আন্ডা সেলে ১০ দিন, জেল থেকে বেরিয়ে কী বললেন সঞ্জয় রাউত? । what has sanjay raut said about his life in jail

Advertisement

জি ২৪ ঘণ্টা ডিজিটাল ব্যুরো: সঞ্জয় রাউত, শিবসেনার উদ্ধব ঠাকরে গোষ্ঠীর একজন প্রবীণ নেতা এবং প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর ঘনিষ্ঠ সহযোগীদের একজন। শুক্রবার তিনি জানিয়েছেন যে জেলে থাকার সময় তাঁর দশ কেজি ওজন কমে গিয়েছে। মানি লন্ডারিং মামলায় একটি বিশেষ আদালত তাকে জামিন দেওয়ার কয়েকদিন পরে, রাউত বলেছিলেন যে তাকে একটি ‘আন্ডা সেলে’ রাখা হয়েছিল। সেখানে তিনি ১৫ দিন সূর্যের আলো দেখতে পাননি। তিনি বলেন, ‘কারাগারের ফ্লাডলাইটের সংস্পর্শে দীর্ঘক্ষণ থাকার কারণে আমার দৃষ্টিশক্তি এখন কমজোরি হয়ে গিয়েছে’। রাউত বলেন, ‘আমার পড়তে বা দেখতে অসুবিধা হয়। আমার শুনতে ও কথা বলতেও অসুবিধা হয়। আমাকে এটা সহ্য করতে হয়েছে কিন্তু কোনও বিষয় নয়’। তিনি আরও বলেন, ‘আপনার স্মৃতিশক্তিও ক্ষয় হতে শুরু করে’।

রাউত নিজেকে যুদ্ধবন্দীবলেছেন

নিজেকে ‘যুদ্ধবন্দী’ বলে অভিহিত করে, রাউত দাবি করেছিলেন যে তিনি যদি তাদের (বিজেপি) কাছে আত্মসমর্পণ করতেন বা ‘নিঃশব্দ দর্শক হয়ে থাকতেন তবে তাকে গ্রেফতার করা হত না’। তিনি বলেন, ‘আমি নিজেকে যুদ্ধবন্দী বলি। হ্যাঁ, সরকার মনে করে আমরা তাদের সঙ্গে যুদ্ধ করছি’।

রাউত বলেন যে তিনি মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখকে কারাগারে দেখেছেন এবং তাঁর স্বাস্থ্য ভাল নয়। দুর্নীতি এবং ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগে দেশমুখ জেলে রয়েছেন। তিনি বলেন, ‘সরকার কি শুধু যারা বিরোধী দলে তাদেরই গ্রেফতার করবে?’

ঠাকরে পরিবারের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে সঞ্জয় রাউত বলেন, ‘আমি যাই হয়েছি, বালাসাহেব ঠাকরে এবং ঠাকরে পরিবারের জন্যই’।

যাঁরা দল ছেড়েছেন তাঁদের বিষয়ে কী বলেছেন

উদ্ধব ঠাকরে বিরোধী এবং মহারাষ্ট্রের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী একনাথ শিন্ডের সঙ্গে নেতারা দল ছেড়ে যাওয়ার বিষয়ে, তিনি বলেছিলেন, ‘যারা দল ছাড়তে চান তারা যেতে পারেন, দল টিকে থাকবে এবং বাড়তে থাকবে’। মানুষ তার দলের সঙ্গে রয়েছে এবং কেবল বিধায়ক এবং নেতারা নিজেদের সুবিধার জন্য যাচ্ছে।

আরও পড়ুন: Exclusive Ananda Bose: ‘কোনও সংঘাত চাই না’, বার্তা বাংলার নবনিযুক্ত রাজ্যপালের

রাউত বলেন, ‘যারা চলে গেছে, অন্য কেউ তাদের নিয়ন্ত্রণ করছে… মহারাষ্ট্রে একটাই শিবসেনা’। তাঁর অভিযোগ, কিছু লোক শিবসেনাকে শেষ করার চেষ্টা করেছে।

সাভারকারকে নিয়ে রাহুল গান্ধীর মন্তব্যে এই প্রতিক্রিয়া

হিন্দুত্ববাদী মতাদর্শী সাভারকারের উপর রাহুল গান্ধীর আক্রমণের প্রতিক্রিয়া জানিয়ে সঞ্জয় রাউত সতর্ক করেছিলেন যে তার মন্তব্য মহারাষ্ট্রে মহা বিকাশ আগাড়ি (এমভিএ) জোটের ভবিষ্যতের ক্ষতি করতে পারে। তিনি বলেন, ‘অনেক কংগ্রেস নেতা আমার সঙ্গে কথা বলেছেন। এমন মন্তব্যে লজ্জিত মহারাষ্ট্র কংগ্রেস নেতারাও’।

একদিন আগে, উদ্ধব ঠাকরে বলেছিলেন যে তাঁর দল স্বাধীনতা সংগ্রামের সময় ব্রিটিশদের কাছে মার্জনার আবেদন চাওয়া হিন্দুত্ববাদী নেতা সাভারকারের বিষয়ে কংগ্রেস এমপি রাহুল গান্ধীর সমালোচনার সঙ্গে একমত নয়।

(Zee 24 Ghanta App দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App)

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।