দিলীপ ঘোষ বন্দে ভারতে পাথ ছোঁড়ার ঘটনা নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিশানা করে বলেছেন, দেশ বিরোধী কাজের অনুপ্রেরণ এই রাজ্য থেকেই, Targeting Mamata Banerjee Dilip Ghosh says, Anti-national activities are inspired from from Weat Bengal

Advertisement

Advertisement

রাজ্যে দেশ বিরোধী কাজের অনুপ্রেরণা

বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি এদিন ফের একবার অভিযোগ করলেন, রাজ্যে দেশ বিরোধী কাজের অনুপ্রেরণ দেওয়া হচ্ছে। তিনি এদিন বলেছেন, আগেও বলেছেন, কাশ্মীর শুধরে গেছে। তাঁর অভিযোগ, বাংলা কাশ্মীর হয়ে যাচ্ছে। দেশ বিরোধি শক্তি এ রাজ্যে এতো সক্রিয় বলেও অভিযোগ তাঁর। এখানকার সরকার সেই শক্তিকে মদত দিচ্ছে। পার্লামেন্টে যখন সিএএ পাস হল, তখন বিরোধিতা অনেক রাজ্যে হয়েছে। তবে পশ্চিমবঙ্গে তিনদিন ধরে উৎপাত হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন দিলীপ ঘোষ। তাঁর দাবি সেই সময় আড়াইশো কোটি টাকার সরকারি সম্পত্তি ধংস করা হয়েছে। যার সিংহভাগ ছিল রেলের সম্পত্তি। দেশের সম্পত্তিকে এই রাজ্যের একাংশ শত্রু সম্পত্তি মনে করতে শুরু করেছে বলে অভিযোগ করেছেন দিলীপ ঘোষ। দেশের সংবিধানকে তারা শত্রুপক্ষের সংবিধান বলে মনে করছে বলেও অভিযোগ করেছেন মেদিনীপুরের বিজেপি সাংসদ।

 সরাসরি তৃণমূলকে নিশানা

সরাসরি তৃণমূলকে নিশানা

দিলীপ ঘোষ অভিযোগ করেছেন, রাজ্যের দেশ বিরোধী শক্তির সঙ্গে যুক্তরা তৃণমূল কংগ্রেসের লোক। কিংবা এইসব লোকজনের পাশে রয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। রাজ্যে একবার নয় একাধিকবার এই ঘটনা ঘটেছে। নুপুর শর্মার সময়ে মন্দিরে ঢিল মারা হয়েছে। বাংলা দেশ বিরোধী শক্তির হাতে চলে যাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি। ১৯৪৭ সালের এর আগে যেরকম হয়েছিল, পরিস্থিতি সেই দিকে যাচ্ছে বলে দাবি দিলীপ ঘোষের। এর সম্পূর্ণ কৃতিত্ব তৃণমূলের। দিলীপ ঘোষের অভিযোগ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এইসব লোকেদের সহযোগিতা করছেন। পুলিস এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছে না বলে অভিযোগ তাঁর। কুণাল ঘোষের টুইট নিয়ে তিনি বলেছেন, মানুষের বুদ্ধি ভ্রষ্ট হলে এরকম কথা বলে। কমপক্ষে ঘটনার নিন্দা করা উচিত বলেছেন তিনি। দিলীপ ঘোষ কটাক্ষ করে বলেছেন, এদের সুর শুনে বোঝা যায়, নেপথ্যে কোনও ব্যাপার আছে।

 পশ্চিম বাংলাদেশ হওয়ার পরে এই রাজ্য

পশ্চিম বাংলাদেশ হওয়ার পরে এই রাজ্য

দিলীপ ঘোষের অভিযোগ, এই রাজ্যেকে পশ্চিম বাংলাদেশ গড়ার দিকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। সীমান্ত দিয়ে সিমি, জামাত, আলকায়দা ঢুকছে। বিদেশি জঙ্গিরা এখানে আশ্রয় পাচ্ছে। সমস্ত গ্যাংস্টার বা সমাজবিরোধীরা এখানে শেল্টার পাচ্ছে, ধরা পড়ছে। এখানে দেশ বিরোধী শক্তি সহযোগিতা পাচ্ছে। এখানে তাদের আধার কার্ড- রেশন কার্ড হয়ে যাচ্ছে। আৎ দেশের অন্যত্র গিয়ে এরা বিস্ফোরণ করাচ্ছে।

দিদির সুরক্ষা কবচকে কটাক্ষ

দিদির সুরক্ষা কবচকে কটাক্ষ

দিলীপ ঘোষ কটাক্ষ করে বলেছেন, দিদি বক ধার্মিক। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মুখ থেকে সত্যের বাণী শুনতে হবে, এটা তো একপ্রকার বিড়ম্বনা। বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি কটাক্ষ করে বলছেন, সারাজীবন যিনি মিথ্যা বলায় রেকর্ড করেছেন, মিথ্যা ছাড়া কিছু বলেননি, দেশের একতা ও অখণ্ডতার বিরুদ্ধে কাজ করেছেন, তিনি সত্যের কথা বলছেন, এটা সত্যিই বিড়ম্বনা।

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।