মন্দ ইতিহাস, বেঞ্জিমাদের অভাব ভুলিয়ে অলিভিয়ের জিহুর জোড়া গোলে অস্ট্রেলিয়াকে উড়িয়ে দিল ফ্রান্স

Advertisement

ফ্রান্স: ৪ (‘২৭ আদ্রিয়েন ব়্যাবিয়ট। ‘৩২, ‘৭১ অলিভিয়ের জিহু। ‘৬৮ কিলিয়ান এমবাপে)

অস্ট্রেলিয়া: ১ (‘৯ ক্রেগ গুডউইন) 

সব্যসাচী বাগচী 

বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স (France) পরের বার কাপ যুদ্ধের প্রথম ম্যাচে হেরে যাওয়ার নজির আগেও গড়েছে। ১৯৯৮ সালের বিশ্বকাপ জয়ী ফ্রান্সকে প্রথম ম্যাচেই হারিয়ে দিয়েছিল অখ্যাত সেনেগাল (Senegal)। ২০০২ সালের ৩১ মে-তে আয়োজিত সেই ম্যাচে সেনেগালের হয়ে একমাত্র গোল করেছিলেন পাপা বউবা দিওপ। ৩০ মিনিটে তাঁর পা থেকে এসেছিল গোল। সেই হারের ক্ষত এখনও ভুলতে পারেনি জিনেদিন জিদানের (Zinedine Zidane) দল। গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নিয়েছিল ফ্রান্স। এরমধ্যে আবার সোমবার ফুটবল দুনিয়াকে চমকে দিয়েছে সৌদি আরব (Saudi Arabia)। লিওনেল মেসির (Lionel Messi) গোলে পিছিয়ে থেকেও ২-১ ব্যবধানে জয় ছিনিয়ে অঘটন ঘটিয়ে ফেলেছে। আর তাই আল বাখরার আল জনৌব স্টেডিয়ামে গতবারের বিশ্বজয়ীদের বিরুদ্ধে খেলতে নেমেছিল অস্ট্রেলিয়া (Australia)। ফের একবার লুসেল স্টেডিয়ামের রিমেক ঘটে যাবে না তো! দোলাচলে ছিল বিশ্ব ফুটবল। তবে এবার আর মন্দ ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি ঘটালেন না কিলিয়ান এমবাপে (Kylian Mbappe)-আন্তোনি গ্রিজমান (Antoine Griezmann)-উসমান দেম্বেলেরা (Ousmane Dembele)। 

প্রিসনেল কিম্পেম্বে-হীন ফ্রান্সের ডিফেন্সকে খেলার ৯ মিনিটেই কাঁপিয়ে দিয়েছিলেন অ্যাডিলেড ইউনাইটেডে খেলা ৩০ বছরের স্ট্রাইকার ক্রেগ গুডউইন। দুরন্ত গোলে অজিদের এগিয়ে তিনি। সঙ্গে সঙ্গে মাইক হাতে ধারাভাষ্যকাররা বলতে শুরু করে দিলেন, ‘এই রে আবার একটা অঘটন ঘটবে বলে মনে হচ্ছে! এমনিতেই বিশ্বজয়ী ফ্রান্স পরের বার খেলতে নেমে প্রথম ম্যাচ হড়কে যায়!’ কিন্তু সেটা হল না। পিছিয়ে থেকেও অজিদের ৪-১ ব্যবধানে হারিয়ে দিল গতবারের চ্যাম্পিয়ন। জোড়া গোল করে ম্যাচের নায়ক অলিভিয়ের জিহু (Olivier Giroud)। বাকি দুটি গোল করলেন আদ্রিয়েন ব়্যাবিয়ট (Adrien Rabiot) ও এমবাপে। 

এই নিয়ে টানা চারটি বিশ্বকাপে জাতীয় দলের দায়িত্ব সামলাচ্ছেন দিদিয়ের দেশঁ। এনগোলো কান্তে (N’Golo Kante), পল পোগবার (Paul Pogba) মতো তারকারা আগেই ছিটকে গিয়েছিলেন। কাতারে পা রাখার পর চোটের পেয়ে ছিটকে যান ডিফেন্ডার প্রেসনেল কিম্বেম্বে। চোট পেয়ে বাতিলে খাতায় নাম লিখিয়ে দেশে চলে গিয়েছেন দলের সবচেয়ে তারকা করিম বেঞ্জিমা। প্রথম গোল হজম করার পর মনে হচ্ছিল ডি’ওর জয়ী বেঞ্জেমা স্ট্রাইকারের চলে যাওয়াটা দেশঁ-র দলকে ভোগাবে। কিন্তু কোথায় কি! ম্যাচের বাকিটা সময় শুধুই দুবারের বিশ্বজয়ীদের দাপট। একাধিক গোলের সুযোগ হেলায় হারালেও, বারবার অস্ট্রেলিয়ার ডিফেন্ডারদের পরীক্ষা নিয়েছেন দিদিয়ের দেশঁ-র ফুটবলাররা। 

আরও পড়ুন: Lionel Messi, FIFA World Cup: মেসির আর্জেন্টিনাকে হারানোর পুরস্কার, বুধবার সৌদিতে রাষ্ট্রীয় ছুটি

আরও পড়ুন: FIFA World Cup 2022, ARG vs KSA: শুরুতেই অঘটন! সৌদির সবুজ-স্রোতে ভেসে গেল মেসির নীল-সাদা স্বপ্ন!

২৭ মিনিটে আদ্রিয়েন ব়্যাবিয়ট গোলে সমতা ফেরাল ফ্রান্স। অস্ট্রেলিয়া কর্নার ডিফেন্ড করার পর থিও হার্নান্ডেজ বলটি বক্সে ফেরত পাঠান। অজি কিপার ম্যাথিউ রায়ানকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে ব়্যাবিয়ট হেড গোল করে দলকে এগিয়ে দেন। ব়্যাবিয়ট যেখান থেকে খেলা ধরেছিলেন ঠিক সেখান থেকেই ধারাবাহিকতা বজায় রেখে, ৩২ মিনিটে দলের ব্যবধান বাড়িয়ে দেন অলিভিয়ের জিহু। ব়্যাবিয়টের মাপা পাস ধরে জিহু অজি ডিফেন্স ভেদ করে জালে বল জড়ান। আর সমতা ফেরানোর সৌজন্যে দেশের জার্সিতে গোলের হাফ সেঞ্চুরি করে ফেললেন জিহু। 

জিহুর গোলের ধাক্কা অস্ট্রেলিয়া কাটিয়ে উঠতে পারেনি। ঠিক এমন সময় বিপক্ষের জাল কাঁপিয়ে দিলেন কিলিয়ান এমবাপ্পে। ৬৮ মিনিটে ডেম্বেলে ডান দিক থেকে একটি লোভনীয় ক্রস বাড়ান। এবং এমবাপে দুই সেন্ট্রাল ডিফেন্ডারের মধ্যে দিয়ে হেড করে বল জালে জড়ান। ৩-১ এগিয়ে যায় ফ্রান্স। 

Advertisement

এই ম্যাচটা খেলতে নেমেই একটা রেকর্ড গড়ে ফেলেছিলেন জিহু। সবেচেয়ে বেশি ৩৬ বছর ৫৩ দিন বয়সে জাতীয় দলের বিশ্বকাপ খেলার নজির গড়েছিলেন। পিছনে ফেলেছিলেন প্রাক্তন গোলকিপার ফ্যাবিয়েন বার্তেজকে। তিনি ৩৫ বছর ১১ দিন বয়সে ফ্রান্সের হয়ে খেলেছিলেন। ৭১ মিনিটে ফের একটা গোল করে ছুঁয়ে ফেললেন ফ্রান্সের আর এক কিংবদন্তি থিয়ের অঁরির (Thierry Henry) নজির। দেশের জার্সি গায়ে চাপিয়ে ৫১টি গোল করেছিলেন থিয়ের অঁরি। জিহু এদিন সেই ক্লাবে নাম লেখালেন। 

আর এই জয়ের ফলে ফ্রান্স প্রমাণ করে দিল তারকাদের ছাড়াই দিদিয়ের দেশঁ-র দল তৈরি। করিম বেঞ্জিমা, পল পোগবা, এনগোলো কান্তে, প্রেসনেল কিম্বেম্বে থাকলে শক্তি অবশ্যই বাড়ত। তবে তাঁরা নেই বলে কান্নাকাটি করার কিছুই হয়নি। একইসঙ্গে অজিদের দাপটের সঙ্গে হারিয়ে মন্দ ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি ঘটাতে দিল না গতবারের বিশ্বজয়ী দল। ২৬ নভেম্বর ডেনমার্কের বিরুদ্ধে নামবে ফ্রান্স। ক্রিস্টিয়ান এরিকসেনের দল এদিন ড্র করেছে। ফলে দ্বিতীয় ম্যাচে ফ্রান্স জিতলেও অনায়াসে চলে যাবে পরের রাউন্ডে। 

(Zee 24 Ghanta App দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App) 

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।