MCFC vs ATKMB | ISL 2022-23: মুম্বই কাঁটায় ফের বিদ্ধ এটিকে মোহনবাগান! ১০ জনে খেলে ড্র করল সবুজ-মেরুন

Advertisement

মুম্বই সিটি এফসি: চাংতে ৪’, গ্রিফিথস ৭২’ এটিকে মোহনবাগান: কাউকো ৪৭’,  ম্যাকহিউ ৮৮’

জি ২৪ ঘণ্টা ডিজিটাল ব্যুরো: বদলাল না ইতিহাস। ঘুরল না ভাগ্যের চাকা! মুম্বই সিটি এফসি-র (Mumbai City FC) বিরুদ্ধে এবারও জেতা হল না এটিকে মোহনবাগানের (ATK Mohun Bagan)। রবিবার আইএসএলে (ISL 2022-202) মুম্বই এফসি নিজেদের ঘরের মাঠ মুম্বই ফুটবল এরিনায় ( Mumbai Football Arena) ২-২ ড্র করল এটিকে মোহনবাগানের (MCFC vs ATKMB) বিরুদ্ধে। ডার্বিতে ইস্টবেঙ্গলকে (East Bengal) হারিয়ে আত্মবিশ্বাস তুঙ্গে ছিল জুয়ান ফেরান্দোর শিষ্যদের। কিন্তু এদিন ডি বাকিংহ্যামের ছেলেদের বিরুদ্ধে  পয়েন্ট ভাগাভাগি করেই নিত হল। পুরো তিন পয়েন্ট নিয়ে কলকাতায় ফেরা হচ্ছে না মেরিনার্সদের। 

পরিসংখ্যান বলছে, এই ম্যাচের আগে পর্যন্ত মুম্বই-এটিকে মোহনবাগানের যতবার সাক্ষাৎ হয়েছে, ততবারই গঙ্গাপাড়ের শতাব্দী প্রাচীন ক্লাব আটকে গিয়েছে। এদিনও তার ব্যতিক্রম ঘটল না। মুম্বইয়ের কাছে চারবার হেরেছে সবুজ-মেরুন বাহিনী। আর এদিনের ম্যাচ নিয়ে তিনবার ড্র হল। এদিন ফেরান্দোর শিষ্যদের লক্ষ্য ছিল তিন পয়েন্ট নিয়ে আইএসএল-এর টেবিলে প্রথম চারে আসা। কিন্তু সেই আশাপূরণ হল না। প্রথমার্ধের চার মিনিটেই মুম্বইকে এগিয়ে দিয়েছিলেন বছর পঁচিশের মিজো ফরোয়ার্ড লালিয়ানজুয়ালা চাংতে। এটিকে মোহনবাগানের দুর্বল রক্ষণের সুযোগ নিয়ে অসাধারণ গোল করে দলকে ১-০ এগিয়ে দেন তিনি। বক্সের বাইরে থেকে দুরন্ত কাট করে দূরপাল্লার আগুনে শট নেন তিনি গোলপোস্ট লক্ষ্য করে। প্রথমে মনে করা হয়েছিল যে, বল গোললাইন ক্রস না করেই বেরিয়ে এসেছে। গোল নিয়ে সাময়িক সন্দেহ দানা বেঁধেছিল। কিন্তু পরে দেখা যায় বল গোল-লাইন ক্রস করে। রেফারি বৈধ গোল হিসাবেই গণ্য করেন। এরঠিক তিন মিনিট পর এটিকে মোহনবাগান এগিয়ে যেতে পারত। কিন্তু পেটাত্রোসের পাস থেক লিস্টনের শট ক্রসবারে লেগে ফিরে যায়। এরপর মুম্বই খেলার রাশ ধরে নেয় ঠিকই। কিন্তু ২৯ ও ৩১ মিনিটে হুগো বুমোস ও মনবীর সিং যেরকম গোলের সুযোগ নষ্ট করলেন, তারপর আর কিছু বলার থাকে না। এরপর বিরতির ঠিক চার মিনিট আগে মনবীর আবার গোলের সুযোগ হাতছাড়া করেন।

আরও পড়ুন- East Bengal FC vs Chennaiyin FC | ISL 2022-2023: ভুরি ভুরি গোলের সুযোগ নষ্ট! ফের হারল ইস্টবেঙ্গল

দ্বিতীয়ার্ধে মোহনবাগানকে অনেক বেশি সংঘবদ্ধ দেখায় প্রথমার্ধের তুলনায়। ৪৭ মিনিটেই গোলের দেখা পেয়ে যায় এটিকে মোহনবাগান। বুমোস-কোলাসো-কাউকোর মিলিত প্রয়াসে অবশেষে গোল আসে। কাউকোর নীচু করা শটে ব্যবধান কমায় সবুজ-মেরুন। ৬৯ মিনিটে ছন্দহীন কোলাসোকে তুলে ফেরান্দো আশিক কুরুনিয়ানকে নামান। কিন্তু ৭২ মিনিটে ফের গোল করে এগিয়ে যায় মুম্বই। রস্টিন গ্রিফিথস গোল করে স্কোরলাইন ২-০ করেন। কিন্তু এই গোল নিয়েও বিতর্ক হয়। গোলকিপার বিশাল কাইতকে গার্ড করার অভিযোগ তোলেন এটিকে মোহনবাগানের ফুটবলাররা। গ্রিফিথস ও কাইতের মধ্যে ধাক্কাধাক্কিও হয়। ২-০ গোলে পিছিয়ে থাকা দলকে আরও পিছিয়ে দেন লেনি রডরিগেজ। ৭৪ মিনিটে তিনি মুম্বইয়ের স্টুয়ার্টকে পিছনে হাঁটু দিয়ে ধাক্কা মেরে সরাসরি লাল কার্ড দেখেন। যদিও স্টুয়ার্ট আগে ফাউল করেছেন বলেই অনেকে দাবি জানিয়েছেন। ৮৫ মিনিটে ফেরান্দো জোড়া পরিবর্তন করেন দলে। বুমোস ও আশিস রাইকে তুলে কার্ল ম্যাকহিউ ও কিয়ান নাসিরিকে নামান। ম্যাকহিউ মাঠে নেমেই গোল করেন। দশ জনে পরিণত হওয়া দলের মনোবল বাড়িয়ে দেয় তাঁর দুরন্ত হেডে গোলটি। আরও আক্রমণের ঝাঁঝ বাড়ায় এটিকে মোহনবাগান। নির্ধারিত সময়ের শেষে অতিরিক্ত চার মিনিট যোগ করা হয়। একদম শেষ মুহূর্তের খেলাও টানটান উত্তেজনায় ভরপুর ছিল। মুম্বই একেবারে গোলের কাছে এসেও গোল হাতছাড়া করে বসে। নাহলে এটিকে মোহনবাগান হেরেই যেত ম্যাচ। 

 (Zee 24 Ghanta App দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App) 

 

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।