Ganga Arati: গঙ্গা আরতি হবে কোথায়?‌ কলকাতা পুরসভা বেছে নিল চারটি ঘাট

Advertisement

বারাণসীর মতো কলকাতায় নিয়মিত গঙ্গা আরতি হোক বলে কয়েকদিন আগে ইচ্ছাপ্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এমনকী বিষয়টি বাস্তবায়িত করতে কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিমকে পদক্ষেপ করার নির্দেশও দিয়েছেন তিনি। আর তারপরই গঙ্গা আরতির জন্য ঘাটের খোঁজে নেমেছে কলকাতা পুরসভা। এখন পুরসভার অফিসাররা গঙ্গা আরতির জন্য বড় মাপের ঘাটের খোঁজ করছেন। তবে সেই জায়গা মুখ্যমন্ত্রীর পছন্দ হতে হবে। তাহলেই কেল্লাফতে।

ঠিক কী জানা যাচ্ছে?‌ কলকাতা পুরসভা সূত্রে খবর, বেশ কয়েকটি ঘাট ঘুরে দেখেছেন কলকাতা পুরসভার ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের আধিকারিকরা। মেয়র পারিষদ তারক সিং এবং দেবাশিস কুমারও একাধিক গঙ্গার ঘাট পরিদর্শন করেছেন। তার মধ্যে কয়েকটি ঘাট প্রাথমিকভাবে পছন্দও হয়েছে। মোট চারটি ঘাট পছন্দের তালিকায় রয়েছে। সেগুলি হল— বাজে কদমতলা ঘাট, নিমতলা ঘাট, মিলেনিয়াম পার্কের ঘাট এবং আহিরীটোলা ঘাট। তবে মুখ্যমন্ত্রী কোনটিতে সিলমোহর দেন এখন সেটাই দেখার।

ঠিক কোথায় সমস্যা দেখা দিয়েছে?‌ একটি সমস্যা ভাবিয়ে তুলেছে পুরকর্তাদের। আর সেটা হল— মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন আরতির ঘাটে মন্দির থাকতে হবে। সেক্ষেত্রে প্রিন্সেপ ঘাট থেকে রানি রাসমণি ঘাট পর্যন্ত তেমন কোনও মন্দির নেই। বাবুঘাট অঞ্চল আবার সেনাবাহিনীর। তাই উত্তর কলকাতায় নিমতলা ঘাট কিংবা আহিরিটোলা লঞ্চ ঘাট সংলগ্ন নাদের ঘাট উপযুক্ত হতে পারে। সেখানে নামকরা মন্দির আছে। সেখানে গঙ্গা আরতি চালু করা সম্ভব। তবে, সেই জায়গাটি মুখ্যমন্ত্রীর পছন্দ হবে কি না সেটা এখনও বোঝা যাচ্ছে না।

কেন মিলেনিয়াম পার্ককে সামনে রাখা হচ্ছে?‌ মিলেনিয়াম পার্ক জোনে ওয়াকিং করিডর রয়েছে। যা প্রায় ৫০০ মিটার লম্বা এবং ৩০ মিটার চওড়া। সুতরাং সেখানে অনায়াসে গঙ্গা আরতি করা যেতে পারে। মানুষজন এখানে অনায়াসে তা দর্শন করতে পারবেন। কিন্তু এখানে আবার মন্দির নেই। তাহলে সেটা নির্মাণ করতে হয়। এখন গঙ্গা আরতির বিষয়ে পুরসভার অধিবেশনে প্রস্তাব নিয়ে আসার তোড়জোড় চলছে বলে খবর।

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।