ছাত্রদের গুলি করে মারার নির্দেশ দিয়েছেন উপাচার্য, অভিযোগে উত্তাল বিশ্বভারতী

Advertisement

নতুন রাজ্যপালের শপথগ্রহণের দিনেই উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে ধুন্ধুমার বাঁধল বিশ্বভারতীতে। জোর করে দরজা ভেঙে উপাচার্যের দফতরে ঢুকলেন বিক্ষোভকারীরা। বাধা দেওয়ার চেষ্টা করলেন নিরাপত্তারক্ষীরা। ঘটনায় এক ছাত্র ও এক নিরাপত্তারক্ষী অল্প আহত হয়েছেন।

ছাত্রছাত্রীদের অভিযোগ, বিশ্বভারতীতে শিক্ষার পরিবেশ নেই। যে কোনও বিষয়ে আপত্তি জানালে উপাচার্য শাস্তিমূলক পদক্ষেপ করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের নানা বিষয়ে অভিযোগ জানাতে গত ৫ দিন ধরে উপাচার্যের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে চাইছিলেন তাঁরা। কিন্তু প্রতিদিনই উপাচার্য তাঁদের অপেক্ষা করিয়ে দেখা করেননি। বুধবার একই ঘটনা ঘটে। অভিযোগ, উপাচার্য তাঁর নিরাপত্তারক্ষীদের বলেন, ‘ওদের গুলি করে মেরে দিন’ এর পরই ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন পড়ুয়ারা। উপাচার্যের দফতরের দরজা কার্যত ভেঙে ভিতরে প্রবেশ করেন তাঁরা। এর পর উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তীকে ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন তাঁরা।

দরজা ভেঙে ভিতরে ঢোকার সময় ছাত্রছাত্রীদের বাধা দেন উপাচার্যের দফতরের নিরাপত্তারক্ষীরা। ধস্তাধস্তিতে ১ ছাত্র ও ১ নিরাপত্তারক্ষীর আঘাত লাগে। মুহূর্তের মধ্যে রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় উপাচার্যের দফতর।

বিক্ষোভকারীদের দাবি, উপাচার্যের অপসারণ চাই। এই দাবিতে তাঁরা আরও বড় আন্দোলনে নামতে চলেছেন বলে জানিয়েছেন পড়ুয়ারা।

 

 

 

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।