সকলের জন্য শৌচালয় কি খুব দূরের বিষয় ? বলে দিচ্ছে এই দিনটির উদযাপন…

Advertisement

জি ২৪ ঘণ্টা ডিজিটাল ব্যুরো: এ দেশে একদা স্বচ্ছ ভারত প্রকল্প নিয়ে খুব সাড়া পড়ে গিয়েছিল। তাতে একাংশ একটু আশ্চর্যই হয়েছিল হয়তো। কিন্তু, এটা যে কতখানি জরুরি বিষয় তা তাঁরা সেভাবে হয়তো উপলব্ধি করেননি। কেননা, শুধু ভারতে নয়, সারা বিশ্বেই এটা একটা বড় ধরনের সমস্যা। সেই সমস্যার মোকাবিলাতেই এইরকম একটি দিনের ভাবনা।   

কী সমস্যা? 

সারা বিশ্বে ৪.২ বিলিয়ন মানুষ নিরাপদ পয়ঃপ্রণালীর সুবিধা ছাড়াই বসবাস করেন এবং বিশ্বব্যাপী প্রায় ৬৭৩ মিলিয়ন মানুষ খোলা জায়গায় শৌচকর্ম করে থাকেন! একুশ শতকেও গ্লোবাল ভিলেজ এ বিশ্বে এটা একটা চোখে পড়ার মতো ঘটনা। এই সব বিষয়ে সচেতনতা বাড়াতেই বিশ্ব শৌচালয় দিবসের মতো একটি দিনের উদযাপন। বিশ্ব শৌচালয় দিবস বা বিশ্ব শৌচাগার দিবস বা বিশ্ব টয়লেট দিবস প্রতিবছর ১৯ নভেম্বরে পালিত হয়। রাষ্ট্রসংঘের সক্রিয় সহযোগিতায় আনুষ্ঠানিক ভাবে এই দিনটি পালিত হয়। 

আরও পড়ুন: International Men’s Day: শুধু নারী নয়, পুরুষও লিঙ্গবৈষম্যের মুখে পড়ে! তাই এই বিশ্ব পুরুষ দিবস…

কেন এরকম একটি দিন পালিত হয়?

এরকম একটি দিনের উদযাপন বিশ্বব্যাপী পয়ঃনিষ্কাশন সংক্রান্ত সংকট মোকাবিলায় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের সংকল্প গ্রহণ করতে সাহায্য করে। দিনটির অন্যতম লক্ষ্য– সকলের জন্য জল ও পয়ঃনিষ্কাশনের সুবিধা সুনিশ্চিত করা। বিশেষ লক্ষ্য হল, খোলা জায়গায় শৌচকর্ম একেবারেই বন্ধ করা। ২০২০ সালে রাষ্ট্রসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস বলেছিলেন, বিশ্ব জুড়ে শৌচ-ব্যবস্থা অত্যন্ত শোচনীয় এই পরিস্থিতিকে বদলাতেই হবে, ২০৩০ সালের মধ্যে এটা করতে হবে। তিনি বলেন, সামগ্রিক ভাবে শৌচালয়ের এই অবস্থা প্রকারান্তরে মানবাধিকার ব্যাহত করে, মানবজাতির স্বাভাবিক অগ্রগতিকেও তা পিছিয়ে দিচ্ছে।

বিশ্ব শৌচালয় দিবস সামগ্রিক ভাবে মানবজাতিকে এই সব লক্ষ্য অর্জনের জন্য প্রাণিত করে। রাষ্ট্রসংঘের সাধারণ পরিষদ ২০১৩ সালে এই বিশ্ব শৌচালয় দিবস পালনের কথা ঘোষণা করে। ১৯৩ টি সদস্য দেশের সামনে রাষ্ট্রসংঘ এই প্রস্তাব রাখে। এর আগে, সিঙ্গাপুরভিত্তিক একটি বেসরকারি সংস্থা ২০০১ সালে বিশ্ব শৌচালয় দিন পালন করার কথা প্রথম বলেছিল।  

(Zee 24 Ghanta App দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App) 

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।