শুধু লিপস্টিক নয়, পর্দায় রক্ত দিয়েও সিঁদুরদান হয়! মেগার সাফল্যে মানালির যুক্তি

Advertisement

#কলকাতা: ফিরে পাওয়া গেল হারানো মসনদ। ‘ধুলোকণা’ ঝড়ে ধরাশায়ী প্রতিদ্বন্দ্বীরা। ফের টিআরপি তালিকার শীর্ষে মানালি দে এবং ইন্দ্রাশিস রায় অভিনীত এই ধারাবাহিক। দীর্ঘ সময় পর ফের সাফল্য। খুশি ‘ফুলঝুরি’। নিউজ 18 বাংলাকে তিনি বললেন, “পুরো কৃতিত্বটাই লীনাদির (গঙ্গোপাধ্যায়)। উনি জানেন, কী ভাবে এই গল্পের মোড় ঘুরিয়ে দিতে হয়। তাই ওঁকেই আরও একবার ধন্যবাদ জানাতে চাই।”

শুরু থেকেই দর্শকদের পছন্দের তালিকায় জায়গা করে নিয়েছিল ‘ধুলোকণা’। বরাবর টিকে থেকেছে টিআরপি-র দৌড়েও। তবে বিপুল সাফল্যের সঙ্গেই এসেছে ট্রোল, কটাক্ষ। ধারাবাহিকের গল্প নিয়ে সমালোচনার ঝড় বয়েছে নানা সময়ে। দিন কয়েক আগেই বিয়ের দৃশ্য়ে সিঁদুরের পরিবর্তে লিপস্টিকের ব্যবহার নিয়ে ‘গেল গেল’ রব ওঠে দর্শকমহলে। নিন্দার মুখে পড়েন নির্মাতারা। চটুল সব মিমে ভরে যায় নেটমাধ্যম। এ বিষয়ে মানালি বলেন, “যাঁরা বিষয়টি নিয়ে মজা করছেন, তাঁরা গল্পটি ভালো ভাবে বোঝেননি। তিতির আর লালনের বিয়েটা আসল ছিল না। লালনকে সুস্থ করে তোলার জন্য শুধুই বিয়ের নাটক করা হচ্ছিল। নকল বিয়ে বলেই সেখানে সিঁদুরের পরিবর্তে লিপস্টিক ব্যবহার করা হয়েছিল।”

আরও পড়ুন : শখের ট্যাটুতে কী আঁকবেন বুঝতে পারছেন না? এই চার নিয়ম না মানলেই বিপদ

আরও পড়ুন:  Health Tips: সিজন চেঞ্জের সময় গলাব্যথা? বরফের টুকরো বা আইসক্রিম চুষে খেলেই মিরাকেল

আরও যোগ করেন মানালি। তাঁর যুক্তি, “আমরা তো অনেক সময় পর্দায় রক্ত দিয়ে সিঁদুর দানও দেখেছি। কিন্তু সেটা নিয়ে তো এত চর্চা হয়নি। তা হলে শুধু মাত্র গল্পের প্রয়োজনে সিঁদুরের জায়াগায় লিপস্টিক ব্যবহৃত হলে সমস্যা কোথায়!”

টিআরপি নিয়ে কখনওই ভাবিত নন মানালি। ভালো কাজ করে যাওয়াই তাঁর লক্ষ্য। তবে ‘ধুলোকণা’র সাফল্যে নিশ্চিন্ত তিনি। অভিনেত্রীর কথায়, “টিআরপি নিয়ে আলাদা করে কখনও ভাবি না। তবে সেরা হতে পারলে কার না ভালো লাগে! আমার মনে হয়, লালনের সুস্থ হয়ে ওঠা, ফের ফুলঝুরির সঙ্গে ওর মিল, এ সবই ‘ধুলোকণা’কে তার পুরনো জায়গা ফিরিয়ে দিয়েছে। দর্শকদের ভালোবাসা পেয়ে আমরা সত্যিই খুশি।”

Published by:Sanchari Kar

First published:

Tags: Dhulokona, Manali Dey

Advertisement

Malek

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।