Krishak Bondhu: কৃষকবন্ধুর টাকা পেতে দিতে হচ্ছে ‘কাটমানি’, আদালতের দ্বারস্থ ২২ মৃত কৃষকের পরিবার

Advertisement

গত লোকসভা ভোটের আগে রাজ্য সরকার কৃষকবন্ধু প্রকল্প চালু করে রাজ্যে। কিন্তু সেই প্রকল্পের টাকা পেতে গেলে দিতে হচ্ছে কাটমনি —এই অভিযোগ জানিয়ে হাই কোর্টের দ্বারস্থ হলেন মুর্শিদাবাদ জেলার ২২ জন মৃত কৃষকের পরিবার। তাঁদের অভিযোগ জেলার একাধিক বিডিও অফিসে সক্রিয় রয়েছে ‘দালালচক্র’। টাকা পাইয়ে দেওয়া নামে ৪০ শতাংশ ‘আগ্রিম’ চাওয়া হচ্ছে। এ নিয়ে জনস্বার্থ মামলাটি সোমবার শুনবে বিচপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তব এবং বিচারপতি রাজর্ষী ভরদ্বাজের ডিভিশন বেঞ্চ।

এই প্রকল্প অনুযায়ী ১৮ থেকে ৬০ বছর বয়সি কোনও কৃষকের মৃত্যু হলে তার পরিবারকে এককালীন ২ লক্ষ টাকা করে আর্থিক সাহায্য দেওয়া হয়। মৃত ২২ কৃষকের পরিবারের অভিযোগ, আবেদন জানাতে গেলে তা সরাসরি নিচ্ছে না বিডিও অফিস। বলা হচ্ছে ‘থার্ড পার্টির’ (যারা এই টাকা পাওয়ার আবেদন করতে সহয়তা করবেন) মাধ্যমে আবেদন জানাতে। বিডিও অফিসের কথামতো সেই ‘থার্ডপার্টি’র কাছে গেল তারা মোট অঙ্কের ৪০ শতাংশ অর্থাৎ ৮০হাজার টাকা অগ্রিম হিসাবে চাইছেন। কৃষক পরিবারের অভিযোগ, মুর্শিদাবাদ জেলার একাধিক বিডিও অফিসে এই কাটমানি চক্র চলছে। মামলাকারীরা মুর্শিদাবাদের রানিনগর-১, ডোমকল, বহরমপুর বিডিও অফিসের দিকে আঙুল তুলে তাদের এই মামলায় যুক্ত করেছেন। সোমবার মামলার শুনানি। শুনানিতে কী বলে আদালত সে দিকেই তাকিয়ে ২২ মৃত কৃষকের পরিবার।

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।