হাইকোর্টে শেষ হল অনুব্রত মণ্ডলের জামিনের মামলার শুনানি, রায়দান স্থগিত রাখল আদালত

Advertisement

কলকাতা হাইকোর্টে শেষ হল অনুব্রত মণ্ডলের জামিনের মামলার শুনানি। মঙ্গলবার দুপক্ষের সওয়াল জবাব দিয়ে বিচারপতি জয়মাল্য বাগচীর ডিভিশন বেঞ্চে শেষ হয়। রায়দান স্থগিত রেখেছে আদালত।

এদিন আদালতে অনুব্রতর আইনজীবী কপিল সিব্বল বলেন, ওনাকে প্রভাবশালী বলছে সিবিআই। কিন্তু উনি প্রভাবশালীর মতো কোন কাজটা করেছেন তা বলছে না তারা। অনুব্রত ১৪৫ দিন জেলে রয়েছেন। অথচ এই মামলায় এনামুল হক ও অভিযুক্ত BSF কম্যান্ডান্টকে জামিন দিয়েছে আদালত। তাহলে অনুব্রতকে জামিন দিতে সমস্যা কোথায়?

পালটা সিবিআইয়ের আইনজীবী বলেন, অনুব্রত অত্যন্ত প্রভাবশালী। এই মামলায় ৯৫ জন সাক্ষীর মধ্যে মাত্র ৩৩ জনের সাক্ষ গ্রহণ করা হয়েছে। জেলে বসেই ২ সাক্ষীকে অনুব্রত প্রভাবিত করার চেষ্টা করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। একই সঙ্গে জেলে বসে তিনি টেলিফোন ব্যবহার করছেন বলেও জানা গিয়েছে।

তখন বিচারপতি জানতে চান, কী ভাবে মোবাইল ফোন ব্যবহার করছেন তিনি? পালটা সিবিআইয়ের আইনজীবী বলেন, তিনি অনলাইনে ভিডিয়ো কলে কথা বলছেন। তখন আদালত বলেন, কোথা থেকে ফোন করা হচ্ছে তা কেন খুঁজে বার করল না সিবিআই? সেই প্রযুক্তি কি তাদের কাছে নেই? সঙ্গে বিচারপতি জানতে চান, সমস্ত সাক্ষীদের সাক্ষ্য নিতে সিবিআইয়ের কত সময় লাগতে পারে? দুপক্ষের বক্তব্য শুনে এদিন রায়দান স্থগিত রাখে বিচারপতি বাগচীর ডিভিশন বেঞ্চ।

গরুপাচার মামলায় গত অগাস্টে ইডির হাতে গ্রেফতার হন অনুব্রত মণ্ডল। আপাতত আসানসোল জেলে বন্দি তিনি। অনুব্রতকে দিল্লি নিয়ে যেতে চায় সিবিআই।

 

 

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।