Sonarpur: ২ মাস ধরে রেশন বন্ধ, প্রতিবাদ করতেই সিপিএম কর্মীদের মারধর, কাঠগড়ায় তৃণমূল

Advertisement

দক্ষিণ ২৪ পরগনার ভাঙড়ের বানতলায় সিপিএমের মিছিলে হামলার রেশ কাটতে না কাটতেই এবার সোনারপুরে সিপিএম কর্মীদের মারধরের অভিযোগ উঠল। আবারও কাঠগড়ায় তৃণমূল কংগ্রেস। দুমাস ধরে রেশন সামগ্রী না দেওয়ার অভিযোগে প্রতিবাদ করে সিপিএম। সেই মিছিলেই তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা হামলা চালায় বলে অভিযোগ। ঘটনায় মাথা ফেটে যায় এক সিপিএম কর্মীর। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে সোনারপুরের পঞ্চবটি এলাকা।

সিপিএম কর্মীদের অভিযোগ ছিল, ডিলার এলাকার বাসিন্দাদের রেশন দিচ্ছেন না। এ নিয়ে প্রতিবাদ গড়ে তুলতে এলাকায় সিপিএমের পক্ষ থেকে পোস্টারিং করা হয়। তার জেরেই এই ঘটনা বলে অভিযোগ। সিপিএমের দাবি, আজ রবিবার ২২ ওয়ার্ডের দলের পুরপ্রার্থী রতন মজুমদার ক্লাবে বসেছিলেন। সেই সময় কয়েকজন দুষ্কৃতী এসে তাকে তুলে নিয়ে মারধর করে। তাকে বাঁচাতে গিয়ে আক্রান্ত হন আরেক সিপিএম কর্মী সঞ্জীব বিশ্বাস। ঘটনায় তার মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। দুজনকে প্রথমে সুভাষগ্রাম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে সেখান থেকে তাদের বারুইপুর মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এই ঘটনায় অভিযোগের আঙুল উঠেছে রাজপুর টাউন তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি শিবনাথ ঘোষের ভাইপো চিরঞ্জিত ঘোষের বিরুদ্ধে। সিপিএমের অভিযোগ, চিরঞ্জিত ঘোষ, রঞ্জন বিশ্বাসের নেতৃত্বে ২০ থেকে ২৫ জনের একটি দল তাঁদের মারধর করেছে। ঘটনায় সোনারপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। যদিও অভিযোগের কথা অস্বীকার করেছেন শিবনাথ ঘোষ। তার বক্তব্য, এর সঙ্গে তৃণমূলের লোকজন জড়িত নেই। সাধারণ মানুষই সিপিএমের লোকেদের মারধর করেছে।

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।