অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাবা অমিত বন্দ্যোপাধ্যায়ের করা মামলাতে অস্বস্তি বাড়ল শুভেন্দু অধিকারীর। একেবারে সশরীরে তাঁকে হাজিরার নির্দেশ শোনাল আলিপুর আদালত।

Advertisement

অমিত বন্দ্যোপাধ্যায় সম্প্রতি একটি মানহানির মামলা করেন।
Advertisement

অমিত বন্দ্যোপাধ্যায় সম্প্রতি একটি মানহানির মামলা করেন।

বলে রাখা প্রয়োজন, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাবা অমিত বন্দ্যোপাধ্যায় সম্প্রতি একটি মানহানির মামলা করেন। যেখানে তিনি দাবি করেছেন, গত ২০ জুন শুভেন্দু অধিকারী প্রকাশ্যে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে বেশ কিছু চাঞ্চল্যকর অভিযোগ করেছেন। এমনকি অমিত বন্দ্যোপাধ্যায় ১ হাজার কোটি টাকার মালিক বলেও দাবি করেছেন। যা সম্পূর্ণ মিথ্যা এবং ভিত্তিহীন অভিযোগ বলে দাবি অমিতবাবুর। আর এরপরেই আইনজীবী মারফৎ শুভেন্দু অধিকারীকে নোটিশ পাঠান তিনি।

নিঃশর্ত ক্ষমা চাওয়ার কথা বলা হয়।

নিঃশর্ত ক্ষমা চাওয়ার কথা বলা হয়।

শুধু তাই নয়, নিঃশর্ত ক্ষমা চাওয়ার কথা বলা হয়। যদিও সেই নোটিশ সম্পূর্ণ ভাবে শুভেন্দু অধিকারী এড়িয়ে গিয়েছেন বলে অভিযোগ। অমিতবাবুর দাবি, এহেন মন্তব্যে তাঁর মানহানি হয়েছে। শুধু তাই নয়, তিনি রাজনীতির জগতের লোক নয়। অন্য জগতের মানুষ। শুভেন্দু অধিকারী উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে তাঁর মানহানি করেছেন বলে অভিযোগ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাবার। সমাজে তিনি অপমানিত হয়েছেন বলে মনে করছেন। আর এরপরেই এহেন মামলা! আর সেই মামলাতেই আলিপুর মুখ্য বিচার বিভাগীয় আদালত শুভেন্দু অধিকারীকে সশরীরে হাজিরার নির্দেশ দিয়েছে। যা নিয়ে নতুন করে অস্বস্তি বিরোধী দলনেতার বাড়বে বলেই মনে করছেন আইনজীবীমহল।

সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন শুভেন্দু

সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন শুভেন্দু

তবে কোনও কিছুতেই তিনি দমার পাত্র না তা কার্যত আজ ফের একবার বুঝিয়ে দিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। আজ শুক্রবার বিধানসভাতে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন তিনি। আর সেখান থেকে ফের একবার লিপস অ্যান্ড বাউন্ডস কোম্পানি নিয়ে আক্রমণ শানিয়েছেন। বিরোধী দলনেতা বলেন, চার্জশিটে রয়েছেন ২০১৪-১৫ আর্থিক বছর নিয়ে পরপর তিন বছর সুভাষ আগরওয়ালের কোম্পানির মাধ্যমে টাকা গিয়েছে লিপস অ্যান্ড বাউন্ডস কোম্পানিতে। প্রসঙ্গত এই কোম্পানি দুই ডিরেক্টর বলেন লতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং অমিত বন্দ্যোপাধ্যায়। যা কাজ শুরু করে ২০১২-র ১৯ এপ্রিল। বলে রাখা প্রয়োজন, সিবিআইয়ের একটি চার্জশিটের কথা উল্লেখ করে একাধিক অভিযোগ করেছেন বিরোধী দলনেতা।

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।