বসিরহােট তৃণমূলের সংঘর্ষে আহত এক পুলিশকর্মী, TMC inner clash at Basirhat

Advertisement

বসিরহাটে ধুন্ধুমার
Advertisement

বসিরহাটে ধুন্ধুমার

বসিরহাটের শাকচুড়ায় গতকাল রাত থেকে এলাকা দখলকে কেন্দ্র করে দুই তৃণমূল কংগ্রেস নেতার মধ্যে সংঘর্ষ। গতকাল রাতে শাকচুড়া বাজার এলাকায় তুমুল সংঘর্ষ বাধে দুই তৃণমূল কংগ্রেস নেতার বিরুদ্ধে। সিরাজুল বেসে নামে স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেস নেতার সঙ্গে এলাকার আরেক তৃণমূল কংগ্রেস নেতার দীর্ঘদিন ধরে বিবাদ চলছিল। গতকাল রাতে তা চরমে ওঠে। দুই গোষ্ঠীর সঙ্গে সংঘর্ষ বাধে। তৃণমূল কংগ্রেস কার্যালকের কাছে বেশ কয়েক রাউন্ড গুলি চলার ঘটনা ঘটেছে।

গুলিবিদ্ধ পুলিশকর্মী

গুলিবিদ্ধ পুলিশকর্মী

বসিরহাটের শাঁকচুড়ায় তৃণমূল কংগ্রেসের গোষ্ঠী সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রণে গিয়ে আক্রান্ত হয়েছে পুলিশকর্মী। এক পুলিশ কনস্টেবলেন কাঁধে গুলি লাগে বলে জানা গিয়েছে। সঙ্গে সঙ্গে প্রভা সর্দার নামে ওই পুলিশ কনস্টেবলকে বারাসতের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সেখানেই তাঁর মঙ্গলবার অপারেশন হওয়ার কথা বলে জানা গিয়েছে। সূত্রের খবর গোষ্ঠী সংঘর্ষ থামাতে বেশ কয়েক রাউন্ড শূন্যে গুলি চালাতে হয় পুলিশকে। গতকাল রাতেই ঘটনাস্থলে যান বসিরহাটের পুলিশ সুপার জেবি থমাস। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গৌতম বন্দ্যোপাধ্যায়ও সেখানে গিয়েছেন। গোটা এলাকা থমথমে হয়ে রয়েছে।

 পার্টি অফিস থেকে উদ্ধার আগ্নেয়াস্ত্র

পার্টি অফিস থেকে উদ্ধার আগ্নেয়াস্ত্র

ঘটনার পর স্থানীয় তৃণমূল পার্টি অফিসে তল্লাশি চালায় পুলিশ। সূত্রের খবর সেখান থেকে প্রচুর আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার হয়েছে। স্থানীয় এক তৃণমূল কংগ্রেস নেতা কুতুবুদ্দিন গাজীর জানিয়েছেন, ঘটনার পর পুলিশ তৃণমূলের দলীয় কার্যালয়ে তল্লাশি চালিয়ে একাধিক অস্ত্র উদ্ধার হয়েছে। তৃণমূল কংগ্রেস নেতা নিজেই অস্ত্রমজুত রাখার কথা বলছে। তাতে রীতিমত আতঙ্ক ছড়িয়েছে এলাকায়। পঞ্চায়েত ভোটের আগে বসিরহাটে গোষ্ঠী সংঘর্ষের ঘটনায় উত্তেজনা বেড়েছে।

ফের বোমা উদ্ধার

ফের বোমা উদ্ধার

এদিকে পঞ্চায়েত ভোটের আগে ফের বোমা উদ্ধার দক্ষিণ ২৪ পরগনার কুলপিতে। বেশ কয়েকটি তাজা বোমা উদ্ধার করেছে পুলিশ। একের পর এক জেলা থেকে বোমা উদ্ধারের ঘটনায় উত্তেজনা বেড়েছে। বিজেপি অভিযোগ করেছেন জেলায় জেলায় গুলি বোমা মজুত করে হিংসার পরিবেশ তৈরি করতে চাইছে তৃণমূল কংগ্রেস। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য কয়েকদিন আগেই রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পুলিশ-প্রশাসনকে নাকা তল্লাশি বাড়ানোর নির্দেশ দিয়েছিলেন।

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।