Uttar Pradesh: যৌতুক হিসেবে ফরচুনার গাড়ি চেয়েছিলেন লেকচারার পাত্র, না পেয়ে বিয়ে বাতিল করলেন

Advertisement

যৌতুক না পাওয়ায় আবারও কনেকে বিয়ে না করার অভিযোগ উঠল যোগী রাজ্যে। বিয়ের যৌতুক হিসেবে ফরচুনার গাড়ি চেয়েছিলেন একটি কলেজের লেকচারার পাত্র। কিন্তু, সেই যৌতুক দিতে অস্বীকার করেছিলেন কনের পরিবার। শুধুমাত্র সেই কারণেই বিয়ে করতে অস্বীকার করলেন লেকচারার। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের গাজিয়াবাদে। এই ঘটনায় কনের বাবা লেকচারারের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন।

পুলিশ জানায়, বিয়ের দু -মাস আগে ওই লেকচারার কনের পরিবারের কাছে যৌতুক হিসেবে ফরচুনার গাড়ি দাবি করেন। কিন্তু, সামর্থ্য না থাকায় কনের পরিবার তাঁকে গাড়ি দিতে অস্বীকার করেন। পরে ওই লেকচারার মহিলার ফোনে একটি মেসেজ পাঠিয়ে বিয়ে বাতিল করে দেন। জানা গিয়েছে, ওই লেকচারার বিজয় নগরের সিদ্ধার্থ বিহারের বাসিন্দা এবং উত্তরপ্রদেশের একটি সরকারি কলেজে চাকরি করেন। কনের পারিবারিক সূত্রে জানা গিয়েছে, বর এবং কনের পরিবার ২০২২ সালের মে মাসে সাক্ষাৎ করে। সেই মতো তাঁদের বিয়ে ঠিক হয়ে যায়। এরপর ২০২২ সালের জুন মাসে বাগদান অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। দুই পরিবারের সম্মতিতে আগামী ৩০ জানুয়ারি তাঁদের নিয়ে হওয়ার কথা ছিল।

বিয়ের জন্য গত অক্টোবরে কনের পরিবার বরকে একটি ওয়াগন আর গাড়ি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেই। পরে গাড়িটি তাঁরা বুকও করে ফেলেন। আর তারপরেই ঘটে বিপত্তি। বরের পরিবারের একজন সদস্য কনের বাড়িতে এসে ওই গাড়ির পরিবর্তে ফরচুনার দাবি করেন। তবে কনের পরিবার সেই দাবি মানতে রাজি হয়নি। ফলস্বরূপ ২৩ নভেম্বর ইমেল মারফত বিয়ে করতে অস্বীকার করেন পাত্র। এই ঘটনায় সরকারি কলেজের ওই লেকচারার এবং তাঁর আত্মীয়র বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৫০৬ ধারায় মামলা রুজু করে পুলিশ।

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।