আত্মজীবনীমূলক বই ‘স্পেয়ার’-এ বহু তথ্য গোপন করেছেন প্রিন্স হ্যারি, কিন্তু কেন?

Advertisement

আত্মজীবনীমূলক বই ‘স্পেয়ার’-এ পরিবার সম্পর্কে অনেক কথা রয়েছে, সেসবের অনেককিছুই প্রকাশ করার ইচ্ছা না থাকা সত্ত্বেও তিনি তা প্রকাশ করেছেন এবং অনেক তথ্য গোপন করেছেন বলে জানিয়েছেন প্রিন্স হ্যারি। তথ্য গোপন রাখার বিষয়ে শুক্রবার দৈনিক টেলিগ্রাফে প্রকাশিত এক সাক্ষাৎকারে প্রিন্স হ্যারি জানান, ওইসব তথ্য প্রকাশিত হলে আমার পরিবার আমাকে কখনও ক্ষমা করতো না। শনিবার এনডিটিভিতে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা যায়।

প্রিন্স হ্যারি বলেন, আমার কাছে আরেকটি বই লেখার পর্যাপ্ত তথ্য রয়েছে। যেখানে ভাই প্রিন্স উইলিয়াম এবং বাবা রাজা তৃতীয় চালর্সের সঙ্গে সম্পর্কের কথা স্থান পাবে। তার এমন মন্তব্য রাজপরিবারকে আরও অস্থির করে তুলবে বলে মনে করছেন অনেকে।

এছাড়াও তার প্রকাশিত বইটি সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘প্রকাশিত বইটি ছিল প্রথম খসড়া থেকে ভিন্ন। খসড়াটি ছিল ৮০০ পৃষ্ঠার, যা এখন ৪০০ পৃষ্ঠা প্রকাশিত হয়েছে। সুতরাং ওই তথ্যে দু’টি বই হতে পারে।’

প্রিন্স হ্যারি আরও বলেন, ‘কিছু ঘটনা ঘটেছে যা আমার এবং আমার ভাইয়ের মাঝে, আর কিছু আমার এবং বাবার মাঝে, আমি চাই না এটা বিশ্বকে জানাতে। কারণ, ওগুলো প্রকাশিত হলে আমি জানি তারা আমাকে কখনও ক্ষমা করবে না।

প্রিন্স মিডিয়াতে বলেছিলেন, ‘আমার পরিবারে প্রচুর পরিমাণ ময়লা আছে।’ কিন্তু তারা ‘অন্য কারও সম্পর্কে সরস গল্পের জন্য তারা কার্পেটের নীচে ঝাড়ু দেন।’ কয়েক মাস প্রচারের পর মঙ্গলবার হ্যারির বই ‘স্পেয়ার’ বাজারে এসেছে এবং তা ব্যাপক সাড়া ফেলেছে।

(বিশেষ দ্রষ্টব্য: প্রতিবেদনটি চ্যানেল আই থেকে নেওয়া হয়েছে। সেই প্রতিবেদনই তুলে ধরা হয়েছে। হিন্দুস্তান টাইমস বাংলার কোনও প্রতিনিধি এই প্রতিবেদন লেখেননি।)

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।