নন্দীগ্রামে তৃণমূলের বিশেষ পরিকল্পনা, Nandigram special planning for TMC

Advertisement

 পঞ্চায়েত ভোটে প্রেস্টিজ ফাইট
Advertisement

পঞ্চায়েত ভোটে প্রেস্টিজ ফাইট

একুশের বিধানসভা ভোটের হারের বদলা চাই। শুভেন্দুর সঙ্গে কার্যত প্রেস্টিজ ফাইটে নেমেছে তৃণমূল কংগ্রেস। একুশের ভোটে তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে নন্দীগ্রাম জয় করেছিলেন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী। তারপর থেকে কার্যত নন্দীগ্রামের আন্দোলনকে তৃণমূল কংগ্রেসের হাত থেকে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছে শুভেন্দু অধিকারী। নন্দীগ্রাম আন্দোসনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কোনও অবদান নেই দাবি করেই প্রচারের ময়দানে নেমেিছলেন তিনি। তার পর থেকে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রেস্টিজ ইস্যু হয়ে গিয়েছে নন্দীগ্রাম। যেকোনও মূল্যে শুভেন্দুর হাত থেকে ছিনিয়ে নিতে মরিয়া চেষ্টা চালাচ্ছে শাসক দল।

নন্দীগ্রাম নিয়ে দড়ি টানাটানি

নন্দীগ্রাম নিয়ে দড়ি টানাটানি

পঞ্চায়েত ভোটে নন্দীগ্রাম জিততে মোরিয়া তৃণমূল কংগ্রেস। এখন থেকেই তার প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে তারা। কুণাল ঘোষকে মেদিনীপুরের দায়িত্ব দেওয়া হলেও বিশেষ নজর দেওয়া হয়েছে নন্দীগ্রামেই। দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই নন্দীগ্রাম নিয়ে তৎপর হয়েছেন কুণাল ঘোষ। নন্দীগ্রামে শহিদ স্মরণ অনুষ্ঠানে নিয়ে বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারীকে প্রকাশ্যে চ্যালেঞ্জ জানিয়েছিলেন কুনাল ঘোষ। পাল্টা শুভেন্দুও জমি ছাড়তে নারাজ। হুঙ্কার-পাল্টা হুঙ্কারে ফের তপ্ত নন্দীগ্রাম শিবির। এবার নন্দীগ্রাম আন্দোলনের কৃতিত্ব নিয়ে চলছে দড়ি টানাটানি।

শুভেন্দু ভার্সেস তৃণমূল কংগ্রেস

শুভেন্দু ভার্সেস তৃণমূল কংগ্রেস

নন্দীগ্রামে লড়াইটা হয়ে দাঁড়িয়েছে শুভেন্দুর সঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেসের। সেখানে বিজেপির তেমন গুরুত্ব নেই। অর্থাৎ শুভেন্দু গেরুয়া শিবিরের হলেও প্রতীকের থেকে বড় হয়ে দাঁড়িয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। তাই দুই পক্ষই মাটি কামড়ে পড়ে রয়েছেন। সেকারণেই শুভেন্দুর চ্যালেঞ্জ গ্রহন করে একুশের বিধানসভা ভোটে সেখানে নিজে প্রার্থী হয়েছিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো। সেখানে বিজেপি গুরুত্বপূর্ণ ছিল না। গুরুত্বপূর্ণ ছিল ব্যক্তি। সেই লড়াইয়ে যদিও হার স্বীকার করতে হয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেসকে। পঞ্চায়েত ভোটে সেই হারের বদলা নিতে মরিয়া শাসকদল।

নন্দীগ্রামে বিশেষ কর্মসূচি

নন্দীগ্রামে বিশেষ কর্মসূচি

নন্দীগ্রামে পঞ্চায়েত ভোটের আগে তৃণমূলের গোষ্ঠী দ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে এসেছে। কুনাল ঘোষের সামনেই বিক্ষোভ দেখিয়েছেন একদল তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী সমর্থক। সেই অসন্তোষ মিটিয়ে ফেলতে মরিয়া শাসক দল। সর্বশক্তি দিয়ে তাই ময়দানে নেমেছেন তাঁরা। নন্দীগ্রামে যে দুই ব্লকে বেশি অসন্তোষ দেখা গিয়েছে সেই দুই ব্লকে গিয়ে বাড়ি বাড়ি ঘুরে বিশেষ কর্মসূচি পালন করবে তারা। বাড়ি বাড়ি উঠোনে চাটাই পেতে বসে অভিযোগ শুনবেন তৃণমূল কংগ্রেস নেতারা। স্থানীয় নেতাদের পাশাপাশি কলকাতা থেকে আসবেন নেতারা এই কর্মসূচিতে যোগ দিতে।

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।