বিজেপির সঙ্গে জোট করলে দল ছাড়তে হবে, পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে কড়া বার্তা সিপিএমের, CPM will not accept alliance with BJP and Surjya Kanta Mishra gives message to take strong action

Advertisement

Advertisement

স্পষ্ট হুঁশিয়ারি দিলেন সূর্যকান্ত

পূর্ব মেদিনীপুরের একাধিক জায়গায় সম্প্রতি সমবায় নির্বাচনে বিজেপির সঙ্গে জোট করতে দেখা গিয়েছে সিপিএমকে। এমনকী বিভিন্ন জায়গায় বিজেপির সঙ্গে একত্রে মিছিলও করেছে। তা কিন্তু ভালো চোখে দেখছে না সিপিএম। পঞ্চায়েত নির্বাচনে যাতে বিজেপির সঙ্গে সিপিএম যাতে কোনওভাবেই জোটবদ্ধ না হয় সে ব্যাপারে স্পষ্ট হুঁশিয়ারি দিলেন সূর্যকান্ত।

প্রসঙ্গ তৃণমূলকে হারাতে বাম-বিজেপি জোট

প্রসঙ্গ তৃণমূলকে হারাতে বাম-বিজেপি জোট

তলে তলে সিপিএম তথা বামফ্রন্ট ও বিজেপি জোট বেঁধে চলছে বলে একুশের নির্বাচন কেন ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচন থেকেই অভিযোগ করে আসছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু ২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচনের পরবর্তী সময়ে দেখা যা্চছে কোনও কোনও ক্ষেত্রে তৃণমূলকে হারাতে বাম-বিজেপি জোট বেঁধেছে।

সূর্যকান্ত মিশ্র কড়া সিদ্ধান্ত জানালেন

সূর্যকান্ত মিশ্র কড়া সিদ্ধান্ত জানালেন

২০১৯ ও ২০২১-এর নির্বাচনে একটা জিনিস স্পষ্ট হয়ে গিয়েছিল বামেদের ভোট বিজেপির দিকে ঢলেছিল। কিন্তু পরবর্তী সময়ে ফের বামেদের ভোট নিজেদের ঝুলিয়ে ফিরতে শুরু করেছে। এই অবস্থায় সিপিএম নেতৃত্ব কড়া অবস্থান নিল বিজেপির সঙ্গে নীচুতলায় জোট রুখতে। সিপিএমের প্রাক্তন রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র এই মর্মে কড়া সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

বাম-বিজেপি জোটে কড়া শাস্তির বিধান

বাম-বিজেপি জোটে কড়া শাস্তির বিধান

তিনি বলেন, কেউ যদি মনে করেন বিজেপিতে গিয়ে তৃণমূলকে ঠেকানো যাবে, বা তৃণমূলে গিয়ে বিজেপিকে ঠেকানো যাবে, তা ভুল। এরকম কেউ থাকলে, সিপিএম পার্টিতে তাঁর ঠাঁই নেই। ঠাঁই নেই তাঁরও, যিনি বাম-বিজেপি জোটের সলতে তৈরি করবেন। সম্প্রতি শুভেন্দু অধিকারী বামেদের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করে বলেছেন বামেদের ভোটেই তিনি জিতেছেন। তারপর থেকেই জল্পনা আরও দৃঢ় হয়েছে।

শুভেন্দুর স্বীকারোক্তি, সূর্যকান্ত মিশ্রের প্রতিক্রিয়া

শুভেন্দুর স্বীকারোক্তি, সূর্যকান্ত মিশ্রের প্রতিক্রিয়া

শুভেন্দুর স্বীকারোক্তির প্রতিক্রিয়ায় সূর্যকান্ত মিশ্র বলেন, দলের নীতিগত সিদ্ধান্ত অনুয়ায়ী বিজেপি ও তৃণমূলের সমদূরত্ব বজায় রেখে চলতে চায় সিপিএম। তাঁর কথায়, তৃণমূল দলের সবাই চোর নয়। আবার বিজেপির সবাই দাঙ্গাবাদ নয়। বিজেপি করেন, এমন ভালো লোকজনও আছেন। কেউ বিজেপিকে হারানোর জন্য তৃণমূলে গিয়েছেন, কেউ তৃণমূলকে হারানোর জন্য বিজেপিতে গিয়েছেন। আর কিছু লোকজন আছেন, যাঁরা সরকারের থেকে কিছু সুযোগ-সুবিধা নেওয়ার জন্য দলবদল করেছেন।

লাল ঝান্ডার পার্টিতে তাঁদের জায়গা নেই!

লাল ঝান্ডার পার্টিতে তাঁদের জায়গা নেই!

এরপরই তিনি হুঁশিয়ারি দেন, কেউ যদি মনে করেন, বিজেপিতে গিয়ে তৃণমূলকে ঠেকানো যাবে, আবার উল্টোটাও যদি কেউ মনে করেন, তবে লাল ঝান্ডার পার্টিতে তাঁর জায়গা নেই। এই বার্তা তিনি পার্টির নেতা-কর্মীদের ছড়িয়ে দিতে বলেন। তাঁর সাফ কথা, পঞ্চায়েত হোক বা অন্য কোনও ভোট, বিজেপির সঙ্গে জোট করা চলবে না, তৃণমূলের সমর্থনও নেওয়া চলবে না। সিপিএম আদর্শের উপর লড়াই করবে। মানুষ ঠিকই বুঝবে, বামফ্রন্টই একমাত্র বিকল্প।

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।