আসামিদের কাছ থেকে দুটি হাতবোমা, তিনটি পিস্তল ও ২২টি কার্তুজ উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশ বলছে যে জগজিৎ ওরফে জগ্গা কানাডা-ভিত্তিক খালিস্তানি সন্ত্রাসীদের সাথে যুক্ত হতে পারে। অন্যদিকে সন্ত্রাসী সংগঠন ‘হরকাত উল-আনসার’-এর সাথে যুক্ত অপর ধৃত নওশাদ। ২৬ জানুয়ারি, প্রজাতন্ত্র দিবসের আগে এভাবে দিল্লিতে দুই জঙ্গির গ্রেফতারি এবং এক নৃশংস খুনের ঘটনায় কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে পুলিশের। এই দুই জঙ্গির অন্য কোনও বড় হামলা চালানোর পরিকল্পনা ছিল কি না, সেই ব্যক্তিকেই বা কেন মারা হয়েছে, এই সব খতিয়ে দেখতে জেরা জারি রেখেছে পুলিশ। এদিকে আগামী ১৭ জানুয়ারি রাজধানীতে নরেন্দ্র মোদীর রোড শো করার কথা ছিল। তা বাতিল করা হয়েছে নিরাপত্তাজনিত কারণে। তবে নওশাদ ও জগজিতের গ্রেফতারির সঙ্গে তার কোনও যোগ রয়েছে কি না, তা জানানো হয়নি পুলিশ বা প্রধানমন্ত্রীর দফতরের তরফে।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।