করোনাতে রক্ষা পেলেও রাজ্যে ক্রমশ ভয়াবহ হচ্ছে ডেঙ্গু! প্রত্যেকদিনই কার্যত বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। ইতিমধ্যে রাজ্যে সংক্রমণের সংখ্যা প্রাউ ৫০ হাজারের কাছাকাছি।

Advertisement

 একহাত নিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী
Advertisement

একহাত নিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী

কেন্দ্রকে লেখা চিঠিতে কার্যত রাজ্যকে একহাত নিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। ইতিমধ্যে ওই চিঠি তাঁর সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট করেছেন তিনি। প্রায় চারপাতার চিঠিতে ডেঙ্গু নিয়ে সরকার যে সম্পূর্ণ ভাবে উদাসীন সে বিষয়ে বিস্তারিত অভিযোগ করেছেন বিরোধী দলনেতা। শুধু তাই নয়, আসল তথ্য ডেঙ্গু নিয়ে লুকানো হচ্ছে বলে অভিযোগ। এমনকি রক্তপরীক্ষাও ঠিক ভাবে করা হচ্ছে না বলে অভিযোগ শুভেন্দু অধিকারীর। বাংলায় ডেঙ্গু কার্যত মহামারী আকার ধারণ করেছে বলেও দাবি তাঁর।

ডেঙ্গু পরিস্থিতি যথেষ্ট উদ্বেগজনক

ডেঙ্গু পরিস্থিতি যথেষ্ট উদ্বেগজনক

বাংলাকে ডেঙ্গু পরিস্থিতি যথেষ্ট উদ্বেগজনক। এই অবস্থায় কেন্দ্রের কাছে কার্যত সাহায্য চেয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। এক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ কেন্দ্রের নেওয়ার আর্জিও জানিয়েছেন তিনি। বিরোধী দলনেতার মতে, রাজ্যের স্বাস্থ্য বিভাগের যারা ডেঙ্গি মোকাবিলার দায়িত্বপ্রাপ্ত এবং উদাসীন ভাবে কাজ করছেন তাঁদের বিরুদ্ধে কেন্দ্রের ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও তাঁর লেখা চিঠিতে জানিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। এমনকি আইন মোতাবেক ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানানো হয়েছে।

এক নজরে গোটা পরিস্থিতি

এক নজরে গোটা পরিস্থিতি

তবে ডেঙ্গু নিয়ে কেন্দ্রকে শুভেন্দু অধিকারীর চিঠি নিয়ে শুরু হয়েছে জোর রাজনৈতিক তরজা। যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামো বিরোধী দলনেতা মানছেন না বলেও আক্রমণ শাসক দলের। তবে ডেঙ্গু রুখতে জন সচেতনতা প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেছেন রাজ্যের মেয়র ফিরহাদ হাকিম। অন্যদিকে বলে রাখা প্রয়োজন, যে তিনজনের গত ২৪ ঘন্টাতে মৃত্যু হয়েছে ডেঙ্গুতে তাঁরা হলেন সোমনাথ দে, বুবাই হাজরা এবং সৈয়দ মহলাদারের। সোমনাথবাবু কেষ্টপুরের বাসিন্দা। সল্টলেক আমরিতে চিকিৎসাধীন ছিলেন। এনআরএসেই ট্যাংরার বাসিন্দা বুবাইয়ের মৃত্যু হয়। সৈয়দ গত কয়েকদিন ধরে রুবিতে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।