IND vs SL: ‘ব্যাটে সরাসরি বল আসাটাই পছন্দ করি, তবে রোহিত চায়..’- ইচ্ছের বিরুদ্ধে পাঁচে খেলছেন রাহুল? – IND vs SL: I like balls coming onto the bat but Rohit has been pretty clear that he wants me to bat at No. 5

Advertisement

সিনিয়র ব্যাটসম্যান কেএল রাহুল ইঙ্গিত দিয়েছেন যে, অধিনায়ক রোহিত শর্মা চাইছেন, তাঁকে ৫ নম্বরে দলের স্তম্ভ করে তুলতে। রাহুল স্বীকার করে নিয়েছেন, এতে মিডল অর্ডারে খেলতে নেমে তাঁর ব্যাটিংয়ে উন্নতি হবে। এবং এতে তিনি স্পিন বোলারদের খেলতে আরও দক্ষ হয়ে উঠবেন।

রাহুল এ দিন খারাপ পরিস্থিতিতে খেলতে নেমে ১০৩ বলে অপরাজিত ৬৪ রান করে ভারতকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন। শ্রীলঙ্কার ২১৫ রান তাড়া করতে নেমে রাহুলের সৌজন্যে চার উইকেটে জয় পায় টিম ইন্ডিয়া। রাহুল এ দিন ম্যাচের পর বলেছেন, ‘৫ নম্বরে ব্যাট করার ফলে নিজের খেলাটা আরও ভালো ভাবে বুঝতে পারছি। এটা আমাকে সাহায্য করছে। ৫ নম্বরে আপনাকে সরাসরি স্পিন মোকাবিলা করতে হবে। তবে ব্যাটে সরাসরি বল আসটাই আমার পছন্দের। কিন্তু রোহিত (শর্মা) আমাকে ৫ নম্বরে খেলাতে চায়, তাই আমি এটাই করার চেষ্টা করছি।’

আরও পড়ুন: ‘বাঁ-হাতি থাকলে ভালো, তবে…’- ইশানের ভাগ্য নির্ধারণ করে দিলেন রোহিত?

তিনি অবশ্য এর পর কিছুটা মজা করেই যোগ করেছেন, ‘পাঁচ নম্বরে ব্যাটিং উপভোগ করছি। ইনিংস শেষ হলে এখন আর তাড়াহুড়ো করে ব্যাট করতে ছুটতে হয় না। ভালো করে স্নান, খাওয়াদাওয়া করে তার পর ব্যাট করতে পারি। আগে থেকে পরিস্থিতি বুঝতে পারি। এই দলের আমার কী ভূমিকা সেটা আমি জানি। সেই হিসাবেই ব্যাট করার চেষ্টা করি।’

শ্রীলঙ্কার বোলারদেরও প্রশংসা করেছেন রাহুল। ভারত জিতলেও, তাদের কিন্তু চাপে ফেলে দিয়েছিল লঙ্কান বোলাররা। ভারতের একটা সময়ে ৮৬ রানে ৪ উইকেট পড়ে গিয়েছিল। ভারতের টপ অর্ডার রান পায়নি। লড়াইটা রাহুলের সোজা ছিল না।

আরও পড়ুন: জল দিতে দেরি করায় সতীর্থের ওপর মেজাজ গরম করলেন ব্যাড বয় হার্দিক- ভিডিয়ো

তিনি বলেছেন, ‘কিন্তু ওরা (শ্রীলঙ্কা) ভালো লড়াই করেছে, আমাদের চাপে ফেলে দিয়ে প্রথম দিকে সাফল্য পেয়েছে। তবে শ্রেয়স (আইয়ার) এবং হার্দিকের (পাণ্ডিয়া) সঙ্গে আমার ভালো পার্টনারশিপ ছিল। আমরা সব সময়ে জয়ের লক্ষ্য নিয়েই নামি। এবং শেষ পর্যন্ত জিতেওছি।’

রাহুলের দাবি, ভারত শুরুতেই চার উইকেট হারলেও, লক্ষ্য সব সময়ে নাগালের মধ্যেই ছিল। তাই ম্যাচটি শেষ করার জন্য কোনও তাড়াহুড়ো করার দরকার হয়নি তাঁর। কেএল-এর দাবি, ‘যখন ব্যাট করতে নামলাম তখন ৪ উইকেট পড়ে গিয়েছে। তাই শুরুতে পরিস্থিতি বোঝার চেষ্টা করছিলাম। আক্রমণাত্মক ব্যাট করার প্রয়োজনও ছিল না। কারণ, প্রতি ওভারে ৩-৪ রান করতে হত। তাই ধীরে সুস্থে খেলছিলাম। শেষ পর্যন্ত টিকে থাকার লক্ষ্য নিয়েছিলাম। সেটা করতে পেরেছি। গুয়াহাটিতে আক্রমণাত্মক খেলেছিলাম। সেটাই আমার স্বাভাবিক খেলা। কিন্তু সেটা এখানে খেলা সম্ভব ছিল না। পরিস্থিতি অনুযায়ী খেলতে হবে। সেটাই আমার কাজ।’

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।