ভিডিয়ো- কোহলির ইনস্টা স্টোরিতে লাখ টাকার প্রতিক্রিয়া, সঙ্গে জবরদস্ত উত্তর সূর্যের – Video

Advertisement

ভারতীয় ক্রিকেটের টি-টোয়েন্টি স্পেশ্যালিস্ট ব্যাটসম্যান সূর্যকুমার যাদব বর্তমানে স্বপ্নের ফর্মে রয়েছেন। শনিবার রাজকোটে ভারত বনাম শ্রীলঙ্কার মধ্যে তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে (আইএনডি বনাম এসএল) সূর্যকুমার যাদব ঝড়ো সেঞ্চুরি করেন এবং টিম ইন্ডিয়াকে ম্যাচ জেতাতে মুখ্য ভূমিকা নেন। গত ছয় মাসের মধ্যে এটি সূর্যকুমারের এটি তৃতীয় টি-টোয়েন্টি সেঞ্চুরি।

শনিবার সূর্যের ঝড়ো ইনিংসের পর প্রাক্তন টিম ইন্ডিয়া অধিনায়ক বিরাট কোহলিও ইনস্টাগ্রামে নিজের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন, যার উত্তর সূর্যকুমার যাদব তাঁর নিজস্ব স্টাইলে দিয়েছেন। যা সোশ্যাল মিডিয়ায় এখন ভাইরাল।

আরও পড়ুন: ধোনির মতো করেই রোহিতেরও উচিত হার্দিকের হাতে দায়িত্ব তুলে দেওয়া- সাফ দাবি জাদেজার

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিয়ো প্রকাশ করেছে, যাতে সূর্যকুমার যাদবের মাঠ থেকে হোটেলে ফেরার মুহূর্তগুলো ক্যামেরাবন্দি হয়েছে। সেখানেই দেখা গিয়েছে, বিরাট কোহলির ইনস্টাগ্রামের ছবি দেখে উচ্ছ্বসিত হয়ে উঠেছেন সূর্য।

আসলে সূর্যের ইনিংস দেখার পরে বিরাট একটি ইনস্টাগ্রাম স্টোরি শেয়ার করেছেন। যেখানে সূর্যের ছবি শেয়ার করেছেন। সঙ্গে আগুন এবং হাততালির ইমোজিও দিয়েছেন।

আরও পড়ুন: শ্রীলঙ্কাকে গুঁড়িয়ে যুগ্ম বিশ্ব রেকর্ড ভারতের,ছাপিয়ে গেল পাকিস্তানকে

আর এটি দেখে সূর্যকুমার খুব খুশি হয়েছেন। সেটা তাঁর মুখের ভঙ্গিতেই বোঝা গিয়েছে। বিরাটের ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে সূর্যকুমার যাদব মন্তব্য করেছেন, ‘ওরে বাবা, এই গল্পটা কে দিয়েছে?’ এর পর সূর্য লেখেন, ‘ভাই, মজা লাগল। অনেক ভালোবাসা! তাড়াতাড়ি দেখা হবে।’

৩২ বছরের তারকা ব্যাটার সূর্যকুমার যাদব শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি সিরিজের নির্ধারক ম্যাচে ৫১ বলে অপরাজিত ১১২ রান করেন। তাঁর বিস্ফোরক ইনিংসে তিনি মারেন ন’টি ছক্কা এবং সাতটি চার। এই ইনিংসের সুবাদে ভারত ম্যাচ জিতে নেয় ৯১ রানে। সূর্যের মারকাটারি ইনিংসটি বিরাট কোহলির মন ছুঁয়ে গিয়েছে।

সূর্যের হাত ধরেই প্রথমে ব্যাট করে ৫ উইকেটের বিনিময়ে ২২৮ রান তোলে ভারত। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ১৬.৪ ওভারে ১৩৭ রানে অলআউট হয়ে যায় শ্রীলঙ্কা। তিন ম্যাচের সিরিজ ২-১ এ জিতে নেয় টিম ইন্ডিয়া।

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।