কলকাতা হাইকোর্টে খারিজ হল অনুব্রতর জামিনের আবেদন

Advertisement

পরিণতি অনুমান করা গিয়েছিল মঙ্গলবারই। বুধবার সেই অনুমান সত্যি করে অনুব্রত মণ্ডলের জামিনের আবেদন খারিজ করল কলকাতা হাইকোর্ট। এদিন বেলা ২টোয় বিচারপতি জয়মাল্য বাগচীর ডিভিশন বেঞ্চ তাদের সিদ্ধান্ত জানায়। আদালত জানিয়েছে, তদন্ত যে পর্যায়ে রয়েছে তাতে অনুব্রতকে জামিন দেওয়া সম্ভব নয় তাদের পক্ষে।

মঙ্গলবার বিচারপতি বাগচীর ডিভিশন বেঞ্চে অনুব্রতর জামিনের আবেদনের দীর্ঘ শুনানি হয়। শুনানিতে শিবঠাকুর মণ্ডলের মামলার প্রেক্ষিতে রাজ্য পুলিশ দ্বারা অনুব্রতর গ্রেফতারির বিষয়টি তুলে ধরেন সিবিআইয়ের আইনজীবী। গোটা বিষয়টি শুনে ব্যাপক ক্ষুব্ধ হয় আদালত। পুলিশের ভূমিকায় অসন্তোষ প্রকাশ করে প্রশ্ন করে, এভাবে পুলিশকে ব্যবহার করে কাউকে গ্রেফতার করা যায় কি? কেন এব্যাপারে সক্রিয় হওয়ার আগে অভিযুক্তের মেডিক্যাল রিপোর্ট খতিয়ে দেখল না পুলিশ? এসব প্রশ্নের কোনও উত্তর ছিল না সরকারি আইনজীবীর কাছে। এর পর বিচারপতি বাগচী বলেন, পুলিশের ভূমিকা অস্বচ্ছ ও লজ্জাজনক।

একই সঙ্গে মঙ্গলবারের শুনানিতে বগটুই মামলায় সিবিআই হেফাজতে লালন শেখের মৃত্যুর ঘটনায় অনুব্রতর মামলায় সিবিআইয়ের তদন্তকারী আধিকারিককে অভিযুক্ত করার কথা জানান তাদের আইনজীবী। এর পর তিনি দাবি করেন, জেলে বসে ফোন ব্যবহার করছেন অনুব্রত। একই সঙ্গে অনুব্রত সাক্ষীদের প্রভাবিত করার চেষ্টা করছেন বলে দাবি করে তারা। দুপক্ষের বক্তব্য শুনে মঙ্গলবার রায়দান স্থগিত রেখেছিল আদালত। বুধবার বেলা ২টোয় আদালতের তরফে জানানো হয়, অনুব্রত মণ্ডলের জামিনের আবেদন খারিজ করেছে তারা। বুধবার পর্যন্ত ১৪৬ দিন বন্দি রয়েছেন বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল।

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।