একসঙ্গে এলন মাস্ক আর ট্যুইটারের কড়া সমালোচনা করে যা বললেন জো বাইডেন…

Advertisement

জি ২৪ ঘণ্টা ডিজিটাল ব্যুরো: এবার আসরে মার্কিন প্রেসিডেন্ট। ট্যুইটারের দিকে তোপ দাগলেন জো বাইডেন। অন্তত এই একটি দিক থেকে তাঁর পূর্বসূরী ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে তাঁর মিল হল। ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গেও ট্যুইটারের খটাখটি ছিল। ট্রাম্পের অ্যাকাউন্ট সাময়িক বন্ধও করে দিয়েছিল ট্যুইটার কর্তৃপক্ষ। এবার বাইডেনের সঙ্গেও হয়তো ট্যুইটারের তিক্ততা শুরু হতে চলল।  

ট্যুইটারের মালিকানা হস্তান্তর হয়েছে এক সপ্তাহ হল। ট্যুইটারের নতুন মালিক টেসলা কর্তা এলন মাস্ক। তবে তাঁর ট্যুইটার অধিগ্রহণের প্রথম থেকেই  নানা বিতর্ক তাড়া করছে এলনকে। এলন ট্যুইটারের মালিক হওয়ার পরই এর সিইও পরাগ আগরওয়াল-সহ একাধিক আধিকারিকের চাকরি গিয়েছে। সংস্থার বাজেটে রাশ টানতে সম্প্রতি আরও কয়েকজনকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করেছেন এলন। এলন দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকেই ট্যুইটার-কর্মীরা সংশয়ে, আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন। এর মধ্যে সপ্তাহে ১২ ঘণ্টা কাজ করার নিদান দিয়েছেন এলন। ফলে, এখন সপ্তাহের প্রতিদিনই ১২ ঘণ্টা করে কাজ করছেন কর্মীরা। অফিসেই কাটিয়ে দিচ্ছেন রাত। এই আবহে এলনের ট্যুইটার কেনার সিদ্ধান্তের সমালোচনা করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। শুধু তাই নয়, তিনি সটান বলে দিলেন, ট্যুইটার মিথ্যে খবর ছড়ায়!

আরও পড়ুন: Twitter | India Employees | Elon Musk: কী শুরু করেছেন ট্যুইটার বস! প্রায় সকল ভারতীয় কর্মীকে ছাঁটাই করলেন এবার

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এলন মাস্কের ট্যুইটার কেনার সিদ্ধান্তের সমালোচনা করে বলেন, বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি এমন একটি মাধ্যম কিনেছেন যা বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে মিথ্যে ছড়ায়। শুক্রবার শিকাগোতে তহবিল সংগ্রহ সংক্রান্ত এক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে বাইডেন বলেন– এখন আমরা কী নিয়ে সকলে চিন্তিত বলুন তো? এলন মাস্কের ট্যুইটার কেনা। তিনি এমন একটি সংস্থা কিনলেন যা বিশ্বের কোণায় কোণায় মিথ্যে ছড়ায়। … এখন আর কোনও এডিটর রইল না। শিশুরা আমাদের বিপদটা পুরোপুরি বুঝবে, এমনটাই-বা আমরা কীভাবে আশা করতে পারি?

এ মাসের প্রথম দিকে ৪৪ বিলিয়ন ডলারের বিনিমেয় ট্যুইটার কিনে নেন এলন মাস্ক। সেই লগ্নেই একাধিক মহল থেকে দাবি করা হয়েছিল, টুইটার অধিগ্রহণের পরই একগুচ্ছ পরিবর্তন আনার পরিকল্পনা করছেন মাস্ক। হচ্ছেও তাই।  ইতিমধ্যেই ব্লু টিক দেওয়া অ্য়াকাউন্টের ক্ষেত্রে বড় পরিবর্তন ঘোষণা করেছেন মাস্ক। এখন থেকে তাঁদের টাকার বিনিময়ে ব্লু টিক কিনতে হবে বলে জানানো হয়েছে। এখন থেকে ব্লু টিকের জন্য মাসে প্রায় আট ডলারের (প্রায় ৭০০ টাকা) মতো অতিরিক্ত খরচ করতে হবে। তা ছাড়া, সংস্থার লে-অফ, কর্মসময় বৃদ্ধি ইত্যাদি নানা বড় ধরনের পরিবর্তন এনে কর্মীদের জীবন ওষ্ঠাগত করে তুলেছেন তিনি। জানা গিয়েছে, প্রায় ৩,৭০০ কর্মীকে ছাঁটাই করতে চলেছেন তিনি। সম্প্রতি ভারতীয়দের ছাঁটাই করেছেন মাস্ক। সান ফ্রান্সিসকোতে অবস্থিত এই মার্কিনি কমিউনিকেশন কোম্পানির ২৫০ কর্মী রয়েছেন ভারতে। শুক্রবার বিকাল চারটের সময় তাঁদেরকে মেইল মারফত জানিয়ে দেওয়া হয় যে, তাঁদের চাকরি আর নেই। এর পাশাপাশি স্বেচ্ছায় চাকরি ছাড়ার প্রস্তাবও দিচ্ছে এলনের সংস্থা। 

(Zee 24 Ghanta App দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App) 

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।