IND vs BAN: অশ্বিনের প্রশংসার উত্তরে নিজের মনের দুঃখের কথা শুনিয়েছিলেন লিটন

Advertisement

সদ্য শেষ হয়েছে ভারত-বাংলাদেশ টেস্ট সিরিজ। ঘরের মাঠে বাংলাদেশকে হারিয়েছে ভারত। বাংলাদেশের সঙ্গে দ্বিতীয় টেস্ট শুরুর চার দিন আগে টিম হোটেলের সুইমিংপুলে দুই দলের ক্রিকেটাররা মিলিত হয়েছিলেন। সেখানে অশ্বিন ও লিটনের মধ্যে অনেকক্ষণ কথাবার্তা হয় বলে জানা গিয়েছে। সেখানে একে অপরের প্রশংসা করেছেন দুই ক্রিকেটার। ক্রিকেটারদের বন্ধুত্বপূর্ণ ব্যবহার নজর কেড়েছে সবার।

টেস্ট শুরুর আগে অশ্বিন লিটনকে বলেন, যখন লিটনের প্রথম খেলা দেখেছিলেন, তখন তাঁর মনে হয়েছিল লিটন বিরাট কোহলি, কেন উইলিয়ামসন, জো রুট, স্টিভ স্মিথের পর্যায়ে পৌঁছাতে পারবেন। এ বিষয়ে অশ্বিন বলেন, ‘আমি লিটন দাসকে বলেছিলাম তোমাকে টেস্ট অভিষেকের সময় দেখেছি। ওর খেলা আমার সত্যি ভালো লাগে। আমি ওর খেলার পদ্ধতি দেখে ভেবেছিলাম লিটন বাংলাদেশের ক্রিকেটকে অনেক দূরে এগিয়ে নিয়ে যাবে।’

আরও পড়ুন: স্লেজিংয়ের চেষ্টা করেছিলেন মেহেদি-লিটন, কী ভাবে মুখ বন্ধ করেছিলেন, জানালেন অশ্বিন

শুধু লিটনের প্রশংসাই করেননি অশ্বিন। সেই সঙ্গে নাকি তাঁকে বিশেষ টিপসও দেন ভারতীয় দলরে সিনিয়র ক্রিকেটার। এই প্রসঙ্গে লিটন বলেন, ‘মীরপুরে দ্বিতীয় টেস্টের আগে সুইমিং পুলে অ্যাশ ভাইয়ের সঙ্গে আমার কথা হয়েছিল। তিনি আমাকে বলেছিলেন ২০১৫ সালে যখন তিনি আমাকে প্রথম বার দেখেছিলেন, তখন তিনি ভেবেছিলেন আমি বিরাট কোহলি, কেন উইলিয়ামসনদের মতো খেলোয়াড়ের পর্যায়ে পৌঁছতে পারব। কিন্তু আমি তাকে বলেছিলাম যে, তখন পরিস্থিতি আলাদা ছিল। একজন খেলোয়াড় যত বেশি উচ্চ স্তরে ক্রিকেট খেলবে, ততই ভালো পারফরম্যান্স করবে।’

আরও পড়ুন: চলছিল তাড়ানোর গুঞ্জন, তার আগেই নিজেই ইস্তফা বাংলাদেশের কোচ ডমিঙ্গোর

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা বেশি অ্যাওয়ে সিরিজ খেলি না। যদিও আমরা নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে খেলেছি। কিন্তু আমরা অস্ট্রেলিয়ায় দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলিনি। আমরা দক্ষিণ আফ্রিকা ভারত, পাকিস্তানেরই সঙ্গে বেশি ম্যাচ খেলি না। কোনও দল যখন সেরা চার-পাঁচটি দলের সঙ্গে বেশি ম্যাচ খেলবে না তখন সেই দল বা দলের খেলোয়াড়দের বেশি উন্নতি সম্ভব নয়।’

বাংলাদেশ ব্যাটার আরও বলেন, ‘যে ভারতীয় দল আন্তর্জাতিক ম্যাচের পাশাপাশি আইপিএলও খেলে যা তাদের প্লেয়ারদের উন্নতি করতে সাহায্য করে। অশ্বিন ভাইকে বলেছি ভারতীয় দল অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে নিয়মিত ক্রিকেট খেলে, তাই খেলোয়াড়রা উপকৃত হয়। এমনকি আইপিএল চলাকালীন ভারতীয় খেলোয়াড়রা এই ক্রিকেটারদের সাথে খেলার সুযোগ পায়। খেলোয়াড়রা যখন নিয়মিত শীর্ষ স্তরের ক্রিকেটারদের সঙ্গে খেলেন তখন অনেক কিছু শিখতে পারেন।’

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।