চাকরির বদলে ঘনিষ্ঠতার প্রস্তাব, দাঁইহাটের পুরপ্রধানকে পদত্যাগের নির্দেশ তৃণমূলের

Advertisement

চাকরির বদলে তরুণীকে ঘনিষ্ঠতার প্রস্তাব দেওয়ার ভিডিয়ো প্রকাশ্যে আসার পরই দাঁইহাট পুরসভার চেয়ারম্যান শিশির মণ্ডলকে পদত্যাগের নির্দেশ দিল তৃণমূল। পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে দলের অন্দরে কোনও রকম দুর্নীতি বরদাস্ত হবে না, এই বার্তা দিতেই দলের তরফে পদক্ষেপ করা হয়েছে বলে দাবি।

সম্প্রতি পূর্ব বর্ধমান জেলায় ভাইরাল হয় দাঁইহাট পুরসভার চেয়ারম্যান শিশির মণ্ডলের একটি কল রেকর্ডিং ও একটি ভিডিয়ো কল রেকর্ডিং। তাতে শোনা যায়, এক তরুণী শিশিরবাবুকে বলছেন, কাকু আপনি তো চেয়ারম্যান। আপনার অনেক ক্ষমতা। আমাকে একটা চাকরি করে দিন। জবাবে শিশিরবাবু বলছেন, তোর কত টাকা লাগবে বল, ৫, ১০ ১৫ হাজার টাকা। যা চাইবি দেব। জবাবে তরুণী বলছেন, টাকা চাই না কাকু। আমার একটা চাকরি চাই। তখন শিশিরবাবুকে বলতে শোনা যাচ্ছে, তাহলে আমাকে খুশি করে দে। এমনকী তরুণীকে কৃষ্ণনগরের একটি লজে সময় কাটানোর প্রস্তাবও দেন তিনি। ভাইরাল হওয়া ভিডিয়ো কলে তরুণীকে অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি করতে দেখা যাচ্ছে শিশিরবাবুকে। স্থানীয় স্কুলের বাংলার শিক্ষক শিশির মণ্ডল।

এই নিয়ে শোরগোল শুরু হলে বুধবার সাংবাদিক বৈঠক করে শিশিরবাবু বলেন, ‘ওই অডিয়ো ক্লিপ দেখে আমারও লজ্জা করছে। অডিয়ো ক্লিপটা ভালো করে শুনলে বুঝতে পারবেন অশ্লীল শব্দগুলো আমার কণ্ঠে এডিট করে বসানো হয়েছে। আমি দলের সব স্তরে বিষয়টা জানিয়েছি।’

ওদিকে বুধবার রাতেই তৃণমূলের শীর্ষস্তরে ভাইরাল অডিয়োর খবর পৌঁছয়। এর পর দলের শীর্ষনেতৃত্বের তরফে জেলা নেতৃত্বকে শিশিরবাবুকে পুরপ্রধানের পদ থেকে অপসারণের নির্দেশ দেওয়া হয়। সিদ্ধান্ত কার্যকর করতে বৃহস্পতিবার দলের পূর্ব বর্ধমান জেলা অফিসে বৈঠকে বসে দলের জেলা নেতৃত্ব। বৈঠকে হাজির ছিলেন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ। বৈঠক শেষে শিশিরবাবুকে পদত্যাগের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তবে আনুষ্ঠানিকভাবে তিনি এখনো পদত্যাগ করেননি।

 

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।