দেশ জুড়ে সাড়ে ৮টায় বন্ধ হয়ে যাবে সমস্ত দোকানপাট! এ কী দুর্বিপাক এল…government of pakistan come up with a new plan to control electricity consumption in order to solve electricity shortage all malls markets shops should be closed by early night

Advertisement

জি ২৪ ঘণ্টা ডিজিটাল ব্যুরো: দেশ জুড়ে সাড়ে ৮টায় বন্ধ হয়ে যাবে সমস্ত দোকানপাট! কেন? এ কী দুর্বিপাক এল? ঘটনাটা এ দেশের নয়, মানে, ভারতের কোনও ব্যাপার নয়। এই সংকট ঘনিয়েছে পাকিস্তানে। বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কার পাশাপাশি এবার নানারকম অর্থনৈতিক সংকট দেখা যাচ্ছে পাকিস্তানেও। পাকিস্তানে এর আগেও এ জাতীয় সমস্যা দেখা দিয়েছে। এবার পরিস্থিতি আরও সঙিন হয়ে পড়েছে। পাকিস্তানের জ্বালানিখাত ঋণের জালে জর্জরিত। দেশটির অর্থনৈতিক সংকট দিন দিন বাড়ছে। তবে এই সংকট মোকাবিলায় জ্বালানি-খরচ কমাতে নতুন পদক্ষেপ করেছে পাক সরকার।

আরও পড়ুন: Taliban Warns Pakistan: এবার কি পাকিস্তান আক্রমণ করবে তালিবান? ইসলামাবাদকে কড়া হুমকি আফগানিস্তানের…

পাকিস্তানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী খাজা আসিফ মঙ্গলবার ঘোষণা করেছেন, পাকিস্তানের সব দোকানপাট রাত সাড়ে ৮টায় বন্ধ করতে হবে। বিয়ের অনুষ্ঠানের হলগুলি ফাঁকা করে দিতে হবে রাত ১০টার মধ্যেই। সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় সরকারের মন্ত্রিসভা মঙ্গলবার ‘ন্যাশনাল এনার্জি ইফিসিয়েন্সি অ্যান্ড কনজারভেশন প্ল্যান’ প্রস্তাবও পাস করেছে। জানা গিয়েছে, জ্বালানি-খরচ কমানোর জন্যই এই পরিকল্পনা করেছে তারা। খাজা আসিফ জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ সরকারি দফতরগুলিকে ৩০ শতাংশ বিদ্যুৎখরচ কমানোর নির্দেশ দিয়েছেন।    

আরও পড়ুন: Elon Musk’s Twitter: মাস্কের দুর্দশা! ভাড়া বাকি পড়েছে, রান্নাঘরে তালা, ওয়াশরুমে নেই টয়লেটপেপারও…

পাক সরকারের এ পরিকল্পনার অন্যতম কারণ হল সে দেশের রিজার্ভ ফুরিয়ে আসা। সরকারের তথ্য বলছে, ডিসেম্বরে যেখানে নেমে এসেছে দেশটির রিজার্ভ, গত আট বছরের মধ্যে তা তলানিতে ঠেকেছে। এই রিজার্ভ দিয়ে এক মাসের মতো পণ্য আমদানি করা যেতে পারে। আর এই পরিস্থিতিতে আইএমএফ থেকে যে ঋণ আসার কথা ছিল, তা-ও আসতে দেরি হচ্ছে। তাই একরকম বাধ্য হয়েই সরকার এই পথে হাঁটছে বলে খবর।

প্রতিরক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, জ্বালানি খরচ কমাতে রেস্তোরাঁও বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে ব্যবসায়ী সমিতির প্রতিনিধিরা এই সিদ্ধান্তের সঙ্গে একমত হননি। তবে এরপরও সরকার দোকানপাট দ্রুত বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

জানা গিয়েছে, পাকিস্তানের বিদ্যুৎ সঞ্চালন কোম্পানিগুলি বিদ্যুৎ উৎপাদনকারীদের দেনা মেটাতে পারছে না। ফলে বিদ্যুৎ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানগুলি জ্বালানি সরবরাহকারীদের দেনা মেটাতে পারছে না। একটা অন্ধ চক্রের মধ্যে আবর্তিত হচ্ছে পাক অভ্যন্তরীণ অর্থনীতি।

(Zee 24 Ghanta App দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App) 

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।