শুভেন্দুর সুরে তৃণমূলকে ‘কোম্পানি’ ও মমতাকে ‘ব্র্যান্ড’ বললেন দলেরই বিধায়ক

Advertisement

অবশেষে বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর দাবিতে স্বীকৃতি দিলেন তৃণমূলের বিধায়ক। বললেন, তৃণমূল একটা ‘কোম্পানি’ যার ‘ব্র্যান্ড’ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর দলের জনপ্রতিনিধিদের মেডিক্যাল রিপ্রেজেন্টেটিভ বলে ঘোষণা করলেন উত্তর হাওড়ার তৃণমূল বিধায়ক গৌতম চৌধুরী। বিধায়কের মন্তব্যে চেষ্টা করেও অস্বস্তি ঢাকতে পারছে না তৃণমূল।

গত ৬ জানুয়ারি একটি ভিডিয়ো টুইট করেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার। সেই ভিডিয়োয় গৌতমবাবুকে বলতে শোনা যায়, ‘আমাদের একটা লোগো। আমরা ডাক্তারখানার ওষুধের কোম্পানির রিপ্রেজেন্টেটিভ। আমাদের কোম্পানির নাম হচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস। আমাদের ব্র্যান্ড হচ্ছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

গৌতমবাবুর এই মন্তব্যকে অবাঞ্ছিত বলে উল্লেখ করে তৃণমূলের এক মুখপাত্র বলেন, ‘উনি কী ভেবে বলেছেন জানি না। তৃণমূল কংগ্রেস একটি পুরদস্তুর রাজনৈতিক দল। আমাদের নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনিই আমাদের মুখ।’

বলে রাখি, হাওড়ায় জল জমার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভর্ৎসনার মুখে পড়েছিলেন এই গৌতমবাবু। তাকে সতর্ক করেছিল দল। ফের একবার মুখ খুলে বিতর্কে জড়ালেন তিনি।

বিজেপিতে যোগদানের পর থেকেই তৃণমূল কংগ্রেসকে প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি বলে কটাক্ষ করা শুরু করেন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী। সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে কোম্পানির মালিক বলে অভিহিত করেন তিনি। এবার দলের বিধায়কের মুখে সেই শব্দ উচ্চারিত হওয়ায় অস্বস্তিতে পড়েছে তৃণমূল। তবে বিধায়কের অনুগামীরা বলছেন, দলের কার্যপদ্ধতি বোধাতে গিয়ে সম্ভবত এই উপমা টেনেছেন গৌতমদা। তাঁর মন্তব্য নিয়ে অহেতুক আলোচনা হচ্ছে। যদিও এব্যাপারে তৃণমূলকে ছাড়তে নারাজ বিজেপি। তাদের দাবি, তার মানে বিজেপির বক্তব্যই সত্যি হল।

 

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।