Varun Dhawan : ‘সূর্যোদয় আমার কাছে এখন ভীষণই গুরুত্বপূর্ণ…’, বলছেন অসুস্থ বরুণ

Advertisement

Varun Dhawan, Vestibular Hypofunction, জি ২৪ ঘণ্টা ডিজিটাল ব্যুরো : বিরল রোগে আক্রান্ত বরুণ ধাওয়ান। সম্প্রতি, এক সাক্ষাৎকারে সেকথা নিজেই খোলসা করেছিলেন অভিনেতা। জানিয়েছিলেন ‘ভেস্টিবুলার হাইপোফাংশন’-এ আক্রান্ত তিনি। যে রোগের কারণে শরীরের ভারসাম্য নষ্ট হয়ে যায়। কিন্তু এখন কেমন আছেন তিনি? সেবিষয়টিও সকলকে নিজেই জানালেন বরুণ। নিজের শারীরিক পরিস্থিতি নিয়েই সোমবার রাতে একটি ট্যুইট করেন অভিনেতা। কিন্তু তাতে ঠিক কী লিখেছেন বরুণ?

ট্যুইটে বরুণ ধাওয়ান লেখেন, বন্ধুরা সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে আমি জানিয়েছিলাম, আমার স্বাস্থ্য ১০০ শতাংশ ঠিক নেই। তবে একথা জানার পর বহু মানুষ যেভাবে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছিলেন, ভালোবাসা দেখিয়েছিলেন, তাতে আমি আপ্লুত। আর এটা আমায় ১০০ শতাংশ সুস্থ হয়ে ফিরতে সাহায্য করবে। বরুণ আরও লেখেন, ‘আমি সকলকে জানাতে চাই, আমি আমার জীবনযাপনে আমূল পরিবর্তন এনেছি। আমি সাঁতার কেটে, যোগা করে, ফিজিওথেরাপি করে সুস্থ হয়ে ওঠার চেষ্টা করছি। প্রতিদিনের সূর্যোদয় আমার কাছে এখন ভীষণই গুরুত্বপূর্ণ। আর সবকিছুর উপর ঈশ্বরের আশীর্বাদ তো রয়েছেই।’ 

আর পড়ুন-৯ হাজার কোটির তছরুপ! এবার সেই বিজয় মালিয়ার ভূমিকায় অনুরাগ কাশ্যপ…

সম্প্রতি, নিজের শারীরিক সমস্যা নিয়ে একটি চ্যানেলের কনক্লেভে মুখ খুলেছেন অভিনেতা বরুণ ধাওয়ান। জানিয়েছেন, বিরল রোগে আক্রান্ত তিনি। কী হয়েছে তাঁর? বরুণ জানাচ্ছেন, তিনি ‘ভেস্টিবুলার হাইপোফাংশন’-এ আক্রান্ত। বরুণ জানান, ‘আমি এখন প্রায় সবকিছু বন্ধ করে দিয়েছি। জানি না, আমার ঠিক কী হয়েছে! আমি ভেস্টিবুলার হাইপোফাংশনে আক্রান্ত। যাতে শরীরের ভারসাম্য নষ্ট হয়ে যায়। কিন্তু তারপরেও আমি নিজেকে কঠোর পরিশ্রমের দিকে ঠেলে দিয়েছি। আমরা সকলেই দৌড় প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছি। কিন্তু কেউ প্রশ্ন করছেন না কেন? আমার মনে হয় মহান কোনও উদ্দেশ্য নিয়েই আমরা এখানে এসেছি। আমি আমারটা খুঁজে বের করার চেষ্টা করছি। আশারাখি, অন্যরাও তাঁদের সেই উদ্দেশ্য খুঁজে নেবেন।’

আরও পড়ুন-ট্যুইটার নিয়ে এলন মাস্ককে বিশেষ পরামর্শ কঙ্গনার…

ভেস্টিবুলার হাইপোফাংশন কি? জানা যাচ্ছে, এটি কোনও আঘাত লাগার কারণে, সংক্রমণের কারণে, জেনেটিক কারণে কিংবা স্নায়ুজনিত কারণেও হতে পারে। এটা তখনই হয়, যখন কানের অভ্যন্তরীণ অংশটি ঠিক করে কাজ করে না। ভেস্টিবুলার সিস্টেমটিই কানের অভ্যন্তরীণ অংশে রয়েছে। এটি চোখ, পেশী, স্নায়ুর ভারসাম্য বজায় রাখতে সাহায্য করে।আমাদের কানের ভিতরের অংশে একাধিক তরুণাস্থি, স্নায়ু রয়েছে। যার ভিতরের অংশে একটি তরলে পূর্ণ। এই তরলের সাহায্য এই কানের স্নায়ুগুলি বিভিন্ন শব্দ মস্তিষ্কে পৌঁছে দেয়।  ভেস্টিবুলার হাইপোফাংশনে আক্রান্ত হয় কান ও মাথার ভারসাম্যা নষ্ট হয়। এটা মস্তিষ্কের একদিকে কিংবা দুইদিকেই হতে পারে। ভেস্টিবুলার হাইপোফাংশন হলে রোজকার জীবনে এর প্রভাব পড়ে। এর কারণে হাঁটাচলা, লেখা পড়ার ক্ষেত্রে উঁচুনিচু রাস্তায় হাঁটার ক্ষেত্রে সমস্যা হতে পারে। এমনকি এই সমস্যার কারণে অনেকসময় স্মৃতিশক্তিও কমে যায়।বরুণ জানিয়েছেন, তিনি ভেস্টিবুলার হাইপোফাংশনে আক্রান্ত জানতে পেরে ভীষণ ভাবেই ভেঙে পড়েছিলেন। পড়ে নিজেকে বুঝিয়েছেন, তবে এই সমস্যা থেকে বের হয়ে আসার বিষয়ে তিনি আত্মবিশ্বাসী বলেও জানিয়েছিলেন। 

(Zee 24 Ghanta App দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App)

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।