নামে মেডিক্যাল কলেজ, কিন্তু দেড় ঘণ্টা ECG-র জন্য অপেক্ষা করে মরতে হল রোগীকে

Advertisement

নাম গালভরা ‘মেডিক্যাল কলেজ’। কিন্তু সেখানে নেই ইসিজি করার কর্মীও। যার জেরে মৃত্যু হল এক রোগীর। মৃতের নাম নিমাই উলাল (৬৭)। পরিজনদের দাবি, দেড় ঘণ্টা অপেক্ষার পর খোঁজ পাওয়া যায় ইসিজি কর্মীর। ততক্ষণে মৃত্যু হয়েছে নিমাইবাবুর।

ঘটনা গত মঙ্গলবারের। ব্যবসার কাজে বীরভূমের কুরুম গ্রাম পঞ্চায়েতের শ্যাওড়া কেড্ডা গ্রামে গিয়েছিলেন নিমাইবাবু। সেখানেই অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। স্থানীয়রা তাঁকে রামপুরহাট মেডিক্যাল কলেজে নিয়ে যান। সেখানে চিকিৎসকরা ইসিজি করানোর পরামর্শ দেন। সকাল ৮টা নাগাদ নিমাইবাবুকে ইসিজি রুমে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু সেখানে গিয়ে জানা যায় ইসিজি টেকনিশিয়ান তখনও আসেননি। ওই অবস্থাতেই বেলা প্রায় ৯টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত ইসিজি রুমে পড়ে থাকেন বৃদ্ধ। তার পর হেলতে দুলতে যখন ইসিজি টেকনিশিয়ান আবির্ভূত হন ততক্ষণে ইহলোক ত্যাগ করেছেন নিমাই উলাল।

হুগলির আরামবাগের মধুপুরের বাসিন্দা ছিলেন নিমাইবাবু। তাঁর মৃত্যুর খবর দেওয়া হয় বাড়িতে। পরিজনরা হাসপাতালে দেহ নিতে এসে ঘটনার কথা জানতে পেরে চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ তোলেন।

মৃতের এক আত্মীয় বলেন, ইসিজি রুমে পড়ে থেকে মৃত্যু হয়েছে নিমাইবাবুর। মেডিক্যাল কলেজ নাম দিলেও তার কোনও পরিষেবা নেই এই হাসপাতালে। পরিষেবা পাওয়া যাবে না আগে থেকে জানালে আমরা অন্য জায়গায় নিয়ে যেতে পারতাম। তাহলে ওনাকে এভাবে মরতে হত না।

 

 

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।