Sourav Ganguly case in High Court: ষড়যন্ত্র করে BCCI থেকে সরানো হয় তাঁকে? সৌরভের সাক্ষ্যতে হাই কোর্টে খারিজ মামলা

Advertisement

বিসিসিআই সভাপতি পদ থেকে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে নাকি ষড়যন্ত্র করে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল। এই অভিযোগ করে কলকাতা হাই কোর্টে দ্বারস্থ করা হয়েছিল জনস্বার্থ মামলা। তবে সৌরভের সাক্ষ্যেই সেই মামলা খারিজ হয়ে গেল। এদিকে মামলাকারীকে জরিমানা করা হয়েছিল। পরে অবশ্য সেই জরিমানা মুকুব করে দেওয়া হয়। সোমবার এই সংক্রান্ত শুনানি চলাকালীন ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন অধিনায়কের পক্ষে উপস্থিত হওয়া আইনজীবী বলেন, ‘রজার বিনি বিসিসিআই সভাপতি হওয়ায় সৌরভের কোনও আপত্তি নেই।’ এই সাক্ষ্যর পরই কলকাতা হাই কোর্টের প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তব এবং বিচারপতি রাজর্ষি ভরদ্বাজের ডিভিশন বেঞ্চ মামলাটি খারিজ করে দেন।

এদিকে মামলাটি খারিজ করে দেওয়ার পর মামলাকারী আইনজীবী রমাপ্রসাদ সরকারকে জরিমানা করা হয়েছিল হাই কোর্টের তরফে। যদিও পরবর্তীতে উচ্চ আদালতের তরফে সেই জরিমানা মুকুব করা হয়। এদিকে এই মামলার শুনানি চলাকালীন কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে জানানো হয়, বিসিসিআই একটি স্বাধীন সংস্থা। এই আবহে নিজেদের পদ্ধতি অনুসরণ করে সভাপতি নির্বাচন করতে পারে। এই আবহে কেন্দ্রের বক্তব্য ছিল, এই সংক্রান্ত কোনও জনস্বার্থ মামলা আদালত গ্রহণ করতে পারে না।

এদিকে শুনানি চলাকালীন উচ্চ আদালতে সৌরভের আইনজীবী বলেন, ‘নিয়ম অনুযায়ী বিসিসিআইয়ের সভাপতি পদে তিন বছর পূরণ করেছেন সৌরভের গঙ্গোপাধ্যায়। সৌরভ পরবর্তী সভাপতিকে নির্বাচনের মাধ্যমেই নিয়োগ করা হয়েছে। সেই নির্বাচনে আর মনোনয়ন জমা দেননি সৌরভ। রজার বিনি বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নতুন সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন। রজার বিনির প্রতি সৌরভের পূর্ণ সমর্থন রয়েছে।’ এই বয়ানের পর আদালত মামলাকারীকে জরিমানা করে। যদিও পরে সৌরভের আইনজীবীকে প্রশ্ন করা হয়, মামলাকারীকে জরিমানা করার পক্ষে মত আছে কিনা। জবাবে সৌরভের আইনজীবী জানান, মামলাকারীর জরিমানা হোক, তা তারা চান না। এরপর মামলাকারীকে জরিমানা মুকুব করা হয়।

 

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।