Mamata Banerjee: আবার উত্তরবঙ্গ সফরে যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, কেন যাবেন সেখানে?

Advertisement

এখন তিনি চেন্নাই সফরে গেলেও ফিরে যাবেন উত্তরবঙ্গ সফরে। সেখানের মানুষজনকে তিনি বড় ভালবাসেন। তাই তিন সপ্তাহের ব্যবধানে আবার উত্তরবঙ্গ সফরে যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলে সূত্রের খবর। আগামী ৮ নভেম্বর কোচবিহারে মদনমোহনের রাস উৎসবের সূচনা করতে যাবেন মুখ্যমন্ত্রী। কারণ তাঁকে রাস উৎসব কমিটির পক্ষ থেকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। তাই আগামী ৮ নভেম্বর কোচবিহার যেতে পারেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

বিষয়টি ঠিক কী ঘটতে চলেছে?‌ কোচবিহারের এই মদনমোহন মন্দিরের রাস উৎসব ২০০ বছরেরও বেশি সময় ধরে চলে আসছে। আর আগামী সোমবার সেই রাস উৎসব শুরু হচ্ছে। এই রাস উৎসব চলবে আগামী দু’সপ্তাহ। মদনমোহন মন্দিরের আয়োজকরা চান মুখ্যমন্ত্রীর হাত ধরেই এই রাস উৎসবের সূচনা হোক। তাই তাঁরা আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। আর মুখ্যমন্ত্রীর সচিবালয় সূত্রের খবর, এখানে নিজেও যেতে চান মুখ্যমন্ত্রী। তবে সনয় বের করতে পারলে নিশ্চয়ই যাবেন। তিনি ৮ নভেম্বর কোচবিহার যাবেন বলে এখনও পর্যন্ত ঠিক আছে। আগেও অবশ্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই রাস উৎসবে এসেছেন।

আর কী জানা যাচ্ছে?‌ গত মাসেই উত্তরবঙ্গে গিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। মাল নদীতে হড়পা বানে নিহতদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আবার জলপাইগুড়ি জেলায় একাধিক কর্মসূচি করেন তিনি। দল এবং প্রশাসনকে নিয়ে পৃথক বৈঠকও করেছেন তিনি। ঠিক তিন সপ্তাহ পরেই তাঁর আবার উত্তরবঙ্গে যাওয়াটা বেশ তাৎপর্যপূর্ণ। বছর ঘুরলেই পঞ্চায়েত নির্বাচন। তাই এই সফরে তিনি দলের নেতা– কর্মীদের সঙ্গে বৈঠক করবেন বলে সূত্রের খবর।

উল্লেখ্য, এখন মুখ্যমন্ত্রী দক্ষিণ ভারতে যাচ্ছেন। আজ, বুধবারই তামিলনাড়ুতে যাওয়ার কথা তাঁর। দু’দিনের সফরে তিনি যাবেন তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী এম কে স্ট্যালিনের সঙ্গে দেখা করতে। ইতিমধ্যেই তা নিয়ে জাতীয় রাজনীতিতে চর্চা শুরু হয়েছে। কারণ তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী স্ট্যালিন নরেন্দ্র মোদী বিরোধী শিবিরের নেতা। সুতরাং তাঁর সঙ্গে মমতার দেখা এবং বৈঠক বেশ তাৎপর্যপূর্ণ। আবার বৃহস্পতিবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যপাল লা গণেশনের দাদার ৮০তম জন্মদিন পালনের অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন। তারপর সোজা কলকাতা ফেরা।

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।